পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৩৫৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বনপৰ্ব্ব । , প্রাপ্তং স্নেহরসেন রত্নবিলসদভূষাভরালঙ্কতং । 8'సిపా গরুড় নন্দন আমি তব পিতৃ-সখী । করযোড়ে কহিল রাজায় বিধিমতে । বধুর অবস্থা দেখি যুদ্ধে আসি একা ॥ সীতা দিয়া শরণ লইতে রঘুনাথে । তোমারে সংবাদ দিতে আছিল জীবন ধন রাজ্য বংশ বৃদ্ধি কর নরপতি । উদ্ধার করহ রাম এই নিবেদন ॥ শুনিয়া রাবণ ক্রোধে মারিলেন লাথি ॥ এতেক বলিয়া পক্ষী ত্যজিল জীবন । যেইকালে বিভীষণে প্রহারে চরণে । জানিয়া পিতার সখা ভাই দুই জন ॥ রাজলক্ষী আশ্রয় করিল বিভীষণে ॥ অগ্নিকার্য্য করি তার পম্পানদীতটে । অতি দুঃখে বাহির হইল বিভীষণ । তথা হৈতে যান ঋষ্যমুকের নিকটে ॥ রামের চরণে গিয়া লইল শরণ ॥ তথায় দেখেন রাম বানরপ্রধান । শ্রীরাম বলেন তুমি শক্র-সহোদর। নল নীল হষেণ স্বগ্রীব হনুমান ॥ দেহায় প্রণাম করি জিজ্ঞাসে সন্ত্রমে । কহিলেন শ্রীরাম সকল ক্রমে ক্রমে ॥ সুগ্ৰীব জানিল এই পুরুষরতন । প্রণাম করিয়া করে নিজ নিবেদন ॥ মম জ্যেষ্ঠ বালিরাজ রাজ্য-অধিকারী । বলে রাজ্য নিল আমি যুদ্ধেতে না পারি ॥ মুনিশাপে হেথায় আসিতে শক্তি নাই । সে কারণে আছি প্রাণে শুনহ গোসাই ॥ শ্রীরাম বলেন কপিরাজ তুমি মিতা । তাম রাজ্য দিব আমি, তুমি দিবে সীতা ॥ সুগ্ৰীব বলিল তবে য়ে আজ্ঞ তোমার । সীতা উদ্ধারিতে প্ৰভু মোর রৈল ভার ॥ শ্রীরাম কহেন আজি প্রত্যুষ সময় । বালিকে মারিয়া রাজা করিব তোমায় ॥ হেনমতে রঘুনাথ বালিরাজা মারি । ই গ্রবেরে করিলেন রাজ্য অধিকারী ॥ সরি মাস তথায় থাকেন রঘুনাথ । কপিরািজ সুগ্ৰীবে লইয়া তবে সাথ ॥ সমূদ্র সমীপে যান সৈন্য সমাবেশে । ঈনুমানে পাঠাইল সীতার উদেশে ॥ পবন-নন্দন বীর পোড়াইল লঙ্কা । রাজপুত্র মারিয়া রাজারে দিল শঙ্কা ॥ স তার উদ্দেশ করি আসি মহাবীর । হীরাম লক্ষণ হইলেন তাহে স্থির । 5েণকালে শুন রাজা দৈব বিবরণ। রাবণের অনুজ ধাৰ্ম্মিক বিভীষণ ॥ কিরূপে বিশ্বাস তোমা করিব অন্তর ॥ বিভীষণ বলে প্রভু ভাব মনে যদি ৷ তোমার সেবক আমি জনম অবধি ॥ এতে অন্যমত যদি করি কদাচন। হইব কলির রাজা কলির ব্রাহ্মণ ॥ কলিতে জন্মিব আর জীব চিরকাল । শুনিয়া হলেন রাম অনন্দ বিশাল ॥ লক্ষণ কহেন হাসি করি যোড়কর। উত্তম করিল দিব্য রাক্ষস-ঈশ্বর ॥ চিরকাল তপস্যা করিয়া যাহা পায় । পরদ্রোহ করিয়া এ সব যদি হয় ॥ ইহা ছাড়ি অন্য বাঞ্ছা করে কোনজন । হাসিয়া কহেন রাম, বালক-লক্ষণ ॥ কলিতে ব্রাহ্মণ রাজা দীর্ঘজীবী জন । এই তিনে নিস্তার নাহিক কদাচন ॥ করিল কঠোর দিব্য রাক্ষসের পতি । না বুঝিয়া হাসিল লক্ষণ শিশুমতি ॥ আজি হৈতে মিত্র হৈল বিভীষণ । লঙ্কা দিব তোমারে মারিয়া দশানন ॥ তিনজন বিচার করিল এইমত । লঙ্কায় গমনে সবে হইল উদ্যত ॥ বানর সকলে সিন্ধু বান্ধে অবহেলে । , পাষাণ ভাসিল রাজা সাগরের জলে ॥ বান্ধে নল সাগর রামের উপরোধে । পার হৈয়া কটক সকল কাৰ্য্য সাধে ॥ মহাভারতের কথা অমৃত-সমান । কাশীরাম দাস কহে শুনে পুণ্যবাম ॥