পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৩৬৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8૨૭ হয়গ্ৰীবের ধ্যান—ও* শরচ্ছাপ্রভমখবত্ত = [ মহাভারত । এইমতে অমুক্ষণ সাবিত্রীর মনে । | কালপূর্ণ হয় আজি রাজারমদনে রাণী সত্যবান কিছুই ন জানে ॥ কৰ্ম্মসূত্রে টানিয়া লইল মৃত্যুস্থানে ॥ তক প্রকারে শুন ধৰ্ম্ম নরবর। বিবাহ জনম মৃত্যু যথা যেই মতে । সরের শেষ মাত্র দ্বিতীয় বাসর। সময়ে আপনি সবে যায়ু সেই পথে ॥ সন্ত" আকুল হৈল নৃপতির স্থত । সে কারণে যে স্থানে তাহার মৃত্যুস্থান । বচারিল, পূর্ণ হৈল নারদের কথা ॥ ভূপতি-নন্দন তথা করিল প্রয়াণ ॥ অবশ্য হইবে যাহা করিবে ঈশ্বর। . আমার একান্ত ভার তাহার উপর ॥ হেনমতে বিচার করিয়া সারোদ্ধার । আরম্ভ করিল তবে সংসারের সার ॥ পাইলেন জ্যৈষ্ঠমাস কৃষ্ণ চতুর্দশী। লক্ষী নারায়ণে সতী পূজে অহৰ্নিশি ॥ শুদ্ধভাবে একমনে বসিল হনদরী । অনায়াসে বঞ্চিলেক দিবস শর্বর্বরী ॥ আর দিন প্রভাতে উঠিয়া সযতনে । বিধিমতে করাইল ব্রাহ্মণ-ভোজনে ॥ দক্ষিণাস্ত করি কার্য্য কৈল সমাপন । আশীৰ্ব্বাদ করিয়া গেলেন দ্বিজগণ ॥ এইরূপে বঞ্চিলেক দ্বিতীয় প্রহর । সেই দিনে পূর্ণ সত্যবানের বৎসর ॥ তাহাতে ভূপতি স্থত চিন্তাকুলমন । হেনকালে শুন রাজা দৈবের ঘটনা ॥ নিত্য নিত্য সত্যবান প্রবেশিয়া বন । ফল মুল কাষ্ঠাদি করেন আহরণ ॥ দিবসের শেষ দেখি রাজার তনয় । চারিল বনে যাই হইল সময় ॥ ভাবিয়া করও কুঠার লইলেক করে । বিদায় হইল গিয়া মায়ের গোচরে ॥ tণী বলে শুন পুত্র দিব। অবশেষ । মত সময় বনে না কর প্রবেশ ৷ ত্যিবান বলে মাত না করিহ ভয় । খনি আসিব মাতা জানিও নিশ্চয় ॥ ত বলি চলিলেক রাজার কুমার। পেয়ে সাবিত্রী দেখিল অন্ধকার ॥ শাকাকুল বিচার করিয়া মনে মন । র্ণ হৈল যাহা কৈল ব্ৰহ্মার নন্দন ॥ ভাবিলেক কালপ্রাপ্ত যদি মম পতি । আমার উচিত হয় যাইতে সংহতি ॥ কারে না কহিল কিছু নৃপতির স্থত। শীঘ্ৰগতি গেল তবে পতি যায় যথা ॥ নৃপতি শুনিয়া বলে নিষেধ বচন । সাবিত্রী নিষেধ নাহি মানিল তখন ॥ ‘রাজরাণী বার্তা পান বধু যায় বন । চিন্তাকুলা মহিষী আইল সেইক্ষণ ॥ সাবিত্রীকে কহিলেন মধুর বচন । কহ বধু চিন্তা কর কিসের কারণ ॥ ফল মূল ল’য়ে স্বামী আসিবে এখন । কি কারণে মহাকষ্টে যাবে তুমি বন ॥ অন্য কেহ নাছি তথা দেখ ঘোর বন । কি কারণে চিন্তা কর স্বামীর কারণ ॥ দুই দিন হৈল তাহে আছ উপবাসী । ঘরে আসি ভোজন করহ হখে বসি । শাশুড়ীর মুখে শুনি এতেক বচন । করযোড়ে কহিতে লাগিল সেইক্ষণ ॥ আসিয়া পশ্চাতে আমি করিব ভোজন । আজ্ঞা দেহ তবে রাণী দেখে আসি বন ॥ বিশেষতঃ আছে এই শাস্ত্রের প্রসঙ্গ । ব্ৰত শেষ বঞ্চিবেক নিজ পতি সঙ্গ ॥ দেখিয়া বনের শোভা দিবস বঞ্চিব । আনন্দে স্বামীর সঙ্গে এখনি আসিব ॥ সাবিত্রীর অভিলাষ বুঝি রাজরাণী । নিবৃত্ত হইল আর না কহিল বাণী ॥ হেনমতে সাবিত্রী সহিত সত্যবান । নিবীড় কানন মাঝে করিল পয়াণ ॥ নানা রূপ কৌতুক দেখিয়া দুইজন । বহুবিধ ফলমূল কৈল আহরণ ॥