পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৩৭১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বনপৰ্ব্ব । ] এতেক কহিল যদি ভীম মহামতি । কতদূরে আস্ত্রের হইল উৰ্দ্ধগতি ॥ অর্জন কহেন এই জাগে যম মনে । অরণ্যে যখন আসি ভাই পঞ্চজনে ॥ দুই হাতে চতুর্দিকে ফেলাইনু ধূলা । তাদৃশ অস্ত্রেতে কাটি দুষ্ট ক্ষত্রগুলা ॥ দিব্যবাণে কর্ণবীরে করিব নিধন । ভীমসেন মারিবেক ভাই শত জন ॥ এ সব ভাবিয়া করি কালের হরণ । আমার মনের কথা শুন নারায়ণ ॥ তবে আত্ম কতদূরে উঠে উৰ্দ্ধপথে । নকুল কহিল তবে কৃষ্ণের সাক্ষাতে ॥ শুন কৃষ্ণ যে সব মনেতে চিন্তা করি । দশ গিয়া রাজা হৈলে ধৰ্ম্ম অধিকারী পূৰ্ব্বমত রহিব হইয়া যুবরাজ । ধৰ্ম্মরাজে ভেটাইব নৃপতি-সমাজ ॥ fবটারিয়া বলিব দেশের ভালমন্দ । তবে অস্ত্ৰ কতদূরে উঠিল স্বচ্ছন্দ ॥ সহদেব বলে’ মনুক্ষণ ভাবি মনে । রাজ্যে গিয়া নৃপতি বসিলে সিংহাসনে ॥ করিব রাজার অগ্ৰে চামর ব্যজন । করব সবার তত্ত্ব যত পুরজন ॥ নিযুক্ত রহিব নিত্য ব্রাহ্মণ-ভোজনে । সব দুঃখ পাসরিব জননী-পালনে ॥ মনের মানস কহিলাম নিষ্কপটে । এতেক কহিতে আত্ম কতদূর উঠে ॥ তঃপর কহিতে লাগিল যজ্ঞসেনী । পই চিন্তা করি আমি দিবস রজনী ॥ শামীয় দিয়াছে দুঃখ দুষ্টগণ যত । তথfচলুন বাণে হবে সৰ্ব্বজন হত ॥ পতাকার নারীগণ কান্দিবেক দুঃখে । শপি পরিহাস করি মনের কৌতুকে ॥ বিধত নিত্য করি যজ্ঞ মহোৎসব। "গণ করিব সুখে যতেক বান্ধব ॥ “তক কহিল যদি কৃষ্ণ গুণবতী । 5করি আস্ত্রের হইল অধোগতি ॥ QQー@ぐわ নিজরুচ সংক্রস্তরক্ষেীগণং। 8ථL মহাভীত হইয়া কহেন যুধিষ্ঠির । কিহেতু পড়িল আত্ম কহ যদুবীর ॥ গোবিন্দ বলেন রাজা কি কহিব কথা । সকল করিল নষ্ট দ্রুপদ দুহিত । কহিল সকল যত কপট বচন । এ কারণে পড়ে আম্র ধৰ্ম্মের নন্দন ॥ ব্যগ্র হয়ে পঞ্চভাই কহে করপুটে । উপায় করছ কৃষ্ণ যাহে আত্ম উঠে ॥ গোবিন্দ কহেন কৃষ্ণ কহ সত্যকথা । নিশ্চয় বৃক্ষেতে আম্র লাগিবে সৰ্ব্বথা ॥ কহিল কৃষ্ণার প্রতি ধৰ্ম্ম নরপতি । কি কারণে স্বষ্টি নষ্ট কর গুণবতী ॥ কপট ত্যজিয়া কহ গোবিন্দের আগে । সবার জীবন রয় বৃক্ষে আত্ম লাগে ॥ এতেক কহিল যদি ধৰ্ম্মের তনয় । কিছু না কহিয়া দেব ? মৌনভাবে রয় ॥ দেখিয়া কুপিল তবে পার্থ ধনুৰ্দ্ধর । দ্রৌপদারে মারিতে যুড়িল দিব্য শর ॥ অর্জুন কহেন শীঘ্ৰ কহ সত্য কথা । নহে তীক্ষ বাণেতে কাটীব তোর মাথ ॥ এতেক কহিল যদি পার্থ মহামতি । লজ্জা ত্যজি কহিতে লাগিল গুণবতী ॥ দ্ৰৌপদী কহিল দেব কি কহিব আর । কায়মনোবাক্যে তুমি জ্ঞান সবাকার ॥ যজ্ঞকালে কর্ণবীর আইল যখন । তারে দেখি আমার হইল এই মন ॥ এই জন হৈতে যদি কুন্তীর নন্দন । | | ইহার সহিত পতি হৈত ছয় জন ॥ সেই কথা এখন হইল মম মনে । এতেক কহিতে অস্ত্ৰ উঠে সেইক্ষণে ॥ বৃক্ষেতে লাগিল যেন ছিল পূৰ্ব্বমত । আশচর্য্য মানিয়া সবে হৈল আন্দিত ॥ নিস্তার পাইয় মৌনে রছে যুধিষ্ঠির । গর্জিয়া উঠিয়া কহে বৃকোদর বীর ॥ এই কি তোমার রীতি কৃষ্ণ দুষ্টমতি । এক পতি সেবেন কুলের কুলবতী a