পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৩৭৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বনপৰ্ব্ব । ] বাহুভ্যাং স্থতশঙ্খচক্রমাণশং দংষ্ট্রোগ্রবক্তোল্পস । অতিথি-বিধানে কৈল সবাকার পূজা । পরম আনন্দ মনে যুধিষ্ঠির রাজা ॥ নানা কথা কৌতুকে রহিল মনোরথে। . রজনী বঞ্চিয়া সবে উঠিল প্রভাতে ॥ পঞ্চভাই প্রণাম করিয়া মুনিবরে । বিদায় হইয়া যান হরিষ অস্তরে ॥ বহু কহিলেন কৃষ্ণ, মুনি সন্দীপনে । - সম্ভাষ করিল তবে ভাই পঞ্চজনে । তথা হৈতে পূৰ্ব্বভিতে করিল গমন । দুষ্ট দিকে দেখেন অনেক রম্যবন ॥ গ্রসেন নামে বন যমুনার তটে । উপনীত সৰ্ব্বজন তাহার নিকটে ॥ সুধিষ্ঠিরের ধৰ্ম্ম জানিবার জন্ত ধন্মের ছলনা ও ভীমের জল আনিতে গমন । জিজ্ঞাসেন জন্মেজয় কহু অতঃপর । কি কি কৰ্ম্ম করিলেন পঞ্চ সহোদর ॥ মুনি বলে রহস্য শুনহ নৃপবর । তৃষ্ণায় পীড়িত হ’য়ে পঞ্চ সহোদর ॥ রক্ষমূলে বসি রাজা কহিল ভীমেরে । জল আছে কোথা ভীম আনহ সত্বরে ॥ আজ্ঞামাত্র বৃকোদর করিল গমন । সে বনে না পায় বীর জল অন্বেষণ ॥ কাথায় পাইব জল চিন্তে মহামতি । পবন-নন্দন যান পবনের গতি ॥ কত করে দেখিলেন কুসুম কানন । * নজাতি ফল ফল অতি সুশোভন ॥ অশোক কিংশুক জাতি টগর মল্লিক। । সম্পদ মাধব কুরু ঝ’টি শেফালিকা ॥ গলমণি পলাশ কাঞ্চন নন। ফুল । মধুলোভে উড়ে বসে মত্ত অলিকুল ৷ *ম পঞ্জনা নাচে আপনার স্থখে । পর ময়ূরী নাচে পরম কৌতুকে ॥ કો হৈতে যান বীর অতি মনোদুঃখে । **:থায় পাইব জল যাব কোন মুখে ॥ _ চিন্তাকুল বৃকোদর করিছে গমন । হেনকালে শুন রাজা অপূৰ্ব্ব কথন । জানিতে পুত্রের ধৰ্ম্ম আসি ধৰ্ম্মরায় । দিব্য এক সরোবর স্বজেন তথায় ॥ আপনি মায়ায় বক পক্ষীরূপ ধরি । রছিলেন তথায় ছলিতে মনে করি । , পাইয়া জলের তত্ত্ব বীর বৃকোদর । ত্বরিত আইল তথা হরিষ অন্তর ॥ জল দেখি তুষ্ট হয়ে পৰন-নন্দন । পান করিবারে বীর নামিল তখন ॥ মায়াপক্ষী বলে শুন ওহে মতিমান । সমস্ত পূরণ করি কর জলপান ॥ নতুবা তোমার মৃত্যু হবে জলপানে । সমস্ত পূরণ কর আমার বচনে ॥ “কা-চ বার্তা কিমাশ্চৰ্গা” ক পন্থী ক-চ মোদতে । মমৈতাংশ্চতুরঃ প্রশ্নান কথয়িত্ব জলং পিব ॥” কিবা বার্তা কি আশ্চর্য্য পথ বলি করে । কোন জন স্থার্থী হয় এই চরাচরে ॥ পাণ্ডুপুত্র আমার যে এই প্রশ্ন চারি। উত্তর করিয়া তুমি পান কর বারি ॥ ভীমান্বেষণে অর্জুনের গমন । ভীম বলে আগে করি জল আস্বাদন । তবে সে করিব তব সমস্যা পুরণ ॥ তৃষ্ণায় আকুল ভীম অহঙ্কার মনে । জলস্পর্শ মাত্ৰেতে মরিল সেইক্ষণে ॥ হেথায় ভাবিত রাজা আশ্রমে বসিয় । ধীরে ধীরে কহিলেন অর্জুলে চাহিয়া ॥ শুন ভাই ধনঞ্জয় না বুঝি কারণ । কিবা হেতু ভামের বিলম্ব এতক্ষণ ॥ শীঘ্ৰগতি ভীমের করহ অন্বেষণ । বুঝে ভীম কয় লঙ্গে করিতেছে-রণ ॥ আজ্ঞামাত্র পার্থবীর উঠিয়া সত্বর । নিলেন গাণ্ডীব হস্তে তুণপুর্ণ শর ॥ প্রণাম করিয়া বীর ধৰ্ম্মের চরণে । চলিলেন ধনঞ্জয় ভীম অন্বেষণে ॥