পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৪৩৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


있어난 নব-যৌবন-সম্পমাচাৰ্ব্বঙ্গী ললিতপ্রভ । [ মহাভারত | কোন ছার এরা সব তৃণ হেন গণি । এখনি দহিতে পারি কারে নাহি মানি ॥ বিন! ধৰ্ম্ম অজ্ঞায় নাহিক ভাই শক্তি । তাহে কোন ভদ্র যাহে ধৰ্ম্মেতে অভক্তি ॥ অস্বাকার ধৰ্ম্মের এ কৰ্ম্মে অভিপ্রায় । সে কারণে এ কার্য্য করিতে না যুয়ায় ॥ অৰ্জ্জুনের বচনে হইল শান্ত ক্রোধ । ফেলিলেন গদ ভীম মানি উপরোধ ॥ আভরণ পরিধান যতেক তাগছিল । পঞ্চ ভাই আপন: আপনি সব দিল ॥ সভা ত্যাগ করিয়া নিরুস্ট ধূল্যাসনে । অধোমুখে বসিলেন ভাই পঞ্চজনে ॥ হেনকালে দুষ্ট কৰ্ণ কহিল বচন । দ্রৌপদী আনিতে দূত করই প্রেরণ ॥ শুনি দুর্য্যোপন তবে বিস্তরে ডাকিল । হাস্য পরিহাসে তবে কহিতে লাগিল ॥ তবে ধৃতরাষ্ট্র রাজ বুঝিয় বিচার । সভা হৈতে গুহে তবে গেল আপনার ॥ প-প-সভাস দ্রৌপদীকে আনয়ন । তবে দুয্যোধন রাজা আনন্দিত মতি, ভাবিয়া বলিল তবে বিদুরের প্রতি ॥ বিষাদিত কেন বসিয়াছ অধোমুখে । ছেন বুকি দুঃখী বড় পাণ্ডবের দুঃখে ॥ উঠ উঠ যাহ শীঘ্ৰ ইন্দ্রপ্রস্থে চলি । আপনি আইস হেথ লইয়; পঞ্চালী ॥ অন্তঃপুরে আছয়ে যতেক দাসীগণ । তা সবার সহিত করুক দাসীপণ ॥ এত শুনি বিদুর কম্পিত কলেবর । ক্রোধমুখে দুর্য্যোধনে করিল উত্তর ॥ মন্দবুদ্ধি মতিচ্ছন্ন না বুঝি কিছু। ব্যাস্ত্রেীরে করালি রেগধ হ’য়ে মৃগ শিশু ॥ iবন সঞ্চহারিয়া বসিয়াছে বিষধর । অঙ্গলি না পূর তার মুখের ভিতর ॥ ..কমনে এ দুষ্টভাষ আনিলি মুখেতে । দ্রৌপদী হইবে দাসী কহিলে সভাতে ॥ দ্রৌপদীতে তোমার কিসের অধিকার । حسك– সবাই না বুঝ কেন করিয়া বিচার ॥ আপনি হারিল পূর্বে ধৰ্ম্মের কুমার । অন্যজন উপরে কিসের অধিকার ॥ অন্যের উপরে তার প্রভুপণ কিসে। আর তার চারি স্বামী আছয়ে বিশেষে । মম বোল যদি তোর নাহি লয় মনে । জিজ্ঞাসিয়া দেখ যত বৃদ্ধ মন্ত্ৰিগণে ॥ এই যে বৃদ্ধক অন্ধ হৃষ্ট হইয়াছে । লোভেতে লইল ছন্ন নাহি দেখে পাছে ৷ নিকট আইলে মৃত্যু কে করে বারণ । ফল ধরি যেন বেণু বৃক্ষের মরণ ॥ শু নাইলে খণ্ডে অস্ত্রাঘাতের বেদন : বাক্যাঘাত নাহি খণ্ডে যাবৎ জীবন ॥ পাশাতে জিনিয়; বড় আনন্দ হৃদয় ; চিত্তে কর পাণ্ডবের হৈল অসময় ॥ শ্ৰীমন্ত জনের হয় অসময় কিসে । কি তার সহায় নাই এই মহাদেশে ॥ কোথা হয় শ্রীরহিত শ্ৰীমন্ত সুজন । জলেতে পাষাণ নাহি ভাসে কদাচন ॥ লাউ নাহি ডুবে কভু জলের ভুিতর। কখন অগতি নহে বিষ্ণুভক্ত নর ॥ পুনঃ পুনঃ আমি কহিলাম হিতবাণী । না শুনিলে মৃত্যুকাল হৈল হেন জানি ॥ নিশ্চয় হইল দেখি তিন কুল ধ্বংস । শান্তনু বাহলীক অন্ধ নৃপতির বংশ ॥ পাত্র মিত্ৰ ইষ্ট পুত্ৰ সহিত মজিবে । আমার এ সব কথা পশ্চাতে ফলিবে l এইরূপ বিদুর কহিল বহুতর । শুনি দুর্য্যোধন তারে নিন্দিল বিস্তর ॥ প্রতিকামা আছিল সম্মুখে দাড়াইয়া । তারে আজ্ঞা দিল রাজা নিকটে ডাকিয়! : ষাহ তুমি দ্রৌপদারে আন এইক্ষণে । পাণ্ডবেরে ভয় তুমি না করিহ মনে ॥ বিদুরের বোলে কিছু না করিহ ভয় । সৰ্ব্ব কাল বিদুরের ভয়াৰ্ত্ত হৃদয় ॥