পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৫৪২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


করালদংষ্ট্রঃ কমলাসনস্থঃ কদম্বমালা কুটিল কৃশাঙ্গঃ মহাভtag, তবে তব পুত্র জয়, কুরবুদ্ধি কুরুচয়, সবংশেতে হইবে সংহার ॥ Gł SD8 - | শ্ৰীকৃষ্ণের নিকটে কুন্তীর রোদন। | शश डीभ যুধিষ্ঠির, হাহা পুত্র পার্থবীর, বলিলেন যুধিষ্ঠির, শীঘ্ৰ যাও যত্নবীর, সহদেব নকুল তনয় । জননীরে কহিবে এমতি । রূপ গুণ শীলযুত, হাহা বধূ পতিব্ৰতা, ; হবে দুঃখ অবসান, ধৰ্ম্ম রাখিবেন মান, তোমার বিচ্ছেদে প্রাণ রয় ॥ দুৰ্গম বিষম বনে, সঙ্গে নিজ স্বামীগণে, ভয়ানকে বঞ্চিলে কেমনে । দারুণ পাপিষ্ঠ পশু, ব্যাঘ্ৰ সৰ্প যত কিছু, যক্ষ রক্ষ ভয়ানক স্থানে ॥ তপস্বীর বেশধারী, যত জীব হিংসাকারী, ভাগ্যে পুণ্যে না মারিল প্রাণে । পূৰ্ব্ব পুণ্যফল হতে, রক্ষা হৈল রিপুহাতে, ধৰ্ম্মবলে বাচিলে জীবনে ॥ | | | i প্রাণের দোসর তুমি, নির্ভয় করিলে ভূমি, : নানা কথা তালাপনে অতি হৃষ্টমন ॥ সংহারিয়া রাক্ষস দুর্জন । হাহা পুত্র বৃকোদর, মর্ম গোত্রে গোত্রধর, ; কান্ধে হ’তে ভিক্ষাকুলি ভূমিতে নামায় ॥ গৃহে প্রবেশিতে দেখে দেবকীনন্দন । কহে গদগদ স্বরে সজল লোচন ॥ হাহা পার্থ আমার জীবন ॥ করিয়া খাণ্ডব দাহ, তুষ্ট কৈলে হব্যবাহ, ইন্দ্রের ভাঙ্গিলে মহাভয় । মহা উগ্ৰ তপ করি, তুষ্ট কৈলে ত্রিপুরারি, বাহুযুদ্ধে কৈলে পরাজয় ॥ এইরূপে পুত্ৰগণ, কান্দে দেবী ভোজের নন্দিনী । শোকাকুল অতি দীন, শরীর অত্যন্ত ক্ষীণ, মূৰ্ছা হ’য়ে পড়িল ধরণী ॥ দেখি ব্যস্ত হয়ে হরি, তুলিলেন হাতে ধরি, প্ৰবোধিয়া কহিছেন তারে । শোক ত্যজ পিতৃম্বস, গেল তব দুঃখদশ, পুত্ৰগণ দুঃখ গেল দূরে ৷ প্রসন্ন হইল কাল, আজি কালি হস্তিনানগরে। আমারে করিয়া দূত, পাঠাইল ধৰ্ম্মস্থত, জানাইতে কৌরব-কুমারে ॥ যদি নাহি দেয় রাজ্যভার । মনে করি চতুগুণ, : অচিরাৎ ঘুচিবে দুৰ্গতি ॥ এত বলি জগৎপিতা, প্রবোধেন ভোজস্থত, শুনি কুন্তী হৈল হৃষ্টমন । উদ্যোগপর্বের কথা, ব্যাসবিরচিত গাথ, কাশীরাম দাস বিরচন ॥ শ্রীকৃষ্ণের প্রতি বিছরের স্তব ও তাঙ্গর গৃহে শ্ৰীকৃষ্ণের ভোজন । কুন্তী কাছে বসিয়া ছিলেন নারায়ণ । সহসা বিদুর উপনীত নিজালয় । আমার ভাগ্যের কথা কহিতে না পারি । কৃপা করি মম গৃহে আসিলে মুরারি ॥ কোন দ্রব্য দিয়া আমি পূজিব তোমারে। আছুক অন্যের কাজ অন্ন নাহি ঘরে । বড় ভাগ্যহীন আমি অধম বঞ্চিত । ক্ষমিবে আমারে প্রভু দেখিয়া দুঃখিত । এত বলি দণ্ডবৎ হ’য়ে করে স্তুতি । নমোনমঃ পূৰ্ণব্ৰহ্ম জগতের পতি ॥ তুমি আদ্য তুমি অন্ত তুমি মধ্যরূপ । সকল সংসার প্রভু তোমার স্বরূপ ৷ ধৰ্ম্ম হবে মহীপাল, । নমো নমঃ আদি ব্রহ্ম মৎস্যরূপধর । নমো নমো হয়গ্ৰীব নমস্তে ভুধর ॥ নমস্তে বরাহ হিরণ্যাক্ষবিদারক । নমো ভূগুপতিরূপ ক্ষত্ৰকুলান্তক ॥ যদি নাহি শুনে বাণী, ক্রুরবুদ্ধি কুরুমণি, নমঃ কুৰ্ম্ম অবতার মন্দরধারণ । নমস্তে মোহিনীরূপ অহরমোহন ॥