পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৫৬০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


むQ8 তক্ষকসর্পরাজেন বামকঙ্কণ ভূষিতাং, . মহারাজ যুধিষ্ঠির ধৰ্ম্মের নন্দন । বন্দিলেন ভীষ্ম দ্ৰোণ কৃপের চরণ ॥ তুষ্ট হয়ে তিনজন আশীৰ্ব্বাদ করে । রণজয়ী হও আর সংহার শত্রীরে ॥ তোমার অভীষ্ট সিদ্ধ হউক সত্বর । তুষ্ট হ’য়ে তিনবীর দিল এই বর ॥ ধৰ্ম্মরাজ বলেন যে আজ্ঞ হৈল মোরে । এ বাক্য অলঙ্ঘ্য সদা জানিব সংসারে ॥ নিজ পরাক্রম আমি কিছু নাহি জানি । কিন্তু আশীৰ্ব্বাদে জয়ী হইব আপনি ॥ এই মাত্র ভরসা হইল মম চিত্তে । অবশ্য হইবে জয় সন্দেহ না ইথে ॥ থা নিবেদন চরণে তোমার । করিল কপট পাশ৷ বিখ্যাত সংসার ॥ . কপট করিয়া সব রাজ্য ধন নিল । দ্বাদশ বৎসর বনবাস অণমা দিল ॥ রাজ্যের বিভাগ নাহি দিল দুর্য্যোধন । পঞ্চগ্রাম না দিল করিল যুদ্ধ-পণ ॥ সেই অনুক্রমে যুদ্ধ আয়োজন করে । অসম্ভব দেখি আমি ভাবিত অস্তরে ॥ মহাবল পিতামহ বিদিত সংসারে । দেবাস্থর র্যাহার নামেতে সদা ডরে ॥ গুরু দ্রোণাচাৰ্য্য নামে কাপে তিনপুর। সশস্ত্র থাকিলে তারে ডরে দেবাস্থর ॥ কৌরব পাণ্ডব সম তোমা সবাকার । পক্ষাপক্ষ দেখি ভয় জন্মিল আমার ॥ কোন বীর যুঝিবেক তোমাদের সনে । মম ভাগ্যে রাজ্য নাহি জানিলাম মনে ॥ কিন্তু তোমা সবাকার আশীৰ্ব্বাদ মুল । অবশ্য পাইব এই যুদ্ধার্ণবে কূল । যুধিষ্ঠির বচনে হইয়া তুষ্ট মনে । ধন্যবাদ করিয়া কহিল তিজ জনে ॥ সাধু ধৰ্ম্মপুত্ৰ তুমি ধৰ্ম্ম-অবতার। তোমার ধৰ্ম্মেতে ধন্য হইল সংসার ॥ বেখানেতে ধৰ্ম্ম তথা কৃষ্ণ মহাশয় । ৰখা কৃষ্ণ তথা জয় নাছিক সংশয় ॥ [মহাভারত। ধৰ্ম্মবলে রাজ্যভোগ শাস্ত্রে হেন कग्न । ধৰ্ম্মেতে থাকিলে তার সর্বত্ৰেতে জয় । শত দ্ৰোণ শত ভীষ্ম আসে হরপতি । তুথাপি ধৰ্ম্মেতে জয় শুন নরপতি । যাহার সহায় হরি ত্রিলোকের নাথ । কাহার ক্ষমতা তারে করিতে নিপাত । । তথা হৈতে নিবৰ্ত্তিয়া ধর্মের কুমার। নিজ দলে করেন আনন্দে আগুলার ॥ ডাকিয়া বলেন রাজা শুনহ বচন । এ সৈন্যের মধ্যে যেই ইচ্ছয়ে জীবন। শ্ৰীকৃষ্ণ-চরেণে গিয়া লউক আশ্রয়। কোন স্থানে কোনকালে নাহি তার ভয়। শুনিয়া যুযুৎস্থ নিজ সৈন্যগণ ল’য়ে । ধৰ্ম্ম অগ্ৰে কহিলেন কৃতাঞ্জলি হয়ে ॥ নিবেদন করি শুন ধৰ্ম্ম অধিকারী । শরণ লইনু মোরে দেখাও মুরারি ॥ তবে যুধিষ্ঠির রাজা যুযুৎস্থকে লয়ে । কহিলেন গোবিন্দেরে বিনয় করিয়ে ॥ যেন অীমা পঞ্চজনে স্নেহ কর হরি । ততোধিক যুযুৎস্থকে রাখ দয়া করি ॥ শ্ৰীকৃষ্ণ কহেন রাজা স্থির কর মন । সাবধান হও তুমি উপস্থিত রণ ॥ যুযুৎস্থ চলিল যদি ধৰ্ম্মরাজ সাথ । বার্তা শুনি বিষাদিত হৈল কুরুনাথ ॥ রথ হৈতে নামি শীঘ্ৰ অশ্বে আরোছিল । ভীষ্মের নিকটে গিয়া সব নিবেদিল ৷ কি মন্ত্রণা করিম আইল ধৰ্ম্মরাজ । যুযুহকে নিয়া গেল নিজ সৈন্যমাঝ । লক্ষ সেনা ল’য়ে গেল উপস্থিত রণে । ইহার বিচার কেন না কর আপনে ॥ শুনি ভীষ্ম রাজারে কহেন বিবরণ । আমা বন্দিবারে এল ধৰ্ম্মের নন্দন ॥ ধৰ্ম্মডাক ধৰ্ম্মরাজ সৈন্য মধ্যে দিল । প্রাণেতে কাতর হয়ে শরণ লইল । মম পরাক্রম তুমি জান ভালমতে । স্বরাহর আসে যদি সমর করিতে ।