পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৫৬৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


©Ꮼ3 অৰ্জুনের ছিদ্র ভীষ্ম খুজিয়৷ বেড়ায় । তিল আধ অবসর কদাচ না পায় ॥ ব্ৰহ্ম-অস্ত্র-তেজে যবে প্রত্যক্ষ হইল । ক্ষণেক পার্থের দৃষ্টি তাহাতে পড়িল ॥ এই অবসরে বীর শান্তনু-নন্দন । দশ সহস্ৰেক রথী করিল নিধন ॥ জয়শঙ্খ বাজাইল দিন অবসান । দ্বিতীয় দিনের যুদ্ধ হৈল সমাধান ॥ কৌরব পাণ্ডবদলে যত যোদ্ধাবীর । সবে চলিলেন তবে আপন শিবির। মহাভারতের কথা অমৃত সমান । কাশীরাম দাস কহে শুনে পুণ্যবান ॥ তৃতীয় দীনের যুদ্ধারম্ভ । শিবিরেতে গিয়া ধৰ্ম্মপুত্র মহারাজ । স্নান দান করিয়া বৈসেন সভামাঝ ॥ সান্তনু করেন বহু বিরাট্র-রাজনে । স্বর্গে গেল পুত্ৰ তব, শোক কি কারণে ॥ শোক ত্যজ মহারাজ, স্থির কর মন । জন্মিলে অবশ্য মৃত্যু না হয় খণ্ডন ॥ বিরাট বলিল মম পূৰ্ব্ব পুণ্য ছিল । র্তেই মম পুত্র ক্ষত্ৰধৰ্ম্ম আচরিল ॥ সম্মুখ সংগ্রামে তুষি যত বীরগণ । স্বরলোকে গেল চাল, শোক অকারণ ॥ তবে যুধিষ্ঠির রাজা যোড় করি হাত । সবিনয়ে বলিলেন শ্রীহরি সাক্ষাৎ ॥ দুই দিন যুদ্ধ হৈল পিতামহ সনে । রথী দশ সহস্ৰ মারিল ঘোর রণে ॥ প্রাণপণে রাখিবারে নীরে ধনঞ্জয় । কি প্রকারে সমরেতে হুইবেক জয় ॥ অৰ্জুন বলেন রাজা না করিব। ভয় । পূর্বে অরণ্যের কথা স্মর মহাশয় ॥ কাম্যবনে ছিলাম আমরা সবে যবে । দুর্ববাসারে পাঠাইল পাপিষ্ঠ কৌরবে ॥ র্তার সঙ্গে শিষ্য ষাটি সহস্ৰ আইল । নিশাযোগে আসি মুনি পারণ মাগিল ॥ অট্টহাসাং মহাভীমাং সাধকগভীষ্টদায়িণীম্। মহাভাতর | হইলাম ব্যস্ত সবে, না দেখি উপায়T ব্যাকুল দ্রুপদ-স্থত স্মরে যত্নরায় ॥ ব্যস্ত হয়ে বনমালী চড়ি গরুড়েতে । কাম্যবনে আইলেন পাণ্ডবে রাথিতে ॥ ক্ষুধায় ব্যাকুল যেন মাগেন ভোজন । দ্রৌপদী বলিল কোথা পাব জনাৰ্দ্দন ॥ দশ দণ্ড রাত্রি পরে করিনু ভোজন। তার পর আইল দুৰ্ব্বাস তপোধন। আমা সব ভাগ্যে তুমি ক্ষুধায় আকুল। নিশ্চয় মজিল আজি পাণ্ডবের কুল ৷ শ্ৰীহরি বলেন তুমি দেখ পাকস্থলী । ক্ষুধায় অন্তর মম যাইতেছে জ্বলি ॥ তবে কৃষ্ণ পাকস্থলী মধ্যে নিরীক্ষিয় । কণ মাত্র অন্ন শাক, আসিল লইয়৷ ৷ পদ্মহস্তে অপর্ণ করিল যাজ্ঞসেনী । খাইলেন মহানন্দে গোবিন্দ আপনি ॥ তৃণ্ডোস্মি বলিয়া ছাড়িলেন যে উদগার। তাহাতে হইল তৃপ্ত সকল সংসার ॥ সন্ধ্যা হেতু গিয়াছিল মহ তপোধন । উদর পূরিয়া উঠে উদগারে তখন ॥ ভয় লজ্জা উপজিল পলাইল সবে । এইরূপে সদা রক্ষা করেন পাণ্ডবে ॥ সেই কৃষ্ণ এখনও আমার সারথি । ! অবশ্য হইবে জয় শুন নরপতি ॥ অৰ্জ্জুন বচনে রাজা প্রবোধ পাইয় । বিভাবরা বঞ্চিলেন ভ্রাতৃগণ লৈয় ॥ পরদিন প্রভাতে মিলিল দুই দল । নানা বাদ্য বাজে বহুমতি টলমল ৷ করিল গরুড় বৃহ রাজা কুরুবর । অগ্রেতে রছিল ভীষ্ম সমরে তৎপর। দ্রোণাচাৰ্য্য কৃতবৰ্ম্ম চঞ্চু নিরমিল । দুঃশাসন শল্য দুই পক্ষতি হইল ॥ অশ্বথাম কৃপাচাৰ্য্য দুই বীরবর। বক্ষদেশ রক্ষা হেতু হাতে ধনুঃশর ॥ তুরিশ্রব নিবসিল বীর ভগদত্ত । পুচ্ছদেশে রহিলেন বীর জয়দ্ৰথ ॥