পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৫৮২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৫৭৬ । হস্তাভ্যাং ধারয়ন্তী জলদনলশিখা সন্নিভং— [মহাভারত। ধনুৰ্ব্বাণ ল’য়ে করে অস্ত্র বরিষণ । তবে ভীষ্ম মহাবীর অন্য ধনু লৈয়া । সৰ্ব্ব শর নিবারিল অর্জুন-নন্দন ॥ | ཝiཤ বৃষ্টি করিলেন আকাশ ছাইয়া ॥ দোহে দোহা অস্ত্র বিন্ধে করি প্রাণপণ শূন্যমাৰ্গ রুদ্ধ হয় না চলে বাতাস । দোহাকার অস্ত্র দোহে করেন বারণ ॥ পরস্পর যুদ্ধ করে যত যোদ্ধাগণ । , পড়িল যতেক সৈন্য কে করে গণন ॥ মুষল মুদগর শেল ভুষণ্ডী তোমর। চক্র শূল শক্তি জাঠি বর্ষে নিরন্তর ॥ শুাবণ ভদ্রেতে যথা জল বর্ষে ধারে । সেই মত বীরগণ নানা অস্ত্র মারে ॥ শ্ৰীহরি সারথি রথে পার্থ ধনুৰ্দ্ধর । ভীষ্মের উপরে মারিলেন তীক্ষ শর। শরে শর নিবারিয়া গঙ্গার নন্দন । অৰ্জ্জুনে চাহিয়া বীর বলেন বচন ॥ পাচ দিন যুদ্ধ করি সবে গেল ঘর । আজি হইবেক যুদ্ধ মহাভয়ঙ্কর ॥ ইহা জানি অৰ্জ্জুন সমরে দেহ মন । বুঝিব কিমতে আজি রাখ সৈন্যগণ ॥ এত বলি ভীষ্ম বাণ করিল সন্ধান । অর্জন উপরে মারে চোখ চোখ বাণ ॥ বাণে নিবারেণ তাহ পার্থ ধনুৰ্দ্ধর । আশ্চৰ্য্য মানিল দেখি দেব দৈত্য নর ॥ দেখি ভীষ্ম পঞ্চ বাণ মারে অতি রোষে । মূৰ্ত্তিমান হয়ে বাণ শূন্যপথে আসে ॥ দেখি পার্থ দুই বাণ পূরিয়া সন্ধান । অৰ্দ্ধপথে কাটিয়া করেন খান খান ॥ দেখি মহা কোপান্বিত গঙ্গার নন্দন । আকাশ ছাইয়া বাণ করে বরিষণ ॥ শ্ৰীকৃষ্ণ সারথি আর পার্থ ধনুৰ্দ্ধর । বাণে বাণে দোহাকারে করিল জর্জর ॥ মহাকোপে পার্থ এড়িলেন অস্ত্ৰগণ । কাটিলেন সারথি রথির শরাসন। আট বাণে মারেন রথের চারি হয় । আলী বাণে বিন্ধিলেন গঙ্গার তনয় ॥ লক্ষ বাণ মারিলেন সৈন্যের উপরে । হয় গজ রথীরে পাঠান যমঘরে ॥ বাণে অন্ধকার হৈল রবির প্রকাশ ॥ লক্ষ লক্ষ সেনা মারি করিল সংহার । শত শত গজ মারে কত আসোয়ার ॥ | হেনমতে উভয়ে হইল যত রণ । সকল না লেখা গেল বাহুল্য কারণ ॥ | মহাকোপে পার্থ পুনঃ করিয়া সন্ধান । ! ধনুখান ভীষ্মের করিল খান খান ॥ সারথির মাথা কাটিলেন অশ্ব চারি। ধ্বজ রথ কাটিলেন বিক্রমে কেশরী ॥ দেখি গঙ্গাপুত্র বড় লাজ পায় মনে । আর রথে চড়ি ধনু লইল তখনে ॥ ভীষ্ম বলে শুন বাক্য কৃষ্ণ মহাশয় । করিল অদ্ভুত রণ কুন্তীর তনয় ॥ এবে মম পরাক্রম দেখ গদাধর । সাবধানে বৈস কৃষ্ণ রথের উপর ॥ অৰ্জুনেরে রাখ আর রাথ সেনাগণ । বড়ই দুরন্ত অস্ত্র নাশে ত্রিভুবন ॥ এতেক বলিয়া ভীষ্ম নিল মহা-শর । নারায়ণ নাম তার খ্যাত চরাচর ॥ সেই শর অভিষেক গাঙ্গেয় করিল। মন্ত্রপূত করিয়া ধনুকে বসাইল ॥ । বিষ্ণুতেজ ধরে অস্ত্র বিষ্ণু অবতার। পাণ্ডবের অস্ত্রধারী করিতে সংহার ॥ সসৈন্য পাণ্ডবগণে যত ধনুৰ্দ্ধর । সবারে সংহার করি লহ যমঘর ॥ এতেক বলিয়া বীর ধনুক টানিল । আকর্ণ পূরিয়া বাণ সঘনে ছাড়িল ॥ বাণ হৈতে বিষ্ণুতেজ হইল প্রকাশ । যেন লক্ষ রবি আসি ছাইল আকাশ ॥ দেখি সব দেবগণ ভাবিতে লাগিল । সসৈন্য পাণ্ডব বুঝি সংহার হইল । ভূমিকম্প হইল নড়িল চলাচল। ৰাস্তুকি নাগের ফণা করে টলমল ॥