পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৬০৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৫৯৮ ভৈরবীর ধ্যান—উদ্যস্তামুসহস্ৰকাস্তিমরুণক্ষেীমাং শিরোমালিকাং[ মহাভারত । কৃষ্ণ বলিলেন শুন ধৰ্ম্মের নন্দন । ভীমে সেনাপতি করি তুমি কর রণ ॥ মহাযোদ্ধা ভীমসেন হবে সেনাপতি । সমরে অজয় শক্তি অকাতর মতি ॥ এত শুনি যুধিষ্ঠির আনন্দিত মনে । অভিষেক ভীমেরে করেন সেইক্ষণে ॥ ভীমে সেনাপতি করি ধৰ্ম্মের নন্দন । হরষিত হইলেন সব যোদ্ধাগণ ॥ বাদ্য-কোলাহলে কর্ণে কিছুই না শুনি । জয় জয় শব্দ করে যতেক বাহিনী ॥ বাজিল দুন্দুভি শঙ্খ অতি স্থললিত । বীণা বঁাশী বাজে আর স্বমধুর গীত ॥ ভীম বলে মহারাজ শুনহ বচন । কালি ধৃতরাষ্ট্রপুত্রে করিব নিধন ॥ এত শুনি হরষিত ধৰ্ম্মের নন্দন । মহানাদে গর্জন করিল সেনাগণ ॥ সৈন্য-কোলাহলে যেন সিন্ধু উথলিল । অশ্ব গজ গর্জনে শ্রবণ রুদ্ধ হৈল ॥ পাঞ্চজন্য শঙ্খ কৃষ্ণ বাজান আপনে । পৃথিবীর যত বাদ্য করে আচ্ছাদনে ॥ হৃষ্টচিত্তে সৰ্ব্বজন বঞ্চিল রজনী । প্রভাতে উঠিয় সৈন্যে বলেন ফান্তুনি ॥ রাজারে রথিবে সবে করিয়া যতন । কোনমতে ধরিতে না পারে যেন দ্ৰোণ ॥ ভীষ্ম ও ছর্য্যোধনের কথোপকথন । হেথায় প্রভাতকালে রাজ দুর্য্যোধন । দ্রোণে অগ্রে করি রণে আইল তখন ॥ রথ ছাড়ি গেল বীর ভীষ্মের সদন । ভীষ্মেরে প্রণাম করে রাজা দুর্য্যোধন ॥ শরশয্যা শয়নে আছেন মহাবীরে । দুৰ্য্যোধন কহিতে লাগিল ধীরে ধীরে ॥ আজ্ঞা কর পিতামহ প্রসন্নবদনে । সমর কৃরিতে যাই পাণ্ডুপুত্ৰ সনে ॥ সেনাপতি সমরেতে করিলাম গুরু T কি ভয় আশ্রয় যার হেন কল্পতরু ॥ শুনি দুৰ্য্যোধন বাক্য কুরুবংশপতি । T দুৰ্য্যোধনে বুঝাইল মধুর ভারতী । আমি যাহা কহি তাহ শুন দুৰ্য্যোধন। কদাচিত না লঙিঘবে আমার বচন ॥ সকল মঙ্গল হবে পৌরুষ অপার । পৃথিবীর মধ্যে যশ রহিবে তোমার ॥ তোমা সবা কার ভদ্র চিন্তি অনুক্ষণ । এই হেতু তোমারে যে বলি দুর্য্যোধন ॥ আমার বচন তুমি না করিও আন । কি কারণে ক্ষয় কর কৌরব-সন্তান ॥ সৈন্য অপচয় মাত্র হবে ধন শেষ । প্রজার পরম পীড়া নষ্ট হবে দেশ ॥ যুধিষ্ঠির রাজা দেখ ধৰ্ম্ম অবতার। তার সহ প্রীতিতে করহ ব্যবহার ॥ রাজ্য ধন কিছু তারে দেহ গিয়া তুমি । যুধিষ্ঠিরে সম্মত করিয়া দিব আমি ॥ আমার বচন কভু না কর অন্যথা । ংশ রক্ষা হেতু তোমা কহি হেন কথা । নিরর্থক জ্ঞাতিগণে করিবে সংহার । আপনি না বুঝ কেন করিয়া বিচার ॥ বুদ্ধির সাগর তুমি বলে মহাবল । সসাগর। পৃথিবী তোমার করতল । কহ আমি যুধিষ্ঠিরে আনি এই ক্ষণ । মম বাক্য না লঙিঘবে ধৰ্ম্মের নন্দন ॥ ভীম ধনঞ্জয় দেখ মহাধনুৰ্দ্ধর । তার সহ কোন জন করিবে সমর ॥ পাণ্ডবের দলে কৃষ্ণ আছেন আপনে । র্তার সহ বিরোধে জিনিবে কোন জনে ॥ অতএব তার সহ কে করিবে রণ । ংশরক্ষা হেতু কহি শুন দুর্য্যোধন ॥ প্রত্যয় না হয় যদি আমার বচনে । আপনি জিজ্ঞাসা কর দ্ৰোণাচার্য্য স্থানে ॥ দ্রোণাচাৰ্য্য বলে তুমি যে আজ্ঞা করিলে । এমন করিলে, থাকে সকলে কুশলে । বেদতুল্য জানি আমি তোমার বচন । যতেক কহিলা তুমি সবার কারণ ॥