পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৬৩০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


\e:Rణ কপাল কর্তৃকাহস্তাং বামদক্ষিণযোগতঃ । ত্ৰিদশের নাথ কৃষ্ণ সহায় যাহার । হেনজন নাহি পায় কদাচ অপার ॥ অবশ্য হইবে জয়দ্রথের নিধন । কহিলাম জান মম স্বরূপ বচন ॥ এত শুনি দ্রোণাচাৰ্য্য হরষিত মন । যতেক কহিলা তুমি বেদের বচন ॥ দ্রোণপৰ্ব্ব স্থধারস অপূৰ্ব্ব কথন । আয়ুৰ্যশ পুণ্য বাড়ে শুনে যেই জন ॥ ব্যাস বিরচিত হয় অপূর্ব ভারত। কাশীরাম দাস কহে পাঁচালীর মত-॥ জয়দ্ৰথবধের বৃত্তান্ত । মুনি বলে শুন পরীক্ষিতের নন্দন । জয়দ্রথ-বধ কথা অপূৰ্ব্ব কথন । অৰ্দ্ধগত নিশা নিদ্রীগত বীরগণ । অতি চিন্তান্বিত কৃষ্ণ অর্জন কারণ ॥ অর্জুনে কহেন কৃষ্ণ কমললোচন । না বুঝিয়া প্রতিজ্ঞ করিলা ক্রোধমন ॥ জয়দ্ৰথ হেতু সবে করি প্রাণপণ । করিবে দারুণ যুদ্ধ না যায় খণ্ডন ॥ জয়দ্ৰথ বীরে তবে মারিবা কেমনে । এই যে ভাবনা মম হয় অনুক্ষণে ॥ অৰ্জ্জুন বলেন কৃষ্ণ কর অবগতি । - কারে ভয়, তুমি যার থাকিবে সারথি ॥ উৎপত্তি প্রলয় যার কটাক্ষেতে হয় । হেন জন সহায়ে তাহার কারে ভয় ॥ অৰ্জ্জুন বিনয় শুনি দেব জগন্নাথ । উঠিলেন কৃষ্ণ ধরি অৰ্জ্জুনের হাত ॥ কপিধ্বজ রথে দেহে করি আরোহণ । সঙ্গোপনে যান যথা হরের ভবন ॥ পাৰ্ব্বতীর সনে একাসনে ভূতনাথ । দেখি কৃষ্ণাৰ্জ্জুন করিলেন প্ৰণিপাত ॥ যোড়হাতে শ্ৰীনাথ কহেন স্তুতি বাণী । দেবদেব মহাদেব দেব শূলপাণি ॥ সমুদ্রমথনে ঘোর উঠিল গরল । সে সৰ্ব্ব সংসার দহে হইয়৷ অনল ॥ L यशंख्ठाब्रड ॥ স্বষ্টিনাশ দেখি দেবগণ স্তুতি করে। সদয় হইয়া দেবদেব দয়া করে ॥ গণ্ডুষে করিয়া পান রাখিলে জগত । ঘুষিতে রহিল যশ জগতে মহত ॥ গোবিন্দের স্তুতি শুনি দেব গদাধর । | ঈষৎ হাসিয়া তবে করেন উত্তর ॥ আমার বিধাতা তুমি বিশ্বের পালক । যে না জানে সেই বলে নন্দের বালক ॥ ভুভার নাশিতে তুমি অবতার হয়ে । করিছ বিহার কত ধনঞ্জয়ে ল’য়ে ॥ যে হয় তোমার আজ্ঞা করিব পালন । করহ বিধান অজ্ঞ দেব নারায়ণ ॥ গোবিন্দ বলেন দেব কর অবধান । কৌরব পাণ্ডব যুদ্ধ নহে সমাধান ॥ অন্যায় সমর করি অভিমনু্য বীরে । বেড়িয়া কৌরবগণ বধে বালকেরে । প্রতিজ্ঞা করিল পার্থ বিপক্ষ নাশিতে । না পারিলে নিজদেহ ত্যজিবে অগ্নিতে ॥ এই হেতু নিবেদি যে শুন গঙ্গাধর । জয়দ্ৰথে জিনি পার্থ জিনিবে সমর ॥ হর বলিলেন হরি শুন অবধানে । অর্জন বিজয়ী হবে জিনি শত্ৰগণে ॥ অর্জনের সহায় হইব আমি রণে । রণে গিয়া নিধন করিব কুরুগণে ॥ অনন্তর প্রণমিয়া দেবীর চরণ । করেন অর্জন কৃষ্ণ অনেক স্তবন ॥ শঙ্করী বলেন শুন কৃষ্ণ ধনঞ্জয় । মম বরে কর গিয়া সব শত্র ক্ষয় ॥ পাইয়া হরের বর কৃষ্ণ ধনঞ্জয় । ধনলাভে দরিদ্র যেমন তুষ্ট হয় । সেই মত মহানন্দে প্রফুল্ল অন্তরে । প্রণাম করেন দোহে শঙ্করী শঙ্করে ॥ বিদায় হইয়া, গিয়া আপন শিবিরে । করিলে শয়ন সবার অগোচরে ॥ প্রভাতে উঠিয়া সবে করি স্নানদান । স্থলজ্জ হইয়া যুদ্ধে করিল প্রয়াণ ।