পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৬৫৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


\t e রক্তোৎপলদলাকার স্বকুমার করাযুজাং । [ মহাভারত। মগধাধিপতি তার দণ্ডধর নাম । হস্তী অশ্ব লইয়া আইল অনুপম ॥ মহাবলি দগুধর করিলেন রণ । সেইক্ষণ অর্জন কাটিল হস্তীগণ, বজাঘাত পড়ে যেন পৰ্ব্বত উপর । অৰ্জ্জুনের বাণে গজ পড়িল বিস্তর ॥ অৰ্দ্ধচন্দ্র বাণে তারে করেন সংহার । হস্তী হৈতে ভূমিতে পড়িল দণ্ডধর ॥ অনিবার মহাযুদ্ধ করয়ে অর্জুন । যুগান্ত প্রলয় যেন সংগ্রামে নিপুণ ॥ পাণ্ডবের সেনাপতি আর বীরবর। যুঝিতে লাগিল সবে নির্ভয় অম্ভর ॥ অশ্বথামা বীর করে সৈন্তের সংহার। ক্রোধ করি আইলেন অর্জন দুৰ্ব্বার ॥ দুই দলে মহাযুদ্ধ বাণ বরিষণ । কর্ণ সহ কুরুবল আইল তখন ॥ মহাভারতের কথা অমৃত সমান । কাশীরাম দাস কহে শুনে পুণ্যবান ॥ কর্ণের সহিত যুদ্ধে যুধিষ্ঠিরের পরাভব । কর্ণের বচন শুনি শল্য বলে দাপে । বিস্তর কহিলে তুমি অতুল প্রতাপে ॥ এই দেখ রথে আইল সৰ্ব্ব সৈন্যগণ । কাহার সামর্থ্য করে পার্থে নিবারণ ॥ ছের দেখ ভীমসেন পবনকুমার । সহদেব বীর দেখ ভুবনের লার ॥ মহারাজা যুধিষ্ঠির দেখ বিদ্যমান । ধৃষ্টদ্যুম্ন সেনাপতি অগ্নির সমান ॥ দ্রৌপদীর পঞ্চপুত্র কি দিব তুলনা । ইহাদের অগ্রসর হবে কোন জন ॥ শিখণ্ডী সাত্যকি দেখ রাজা আগুয়ান । চলহ সমরে আজি হ’য়ে সাবধান u । সিদ্ধ হৈল মনোরথ দেখ ধনঞ্জয় । সংগ্রামে করহ আজি অৰ্জ্জুনের ক্ষয় ॥ এই কথা কহিতে মিশিল দুই দহু। মহাযুদ্ধ বাধিল হইল কোলাহল ॥ ক্রোধ করি কর্ণ বীর প্রবেশিল রণে । সিংহ যেন চলে যায় কুতূহল মনে । প্রবেশিয়া কৰ্ণ বীর করে মহারণ । বাছিয়া বাছিয়া মারে বড় বীরগণ ॥ সংগ্রামেতে প্রবেশিল কর্ণের কুমার। দশ বাণে তীম তারে করিল সংহার ॥ সাক্ষাছত দেখিয়া কৰ্ণ আপন পাসরে । পুত্রের কাটিল মাথা বীর বৃকোদরে ॥ কর্ণপুত্রে নাশিয়া কৃপের কাটে ধনু । তিন বাণে বিন্ধিলেন দুঃশাসন-তনু ॥ ছয় বাণে শকুনিরে করিল বিকল । রথ কাটি বিন্ধেন উলুক মহাবল ॥ থাক থাক স্বষেণ কাটিব তব শির। এত বলি বাণ মারে ভীম মহাবীর ॥ তিন বাণে বিন্ধিলেন ভীমবীর তাকে । সুষেণ স্বতীক্ষ অস্ত্র মারে ঝণকে ঝর্ণকে । নকুল সহিত যুদ্ধ বাড়িল বহুল । ঃশাসন সাত্যকিতে সংগ্রাম তুমুল ॥ অতি ক্রোধে কণবীর রণে প্রবেশিল । ইন্দ্র দেবরাজ যেন সমরে আইল ৷ একে কৰ্ণ মহাবীর পেয়ে অপমান । নিজ পুত্র পড়িল আপনি বিদ্যমান ॥ যুধিষ্ঠির বধে যুক্তি কৈল কর্ণবীর । ক্রোধে পরিপূর্ণ কণ কঁপিয়ে শরীর ॥ একেবারে যুড়ি মারে শত শত বাণ । বিন্ধি পাণ্ডবের সৈন্য কৈল খান খান ৷ মহাধনুৰ্দ্ধর বীর বরিষয়ে শর। বিচিত্র বিক্রম দেখি কর্ণ ধনুৰ্দ্ধর ॥ মহারথিগণে বিন্ধে নিবারিতে নারে । একেশ্বর কর্ণ যুঝে পাণ্ডব সমরে ॥ গজ বাজী ধ্বজ ছত্র রধ সারি সারি । অযুত অযুত পাড়ে লিখিতে না পারি। মুণ্ড কাটি পাড়ে কণর কুণ্ডল সহিত । অশ্ব রথ কাটিয়া যে পাড়িল ত্বরিত ॥ যুধিষ্ঠিরে রাখিতে ধাইল বহু দল। দৃষ্টিমাত্র কাটি পাড়ে কর্ণ মহাবল । ཕ─ས།──བཅསམ་བཟང་བ་བཟླ༣.