পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৬৬১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কৰ্ণপৰ্ব্ব । ] দলগুকগণ সঙ্গে সংগ্রাম স্থঙ্কর। ললিতে অর্জন নাছি পান অবসর ॥ গ্রীকৃষ্ণ বলেন শুন ধনঞ্জয় বীর । ১লক্ষ সব সংহার করিল কর্ণ মহাবীর ॥ পরশুরামের অস্ত্র করিল সন্ধান । লক্ষ কোট বাণ মারে দেখ বিদ্যমান ॥ যুগ্রান্তের যম যেন কর্ণবীর ধায় । হের দেখ সৈন্য সব সন্ত্রমে পলায়কৌরবের সৈন্য সব করে সিংহনাদ । পাণ্ডবের সৈন্য করে বহুল বিষাদ ॥ প্রাণ উপেক্ষিয় যুদ্ধ করে বৃকোদর। যুধিষ্ঠিরে নাহি দেখি সংগ্রাম ভিতর. শুনিয়া কহেন ধনঞ্জয় গদাধরে । সত্বরে চালাও রথ দেখি যুধিষ্ঠিরে ॥ সংসপ্তকগণ মম আছে অবশিষ্ট । শীঘ্ৰগতি চল প্ৰভু দেখি মোর জ্যেষ্ঠ ॥ অৰ্জুন বচনে কৃষ্ণ দেন অনুমতি । যুধিষ্ঠির স্থানে ত্বর যান শীঘ্ৰগতি ॥ শঙ্খনাদ করিয়া চলেন ধনঞ্জয় । অৰ্জুনে রোধিল অশ্বথামা মহাশয় ॥ দিব্য অস্ত্র দুই বীর করিল সন্ধান । দেবাম্বর যুদ্ধ যেন নাহি অবসান ॥ দ্রোণপুত্রে জিনিয়া অৰ্জ্জুন মহাবীর । ভামের পশ্চাতে আইলেন অতি ধীর ॥ জিজ্ঞাসেন ভীমসেনে রাজার বৃত্তান্ত । যুদ্ধ কথা ভীম কহিল আদ্যন্ত ॥ ৭ শরে বিহ্বল হইল কলেবর । গলেন বিষাদে রাজা শিবির ভিতর ॥ "বে বাচিলেন ভাই ধৰ্ম্ম নরপতি । বলি নিশ্বাস ছাড়িল মহামতি ॥ নিয়া বিকল কৃষ্ণ অর্জন দুর্জয় । ধরে বলেন তবে বীর-ধনঞ্জয় ॥ * কৰ্ণ দ্রোণপুত্র রাজা দুৰ্য্যোধন । সুদের সঙ্গে যুদ্ধ করিব এখন ॥ হেথ যুদ্ধ করি তুমি যাও তথা is wo a "া এস নৃপবর যথা ॥ ত্ৰিবলিবলয়াযুক্ত মধ্যদেশ স্থশোভিতাং ॥ vჯ6tv9 ভীমসেন বলিলেন আমি আছি রণে । যুদ্ধ হইতেছে মম কুরুসৈন্য সনে ॥ হেনকালে এড়ি যাই যদি আমি রণ। নিন্দিবে পলাল বলি যত কুরুগণ ॥ যুদ্ধ ছাড়িবার এই নহুেত সময় । দেখিয়া আইস যুধিষ্ঠির মহাশয় ॥ ভীমেরে রাখিয়া তবে সংগ্রাম ভিতরে । কৃষ্ণ পার্থ আইলেন দেখিতে রাজারে ॥ মহাভারতের কথা অমৃত সমান । কাশীরাম দাস কহে শুনে পুণ্যবান ॥ যুধিষ্ঠিরের নিকট অৰ্জ্জুনের কর্ণবধে প্রতিজ্ঞ । গৃহমধ্যে শুইয়া আছেন যুধিষ্ঠির । চরণ বন্দেন গিয়া ধনঞ্জয় বীর ॥ উল্লাসেতে উঠি বসিলেন যুধিষ্ঠির । প্রত্যয় জন্মিল পড়িয়াছে কর্ণবীর ॥ মহারাজ যুধিষ্ঠির চিন্তিলেন মনে । কৰ্ণ মোরে মহাদুঃখ দিল মহারণে ॥ হরষিতে হেথায় আইল দুইজন । বিনা কর্ণে মারি সখে হেথা আগমন ॥ এত চিন্তি যুধিষ্ঠির নিবারিল দুঃখ । হরিষে দেখেন কৃষ্ণ অৰ্জ্জুনের মুখ ॥ যুধিষ্ঠির জিজ্ঞাসা করেন বার বার। কহ ভাই অর্জন যুদ্ধের সমাচার ॥ দেবাস্থরজয়ী বীর সূর্ঘ্যের নন্দন । সভামধ্যে যারে পূজে মানি দুৰ্য্যোধন ॥ যাহারে পরশুরাম দিল.দিব্য ধনু । অভেদ্য কবচ নfর অfবরিল তনু ॥ য়ার ভুজবীৰ্য্যে দগ্ধ হই রাত্রদিনে । ত্রয়োদশ বৎসর আছিলুvসবে বনে ॥ মন স্থির নহে মম ন! ঘচে তরাস । নিরন্তর দেখি কর্ণ অাসে মস পাশ । সেই কর্ণে আজি বুঝি মরিলে সমরে } আনন্দ পুরিল আজি আমার অন্তরে ॥ মহাবীর কর্ণে তুমি কেমনে মারিলা । মহাসিন্ধু হৈতে তুমি কেমনে তরিলা ॥