পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৬৮৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


সৰ্ব্বমন্ত্রময়ী দেবীং সৰ্ব্বসৌভাগ্য স্বন্দরীং । T৬৭ত tx! J বা সঞ্জয়-বাক্য অন্ধ নরপতি । কেতে ব্যাকুল হ’য়ে ছন্ন হৈল মতি ॥ পুত্র কোথা গেল রাজা দুৰ্য্যোধন। iন প্রাণ আছে মম না জানি কারণ ॥ নে জন্মে যত পাপ করিয়াছি আমি । কারণে হইলাম শোক-সিন্ধুগামী ॥ দ্যোধন বলি ডাকে কোথা হুঃশাসন । rভু কৰ্ণ বলি ডাকে কভু ডাকে দ্ৰোণ ॥ ত্র পৌত্র বন্ধু আর অমাত্য সকল । ড়িল সকল বীর রণে মহাবল ॥ তেক ডাকিব আর কত পড়ে মনে । যুদ্রের ঢেউ যেন বহে সমীরণে ॥ একাদশ অক্ষৌহিণী পতি দুৰ্য্যোধন । চাহার এ গতি হৈল দৈবের কারণ ॥ ক্তরাষ্ট্র শোকাকুল পড়িয়া ধরণী । এমত করিবেশবিধি মনে নাহি গণি ॥ বৃদ্ধ অন্ধ পিতা মাতা না করিল মনে । নষ্ঠুর হইয়া গেল রাজা দুর্য্যোধনে ॥ পুত্রহীন বৃদ্ধকালে জীবনে মরণ । সহায় সম্পত্তি নাছি কি করি এখন ॥ অনাথ করিয়া গেল যত অবলারে । অমাত্য বান্ধব পুত্র গেল স্বরপুরে ॥ পক্ষহীন পক্ষী যেন রহিল পড়িয়া । জলহীন মীন যেন মরয়ে ঘুরিয়া ॥ পূণ্যহীন দেহ যেন ফলহীন বৃক্ষ । বিষহীন সর্প যেন ধনহান লোক ॥ ইস্ত হৈতে রত্ন যেন গেল ছড়াইয়া । প্রাণহীন দেহ যেন রহিল পড়িয় ॥ রাজ্যভোগ তৃণ যেন ছাড়ি গেল তুমি । কি গতি হইবে সদ্য এই চিন্তি আমি ॥ কেন না লইলে মোরে সঙ্গেতে করিয়া । ইব পিতা মাতা কেন গেলে বিসর্জিয় ॥ বধুগণ অনাথিনী হারাইয়া কুল । কেমনে ধরিবে প্রাণ হইয়া আকুল ৷ ইসাইরজয়ী যেই গঙ্গার নন্দন । "ত্ন হৈল তাহার নিধন ॥ • * I've wo به ح---عمیدس ভগদত্ত বীর আদি যত যোদ্ধাগণ । | কর্ণ মহাবীর যেই সংগ্রামে নিপুণ ॥ তাহারে মারিল পার্থ সংগ্রামে দুৰ্জ্জয় । শত পুত্র মারে মোর পবন-তনয় ॥ যার যত পরাক্রম করিল সকল । ভাগ্যহীন হেতু তাহ হইল বিফল ॥ কতেক কহিব দুঃখ কহনে না যায় । ভাবিতে চিন্তিতে মম হৃদয় শুকায় ॥ ভীমের বচন আর সহিতে না পারি । শোকেতে জর্জর হৈল গান্ধারী-কুমারী ॥ শুনহ সঞ্জয় মম এই দৃঢ় আশ । অনলে পড়িব নহে যাব বনবাস ॥ সঞ্জয় বলেন রাজা শুনহ বচন । জয় পরাজয় দেখ বিধির ঘটন ॥ ধৃতরাষ্ট্র সঞ্জয় সংবাদ । সঞ্জয় বলেন শুন অন্ধ নরপতি । কালবশে দুর্য্যোধন পাইল দুৰ্গতি ॥ ভীষ্ম দ্ৰোণ কণ আদি সমরে দুৰ্জ্জয় । একে একে বিনাশিল বার ধনঞ্জয় ॥ তাহার সহায় কৃষ্ণ কমললোচন । বাহার সর্বদা বশ এ তিন ভুবন ॥ কতেক মন্ত্রণ। কৈল পাণ্ডব কারণ। জতুগৃহ করলেক বধিতে জীবন ॥ তথা হৈতে নিস্থgদশে আলি পুনর্ববার। রাজসূয় যজ্ঞ কৈল পৃথিবীর সার ॥ সম্পদ দেখিয়া তার দুঃখ হৈল মনে । পাশা খেলাইল পুনঃ হিংসার কারণে ॥ পাশায় হারিয়া পুণঃ গল বনবাস । ধন ছিল রাজ্য ছিল সকলি নিরাশ । কাম্যবনে বসতি করিল কত দিন । দুঃখের নাহক সমঃ হয়ে ধনহীন ॥ কতদিনে দুৰ্য্যোধন গেল সহ বনে । ঘোষযাত্রা করি গেল প্রভাসের মানে ॥ গন্ধৰ্বেবর সনে তথা হইল সমর । গন্ধৰ্ব্বে বান্ধিয়া নিল স্বর্গের উপর ॥