পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৬৮৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গদাপর্ব । ] বিস্তস্ত দক্ষিণং হস্তং তিষ্ঠন্তং পরিচিন্তয়ে ॥ ՆԳշ দল রাজারে ব্রহ্মরাক্ষস করিয়া । বশিষ্ঠের আশ্রম ভাঙ্গিয়া স্রোতজলে । মেঠের পুত্র মুনি দেখাইল নিয়া ॥ ক্তিরে ধরিয়া রাজা করিল ভক্ষণ । মধ্যে আছিলেন শক্তি-র নন্দন ॥ শের হইলেন বংশেব রক্ষণ । rর পুত্র হইলেন ব্যাস তপোধন । ই বিলম্বাদে দোহে রাত্রি দিব আছে। শিষ্ঠ করেন স্থিতি সরস্বতী কাছে ॥ রকুলে বশিষ্ঠের আশ্রম হুন্দর। থা রছি তপস্যা করেন মুনিবর ॥ শষ্ঠের সঙ্গে দ্বন্দ্ব সতত করিতে । বশ্বামিত্র রহিলেন পশ্চিম কূলেতে ॥ কছুকাল উভয়ে থাকেন দুই পারে। শিষ্ঠের ইচ্ছা নাহি দ্বন্দ্ব করিবারে ॥ লহে আসক্ত বড় বিশ্বামিত্র মুনি । নরন্তর বশিষ্ঠের ছিদ্র অনুমানি ॥ গাধ সলিল বহে নাহি পারাপার । জনে দেখিতে পান আশ্রিম দোহার } শিষ্ঠের মনে নাহি কলহ বিবাদ । বিশ্বামিত্ৰ চাহে বশিষ্ঠের অপরাধ ॥ একদিন বিশ্বামিত্র অগ্ৰিমে বসিয়া । রস্বতী নদীরে ডাকিল অtশ্বাসিয়া ॥ বশ্বামিত্ৰ-ভয়ে ভীত সদা সরস্বতী । সাক্ষাৎ করিল গিয়া ধরিয়া আকৃতি ॥ বিশ্বামিত্র কহে শুন নদী সরস্বতী । শিষ্ঠে আমাতে দ্বন্দ্ব আছে পূর্বাপর। বিশেষ জানহ তুমি সব কথাস্তর ॥ বশিষ্ঠ আছেন যোগে বসিয়া আসনে । অন্তৰ্ব্বাহ জ্ঞান তার নাছিক কথনে ॥ তলে একাকার করি ভাসায়ে মুনিরে । অবিলম্বে বশিষ্ঠেরে আনহ এ পারে ॥ শুনি সরস্বতী ভয়ে করিল স্বীকার । আপনার স্থানে যান নদী সরস্বতী । নিশা মধ্যে জলপূর্ণ হইলেন অতি ॥ কি জানি শাপিতে পারে মুনি দ্বরাচার ॥ " ভাসাইয়া বশিষ্ঠে আনিল পরকুলে । বশিষ্ঠ আছেন ধ্যানে কিছু নাহি জ্ঞান। উপনীত করিলেন বিশ্বামিত্র স্থান ॥ দেখি বিশ্বামিত্র বড় আনন্দ হৈয়। সরস্বতী প্রতি কহে আশ্বাস করিয়া ॥ বশিষ্ঠেরে আপনি রাখহ এই খানে । খড়গ আনি গিয়া আমি ইহার নিধনে ॥ ভয়ে সরস্বতী বড় হইল ফঁপির । অঙ্গীকার করিল করিয়া যোড়কর ॥ বিশ্বামিত্র খড়গ আনিবারে গেল যদি । ভয়েতে ভাবিতে লাগিলেন পুণ্যনদী ॥ বড়ই দুৰ্ব্বার বিশ্বামিত্র মুনিরাজ । বশিষ্ঠেরে আনিয়া নছিল ভাল কাজ ॥ আপন আশ্রমে মুনি আছিল বসিয়া । এ পারে আনিমু আমি জলে ভাসাইয়া ॥ অামা হৈতে মুনিবর ত্যজিলেন প্রাণ । ব্রহ্মবধি হৈব আমি জানিমু বিধান ॥ ব্রহ্মবধ পাপ নাহি খণ্ডে কদাচন । এ অসৎ কৰ্ম্ম করিলাম কি কারণ । বিশ্বামিত্র শাপভয়ে হইয়৷ মাকুল । আপন কৰ্ম্মের দোষে হারানু ছকুল ৷ বিশ্বামিত্র যেবা করে শাপিয়া আমার । কৃপাবশে কোন দেব করিবে উদ্ধার ॥ ব্ৰহ্মহত্যা পাপভয়ে কম্পিত অন্তর। ! মুনিরে বঁাচাই আমি যা করে ঈশ্বর ॥ এত ভাবি বশিষ্ঠেরে পুনঃ ভাসাইয়া । নিজাশমে পুনর্বার স্থাপিল লইয়া ॥ মুনিরে রাখিয়া সরস্বতী লুকাইলা । খড়গ ল’য়ে বিশ্বামিত্র সে স্থানে আইলা ॥ দেখিল বশিষ্ঠ গেল আপন আশ্রমে । সরস্বতী নদী আর নাহি সেইখানে ॥ ক্রোধমন হয়ে বলে বিশ্বামিত্র মুনি । আমারে হেলন তুই করিলি পাপিনি ৷ ইহার উচিত ফল দিব তোর তরে । তোরে শাপ দিব কেহ খণ্ডাইতে নারে ॥