পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৭৪৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


নারদ বলেন ভূমি আমার আধার। সে কারণে গোবিন্দ মাগি যে পরিহার ॥ যদি বর দিব৷ এই দেহ নারায়ণ । তব গুণ গাই আমি যেন অমুক্ষণ ॥ এক নিবেদন দের শুনহ আমার । তোমার দুল্লভ নাম জগত নিস্তার ॥ ইহার মহিমা দেব কহিবা অামারে । শুনিয়া মনের ভ্রান্তি সব যাবে দূরে ॥ এত শুনি হাসিয়া কহেন নারায়ণ । সঞ্জীবনীপুরে তুমি করহ গমন ॥ মম মূৰ্ত্তি তথা আছে যম ধৰ্ম্মরাজ । ত্বরিতগমনে যাহ তাহার সমাজ ॥ নামের মহিমা তিনি করেন আমার । তাহা শ্রতমাত্র ভ্রম খণ্ডিবে তোমার ॥ এত শুনি আনন্দিত হ’য়ে তপোধন । প্ৰণমিয়া চলিলেন কৃতান্ত ভবন ॥ যমের বিচিত্র সভা না হয় বর্ণন । নিবসয়ে তথায় যতেক পুণ্যজন । চতুভুজ দিব্য মূৰ্ত্তি শু্যাম কলেবর । খঞ্জন গঞ্জন নেত্র স্বরঙ্গ অধর ॥ পীতবাস পরিধান রাজীবলোচন L শঙ্খ-চক্র-গদা-পদ্ম শ্ৰীবৎসলাঞ্ছন ॥ দেখিয়া বিস্ময় মানিলেন মুনিবর। প্রণাম করিয়া স্তুতি করেন বিস্তর ॥ স্তুতিবশে প্রসন্ন হইয়া মৃত্যুপতি । জিজ্ঞাসেন কি হেতু আইলা মহামতি ॥ নারদ বলেন শুন হেথা যে কারণ ৷ কহিব! আমাকে কৃষ্ণনাম নিরূপণ ॥ এত শুনি হাসিয়া বলেন মৃত্যুপতি । পুরীর পশ্চিমে মম যাহ মহামতি ॥ হরিনান মহিমা পাইবা সেইখানে । তবে সে তোমার ভ্রান্তি না খাকিবে মনে ॥ এত শুনি হাসিয়া গেলেন তপোধন । পুরীর পশ্চিমদিকে করিলা গমন ॥ দেখেন যমের পুরে পাপীর তাড়ন । কৃমিহ্রদ সারি সারি অদ্ভুত গঠন ॥ సారి=సె8 - Tনীলগ্রীবাস্থরক্ষাসং নাগহারাভিশোভিতৰ । 이S) সেখানে নারদ দেখিলেন ভয়ঙ্কর । উষ্ণজল বৃষ্টি কোথা হয় নিরস্তর ॥ কণ্টকের বন কোথা বিপুল বিস্তার। তাহাতে পড়িয়া পাপী কাদে অনিবার ॥ কোনখানে করে পাশে পাপীরে বন্ধন । লক্ষ লক্ষ কোটি কোটি আছে পাপিগণ ॥ কোনখানে বিষ্ঠাকুণ্ডে ফেলে পাপিগণে । মস্তকে মুদগারাঘাত করে দূতগণে ॥ কোনখানে অস্ত্রবৃষ্টি হয় ঘনে ঘনে । অস্ত্রাঘাতে ব্যাকুল কান্দয়ে পাপিগণে ॥ এইরূপ প্রহারে ব্যাকুল পাপিজন । দেখিয়া বিস্ময় মানিলেন তপোধন ॥ গোবিন্দ মাধব হুরে রাম দামোদর। এত বলি কর্ণে হাত দিল মুনিবর ॥ । সেই শব্দ যত যত পাতকী শুনিল । শ্ৰুতমাত্র সবাকার পাপমুক্ত হৈল ॥ প্রেতমুৰ্ত্তি ত্যজিয়া হইল দিব্যকায় । দিব্য বিমানেতে চড়ি স্বৰ্গধামে যায় ॥ অশেষ বিশেষ স্তুতি করে মুনিবরে । অসংখ্য অৰ্ব্ব দ পাপী চলিল সত্বরে ॥ দেখিয়া বিস্ময় মানিলেন তপোধন । অপার মহিমা হরিনামের কথন ॥ জয় জয় নামরূপ জয় জগদীশ । অপার মহিমা জয় জয় অজ ঈশ ॥ এইরূপে বহু স্তুতি করে তপোধন । আনন্দেতে যথাস্থানে করেন গমন ॥ , ভীষ্ম বলিলেন পুনঃ শুনহ রাজন । উত্তর দ্বারের কথা কহিব এখন ॥ পঞ্চদশ যোজন সহস্র পরিসর । উত্তরে যমের দ্বার পরম কুন্দর ৷ স্থানে স্থানে উদ্যান বিচিত্র মনোহর । নানাবিধ পসর শোভিত থরে থর ॥ ঘৃত দধি দুগ্ধ ক্ষীর নানা উপহার। সুগন্ধি শীতল জল স্ববাসিত আর ॥ পথে পথে স্থানে স্থানে দেব দ্বিজগণ । সম্মুখ সমর করি মরে যত জন ॥