পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৭৪৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


“: డ যোগাসনে নিজ দেহ করিয়া দাহন । - উত্তর ছুয়ারে যায় সেই সব জন ॥ দিব্য ভোগবান হয় পরম আনন্দে । যম ধৰ্ম্মরাজে গিয়া ভূমি লুটি বৃন্দে ॥ সেইক্ষণে যম আজ্ঞা দেন দূতগণে । পত্নী সঙ্গে করি সদা থাকিয়া বিমানে ॥ তিন কোটি বৎসর দেবের পরিমাণে । অমৃতাদি নানা ভোগ করে দিনে-দিনে ॥ অনন্তর মহীতলে লভয়ে জনম । সেই নারী পতি মাত্র করয়ে সন্ত্ৰম ॥ মহাভারতের কথা অমৃত লহরী। শুনিলে অধৰ্ম্ম খণ্ডে পরলোক তরি ॥ কাশীরাম দাস কহে রচিয়া পয়ার ।* অবহেলে শুনে যেন সকল সংসার ॥ ভদ্রশীল ও ধন্থধ্বজের উপাখ্যান। ভীষ্মদেব বলিলেন শুন কুন্তীস্থত। যমের দক্ষিণ দ্বার বড়ই অদ্ভুত ॥ পূর্বে যাহা শুনিলাম দেবলের মুখে । সবাহিত হ’য়ে আমি বলিব তোমাকে ॥ ভদ্ৰেশীল নামে ঋষি অযোধ্যায় স্থিতি । সৰ্বশাস্ত্রে বিশারদ গুণে মহামতি ॥ যজন যাজন বেদ করি অধ্যয়ন । নানামতে আজ্জিল নানারূপ ধন ॥ ধনুধ্বজ নামে এক শ্বপচকুমারে । গোধন রক্ষণ হেতু রাখিল তাহারে ॥ পূৰ্ব্বেতে অবস্তী নামে ব্রাহ্মণ সে ছিল। ভ্ৰাতৃশাপে চণ্ডালের কুলেতে জম্মিল ॥ এত শুনি জিজ্ঞাসেন ধৰ্ম্মের নন্দন । দ্বিজ হ’য়ে চণ্ডাল হইল কি কারণ ॥ ভীষ্ম বলিলেন শুন ধৰ্ম্মের নন্দন । ইক্ষাকু বংশের গুরু শাস্তি তপোধন। शबखैौ यदखैौ ॐांब्र छूइंछि नन्नन । স্বধৰ্ম্ম অধৰ্ম্ম তারা করে ছুইজন ॥ . মহাপ্পর্শ্বশীল হৈল স্বৰন্তী কুমার। ছুরাত্মা অৰস্তী হৈল মহা পাপাচার ॥ | নিজ ধৰ্ম্ম ছাড়িয়া করিল কদাচার। চুরি হিংসা পাপ করে, হরে পরদার ॥ বহুমতে স্ববস্তী করিল নিবারণ। . না শুনিল ভ্রাতৃবাক্য পাপিষ্ঠ দুৰ্জ্জন ॥ ক্রুদ্ধ হয়ে স্থৰন্তী শাপিল সেইক্ষণ । না শুনিলে মম বাক্য করিলে হেলন ॥ এই পাপে জন্মান্তরে চণ্ডাল হইবে । | অনন্তরে যমদূত হইয়া জন্মিবে। ব্রাহ্মণ হইতে পুনঃ হইবে মোচন । এত শুনি অবস্তী হইল ক্রুদ্ধমন ॥ দণ্ডক কাননে প্রবেশিল সেইক্ষণ । তপস্বতা করিল তবে শাস্তির নন্দন ॥ অনাহারে আপনি ত্যজিল কলেবর । সেইত অবন্তী হৈল শ্বপচকুমার । ভদ্রশীল ব্রাহ্মণের হইল রাখাল । যতন পূর্বক রাখে গোধনের পাল ॥ তাহার পালনে গাভী ব্যাধি নাহি জানে । ভদ্রশীল ব্রাহ্মণে তুষিল নিজগুণে ॥ কতদিনে সপের দংশনে সে মরিল। শুনি ভদ্রশীল দ্বিজ শোকার্ত হইল ॥ পুত্ৰশোকে পিতা যেন করয়ে রোদন। সেইরূপ দ্বিজ বহু করিল শোচন ॥ খণ্ডন না যায় কভু মুনির উত্তর । সেই ধনুধ্বজ হৈল যমের কিঙ্কর । একদিন ধনুধ্বজ যমের আজ্ঞায় । সুশীল নামেতে বৈশ্য আনিবারে যায় ॥ পথে ভদ্রশীল সহ হৈল দরশন। দেখিয়া বিস্ময় চিত্ত হৈল তপোধন ॥ জিজ্ঞাসিল কহ তুমি আছিল কোথায় । মরিয়া কিরূপে পুনঃ আইল ধরায় ॥ মরিলে না জীয়ে লোক ব্ৰহ্মার স্বজন । মরিয়া কিরূপে পুনঃ পাইলে জীবন ॥ সেই হস্ত সেই পদ সেই কলেবর । আকৃতি প্রকৃতি সেই পরম স্বন্দর ॥ এত শুনি প্ৰণমিয়া বলেন বচন । সেই ধনুধৰজ আমি শ্বপচনন্দন ॥