পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৭৫২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৭৪২ পঞ্চস্তমস্থাযুক্তম। নীলগ্ৰীবমহীশভূষণধরম্ ব্যাজত্বচাপ্ৰাৰ্বতং । [ মহাভারত। নাহিক এড়ান তব হইল প্রলয় । ব্ৰহ্মহত্যা পাপ মোরে ফলিল নিশ্চয় , এতেক শুনিয়া দ্বিজ বলয়ে করণে । পাসরিয়া ছিনু এত্ত জানিব কেমনে ॥ তবে ধনুধ্বজ দূত ভাবে মনে মন । ডোমনীরে চাছি বলে বিনয় বচন ॥ না করিছ বধ, ছাড়ি দেহ গো ব্রাহ্মণে । দ্বিজবধ মহাপাপ সৰ্ব্বশান্ত্রে ভণে ॥ দূতের বচনে হাসি বলয়ে ডোমনী । তবে সে ছাড়িয়া আমি দিব দ্বিজমণি ॥ কুলার প্রমাণ বক্ষচৰ্ম্ম কাটি ক্ষুরে । এইক্ষণে দ্বিজবর দিউক আমারে ॥ নহে আপনার অঙ্গ করিয়া ছেদন । দেহ মোরে কুলার প্রমাণ এইক্ষণ ॥ নহে বা দ্বিজের ধার ধারে যেই জন । তাহারে আনিতে পার আমার সদন ॥ তবে এই ধার আমি লই তার স্থান । ইহা ভিন্ন দ্বিজ আর নাহিক এড়ান ॥ এতেক শুনিয়ু দ্বিজ হুইল সত্ত্বর । দূতের সহিত তথা ভ্ৰমিল বিস্তর ॥ আপনার ধারগ্রস্ত না দেখি কণহারে । চিত্তেতে আকুল হয়ে চিন্তিল অন্তরে ॥ নেত্র মুদি দিব্যজ্ঞান করিলেক ধ্যান । জনাৰ্দ্দন বিন ইথে নাহি পরিত্রাণ ॥ বিধিমতে নানা স্ততি করিল বিস্তারে । ত্ৰাণ কর জগন্নাথ রাখহ আমারে ॥ নমস্তে বামনরূপ নমস্তে মুরারী । নমঃ হয়গ্ৰীব রূপ নমঃ মধুহারী ॥ নমঃ কুৰ্ম্ম অবতার পৃথিবী ধারণ । মমস্তে মোহিনীরূপ অক্ষরমোহন ॥ নমো রঘুকুলবর রাম অবতার। এক অংশে চারি রূপ দেৰ নরাকার ॥ ক্ষজ কুলান্তক নমো নমো ভূগুপতি । নমো রামকৃষ্ণ নমো নমো জগৎপতি ॥ সর্বত্র ব্যাপিত রূপ সৰ্ব্ব দেহে স্থিতি । অভক্তের শাস্তিদাতা ভক্তকুলগতি । তুমি ব্ৰহ্ম তব মুখে ব্রাহ্মণ উৎপত্তি । বাহুযুগে ক্ষত্র উরে হৈল বৈশ্বজাতি ॥ পদযুগে তোমার উৎপন্ন শুদ্ৰগণ । তোমার স্বজন যত চরাচর জন ॥ না জানিয়া পাপ” করিলাম আকারণ। এ মহা বিপদে প্রভু করছ তারণ ॥ এইরূপে স্তুতি কৈল করি যোড়হাত । বৈকুণ্ঠে অস্থির তথা বৈকুণ্ঠের নাথ ॥ ভক্তের অধীন সদা দেব নারায়ণ । প্রত্যক্ষ হইয়া-দ্বিজে দিলেন দর্শন ॥ শঙ্খ চক্র গদা পদ্ম কিরীট ভূষণ । পীতবাস পরিধান শ্ৰীবৎসলাঞ্ছন ॥ ত্রিভঙ্গ ললিত রূপ দেব সনাতন । দেখি ভদ্রশীল হৈল সবিস্ময় মন ॥ আনন্দে অশ্রেীর জলে ভাসে কলেবর । দণ্ডবৎ প্রণমি পড়িল পদপর ॥ করে ধরি বিপ্রেরে তুলিল নারায়ণ । আলিঙ্গন দিয়া হাসি বলিল বচন ॥ | ব্রাহ্মণ আমাতে কিছু নাহি ভেদ লেশ । সে কারণ নাম আমি ধরি হৃষীকেশ ॥ ভক্তের অধীন আমি শুনহ বচন । ভক্তের মানস পূর্ণ করি সর্বক্ষণ ॥ বর মাগ দ্বিজবর যেই প্রয়োজন । এত শুনি প্ৰণমিয়া বলয়ে বচন ॥ বরেতে আমার কিছু নাহি প্রয়োজন। বর দিয়া ভাণ্ড তুমি ভকতের মন ॥ যদি বর দিবা প্ৰভু দেহত আমায় । ~ജ്, জন্মে জন্মে ভক্তি যেন থাকয়ে তোমায় ॥ কীট পতঙ্গাদি যত যোনিতে জনম। ইতিমধ্যে প্ৰভু যেন না হয় সন্ত্ৰম । কৰ্ম্মদোষে যথা তথা জন্মি পুনর্বার। অচলা তোমাতে ভক্তি রন্থক আমার ॥ আর এক বর মোরে দেহ নারায়ণ । এই ধনুধ্বজ দূতে করহ তারণ b । কেশিনী ডোমনী দেব বড়ই পাপিনী । তার ঠাই রক্ষা মোরে কয় চক্ৰপাণি ॥