পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৭৯৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


শান্তিপৰ্ব্ব । ] দ্বাদশাঙ্গুল, পথহস্তদ্বয়ং পূর্বানন সপ্তাশ্ববাহনং। ভ্রম দূর কর রাজা তত্ত্বে দেহ মন । অকারণে কর শোক ভীমের কারণ ॥ পুণ্য আত্মা ভীষ্মবীর বস্থ অবতার। শাপ ভ্ৰষ্ট হ’য়ে কুরুবংশে জন্ম তার ॥ শাপে মুক্ত হয়ে ভীষ্ম গেলেন স্বস্থান । উার হেতু শোক রাজা কর আকারণ ॥ দুৰ্য্যোধন আদি-যত কৌরব আছিল। ব্ৰহ্মার আজ্ঞায় কুরুবংশে জনমিক্স । ব্ৰহ্মার মানস পূর্ণ পৃথিবীর হিতে । হত হৈল যত ক্ষত্র ভারত-যুদ্ধেতে ॥ ব্ৰহ্মার আজ্ঞায় কৃষ্ণ হ’য়ে অবতার। পৃথিবীর ভার সব করেন সংহার ॥ কিছুমাত্র অবশেষ আছে বিষ্ণু অংশ। অল্পদিনে কৃষ্ণ তাহা করিবেন ধ্বংস ॥ ততদিন রাজ্যভোগ কর নৃপমণি । শোক ত্যাগ কর রাজা শুন মম বাণী ॥ অগনি সংস্কার কর গঙ্গার নন্দনে । অদাহন পৃথিবী দেখহ যেইখানে ॥ আপোড়া পৃথিবী যদি তুমি কোথা পাও । আমার বচন তুমি নিশ্চয় জানিও । কত কত রাজা জনমিল এ সংসারে । কেহ নাহি, সবে গেল শমনের দ্বারে ॥ চতুর্দশ ভুবনের মধ্যে পৃথিবীতে । ԳԵ-Q: কপিধ্বজ রথ আরোহিয়৷ সেই ক্ষণে । অগ্ৰে উপনীত গিয়া ইন্দ্রের ভুবনে ॥ কোনখানে স্বগেতে নাহিক অদাহন । একে একে বিচরেন ইন্দ্রের নন্দন । সপ্তস্বর্গ পুনরপি করেন বিচার । পাতালে গেলেন তবে ইন্দ্রের কুমার ॥ সপ্ত পাতালেতে সব দেখেন বিচারি । অদাহন পাতালেতে কোথাও না হেরি ॥ অনন্তরে মর্ত্যে আসিলেন ধনঞ্জয় । সপ্ত দ্বীপ বিচারিয়া করেন নির্ণয় অদাহন পৃথিবী না দেখি কোনখানে । সবিস্ময় হয়ে আসি কহেন রাজনে ॥ শুনিয়া ধর্মের পুত্র মানেন বিস্ময় । ব্যাসের বচনে পূর্ব ভ্রম দূর হয় ॥ শোক ত্যাগ করি রাজা কাৰ্য্যে দেন মন । ভীমাৰ্জ্জুনে আজ্ঞ। তবে করেন রাজন ॥ নানা কাষ্ঠ চন্দনাদি আনহ সত্বরে । এক লক্ষ স্থত কুম্ভ সভার ভিতরে ॥ কুরুক্ষেত্র মধ্যে শীঘ্র করহ সঞ্চয় । চতুৰ্দ্দোলে করি আন গঙ্গার তনয় ॥ আজ্ঞামাত্রে ধনঞ্জয় মাদ্রীর কুমারে । অগনি ংস্কার দ্রব্য আনেন সত্বরে ৷ শত শত স্কৃত কুম্ভ কাষ্ঠ রাশি রাশি । আপোড়া কোথাও নাহি কহিনু তোমাতে ॥ । এত বলি স্বস্থানে গেলেন ব্যাস মুনি । বিস্ময় মানেন রাজা ব্যাসবাক্য শুনি ॥ অর্জনেরে আদেশ করিলেন রাজন । শীঘ্ৰ কপিধ্বজে তুমি কর আরোহণ ॥ পৃথিবী খুজিতে চাহি ব্যাসের বচনে । ভ্ৰমিয়া দেখহ সব এ চৌদ্দ ভুবনে ॥ অদাহ পৃথিবী যদি থাকে কোনখানে । তথা ল’য়ে দাহ কর গঙ্গার নন্দনে ॥ জানিয়া আইস ভাই চল শীঘ্রতর। এত শুনি ধনঞ্জয় চলেন সত্বর ॥ আনিল ক্ষত্ৰিয়গণ পৃথিবী নিবাস ॥ চচুদোলে তুলি নিল ভাষ্মের শরার । বিধিমতে অগ্নি দেন রাজা যুধিষ্ঠির ॥ ভীষ্মের শরীর দহি ভাই পঞ্চজন । গঙ্গাতে যাইয়া তবে করেন তপণ ॥ শ্রদ্ধ শ্রান্তি করিলেক ক্ষত্ৰিয় বিধানে । নানরত্ন অলঙ্কার দিলেন ব্রাহ্মণে । ভীষ্মের ভাবনা বিন অন্য নাহি মনে । t ! অন্ন জল নাহি রুচে দুঃখিত রাজনে ॥ মুনি বলে জন্মেজয় কর অবধান । এতদূরে শান্তিপৰ্ব্ব হৈল সমাধান ॥ শান্তিপৰ্ব্ব সমাপ্ত ।