পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৮০০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


இேை BBBB BBBBBB BBBBBBBDDS S DDDDDDS সুতপুত্র বলি তারে বলে সৰ্ব্বজনে। হিমালয় পাখে যান পাণ্ডুর নন্দন । , না চিনিয়া সহোদর বধিলাম রণে ॥ রথেতে তুলিয়া আনিলেন সব ধন ॥ বিনাশিল কর্ণবীরে অর্জন দুৰ্জ্জয় । ধন দেখি যুধিষ্ঠির সানন্দ বিস্তর। চাহিতে তোমার মুখ মনে পাই ভয় ॥ জিজ্ঞাসা করেন পুনঃ মুনির গোচর ॥ বৃষকেতু বলে শুন পাণ্ডুর ঈশ্বর । আদ্যোপান্ত যজ্ঞ কথা জানাও আমারে। ক্ষত্রিয়প্রধান ধৰ্ম্ম করিতে সমর ॥ বিপক্ষ হইল পিতা ত্যজি সহোদর । কৌরব সহিত কৈল মন্ত্রণ বিস্তর ॥ দ্ৰৌপদীরে উপহালি হিংসিল তোমারে । সেই পাপে মম পিতা গেল যমঘরে ॥ আজ্ঞা দেহ যাব আমি খুড়ার সংহতি । আনিব যজ্ঞের ঘোড়া শুন নরপতি ॥ বৃষকেতু কথা শুনি ভীম হরষিত । আলিঙ্গন দিল তবে মনের বাঞ্ছিত ॥ ভৰে ঘটোৎকচ স্থত মেঘবর্ণ নাম । যুধিষ্ঠির জগ্রে কহে করিয়া প্রণাম ॥ যদি আজ্ঞা কর তুমি ধৰ্ম্ম নরপতি । পিতামহ সঙ্গে যাব পুরী ভদ্রাবতী । আনিব তুরঙ্গ আমি শুনহ রাজন । অন্তরীক্ষে গতি মম ধৰ্ম্মের নন্দন ॥ বুঝিতে আমার মায়া অমর না পারে । আনিব তুরঙ্গ আমি হস্তিনানগরে ॥ বৃষকেতু পিতামহে করিবে সমর । ঘোড়াকে আনিব আমি শুন নরবর ॥ এত যদি মেঘবর্ণ বলিল বচন । অনুমতি করিলেন ধৰ্ম্মের নন্দন ॥ যাও পুত্র ঘোড়ারে আনহ বাহুবলে । মম আশীৰ্ব্বাদে ঘোড়া আনিৰে কুশলে ॥ তিনজন মিলিয়া করিবে মহারণ । তবে সে জিনিবে তারে শুনহ নন্দন ॥ সাজিলেন তিন বীর তুরঙ্গ আনিতে । ব্যাস কছিলেন কথা রাজার সাক্ষাতে ॥ অর্জনে পাঠাও রাজা আনিবারে ধন । তবে লে কছিৰ আমি যজ্ঞ বিবরণ ॥ মুনি বাক্যে জর্জনে কছেন নরপতি । আজ্ঞ পেয়ে পার্থ রখে যান শীঘ্ৰগতি ॥ স্থির নহে চিত্ত মম, কহিমু তোমারে ॥ যজ্ঞ বিবরণ রাজা কহি যে তোমারে । ; আদ্যোপান্ত অন্ন জল দিবে সবাকারে ॥ বিংশতি সহস্ৰ বিপ্রে যজ্ঞেতে বরিবে । নানা আভরণ দিয়া সবারে ভূষিবে ॥ লক্ষ কুম্ভ স্থত নিত্য ঢালিবে আগুনে । করিবে দেবতা পূজা কুস্কম চন্দনে ॥ পাচ কুম্ভ স্থত এক ব্রাহ্মণে ঢালিবে । হেনমতে লক্ষ কুম্ভ প্রতি দন দিবে ॥ ঘোড়ার লক্ষণ শুন ধৰ্ম্ম নরপতি । চন্দ্রিমা জিনিয়া ঘোড়া দেহের মুরতি ॥ পীতপুচ্ছ শু্যামবর্ণ অশ্ব মনোহর । সৰ্ব্ব স্বলক্ষণ হয় শুন নরবর ॥ ভূষিত করিবে ঘোড়া দিয়া আভরণ । আপনার নাম তাহে করিবে লিখন ॥ ! জয়পত্র অশ্বভালে করিয়া বন্ধন । আপনার নাম তাহে করিবে লিখন ॥ । তাহাতে লিখিবে পত্র যেই ঘোড়া ধরে । নিজ বাহুবলে আমি জিনিব তাহারে ॥ তুরঙ্গ ছাড়িয়া মধু পূর্ণিমা দিবসে । পৃথিবী ভ্ৰমিবে ঘোড়া মনের হরিষে ॥ আপনি থাকিবে যজ্ঞে তুমি হ’য়ে ব্ৰতী । অসিপত্র ব্ৰত আচরিবে মহামতি ॥ যুধিষ্ঠির বলেন যে করি নিবেদন । অসিপত্র ব্রতের বলছ বিবরণ ॥ অসিপত্র ব্রত সেই কেমন প্রকারে । কি নিয়মে থাকে তাহা বলহ অfমারে ॥ ব্যাস বলিলেন রাজা কর অবগতি । অসিপত্র ব্রত কথা শুন নরপতি ॥ . যাবৎ না আসে ঘোড়া নিবৃত্ত হইয়া । থাকিবে সে একাসনে দ্ৰৌপদী লইয়া ।