পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৮১৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পদ্মশ্বৰ্মান্ধয়েৎ সুৰ্যমুখং খেতং চতুভূজং মহাভারত। " . ومه مb প্রভাবতী বলে নাথ শুন সাবধানে । আজি ঋতুভোগ তুমি কর মম সনে ॥ একে পতিব্ৰতা আমি শুন প্ৰাণেশ্বর । প্রভাতে যাইবে কালি করিতে সমর ॥ ঋতুস্নান করিয়াছি নিবেদি তোমারে । পুত্ৰদান দিয়া যাও যুদ্ধ করিবারে ॥ অর্জন সহিত যাও করিবারে রণ । এ কথা শুনিয়া মম চমকিত মন ॥ পাণ্ডবের সখা কৃষ্ণ বিদিত সংসারে । কেমন করিয়া তুমি জিনিবে তাহারে ॥ " আমি যে অবল জাতি তাহে কুলনারী । পুত্র না হইলে তবে কি প্রকারে তরি ॥ তোমার ঔরসে মম হইবে তনয় । ঋতুর পালন কর শুন মহাশয় ॥ শুন প্রাণনাথ মোরে না কর নিরাশ । পিতৃলোকে রাখ জল গণ্ডুষের আশ ॥ সংসার আসার দেখ সার নারায়ণ । পুত্রদান দিয়া মোরে করহ গমন ॥ সুধম্বা বলিল তবে শুনহ স্বন্দরী । মিথ্যা পুত্রে কিবা কাৰ্য্য যদি তুষ্ট হরি ॥ প্রভগবতী বলে নাথ এ নহে বিচার । , জনম বিফল অঙ্কে পুত্ৰ নাহি যার | পুন্নাম নরকে তার নাহিক নিস্কৃতি । এ সব শাস্ত্রের কথা শুন প্রাণপতি ॥ ব্যাস বশিষ্ঠাদি যত মহামুনিগণ । পুত্র জন্মাইল সবে শুন নিবেদন । ইথে দোষ নাছি, মোরে দেহ পুত্ৰদান । তবে গিয়া সংগ্রামে দেখিবে ভগবান ॥ স্বাধস্ব বলিল শুন আমার বচন । করিল আমার পিতা নিদারুণ পণ ॥ শীঘ্ৰগতি যেইজন না আলে সমরে । তাহারে ফেলিবে তপ্ত তৈলের উপরে ॥ তপ্ত তৈলে ফেলাইবে তবে নরপতি । প্রাণভয়ে সৰ্ব্বজন গেল শীঘ্ৰগতি ॥ পশ্চাৎ যাইব আমি নছে ভাল কাজ । ক্রোধ করি তৈলেতে ফেলিবে মহারাজ । - শুন প্রভাবতী ভূমি আজ থাক ঘরে। সংগ্রাম জিনিয়া আমি তুষিব তোমারে । প্রভাবতী বলে কথা শুন প্ৰাণেশ্বর । অৰ্জুনে জিনিবা তুমি অতি সে ছুক্ষর ॥ স্বগ্রা র্যার নারায়ণ সংসারের সার । এ তিন ভুবনে পরাজয় নাহি তার ॥ ভকতবৎসল হরি রাখেন অৰ্জুনে । পুরিয়া আমার আশ তুমি যাহ রণে ॥ পঞ্চশরে জর্জর হইল কলেবর । আলিঙ্গন দিয়া মোরে তোষহ সত্বর ॥ ঋতুর রক্ষণে নাহি দিনের বিচার । এ সকল শাস্ত্র কথা তব জ্ঞাত সার ॥ ভাৰ্য্যার বচন বীর নারিল লজিতে । হাসিয়া যুদ্ধের সাজ এড়িল ভূমেতে । স্বধস্থ শয়ন কৈল খটার উপরে । ভুঞ্জিয় শৃঙ্গার তুষ্ট করিল ভাৰ্য্যারে । প্রভাবর্তী গর্ভ ধরে বীর কৈল স্নান । যুঝিতে স্বধস্ব যুদ্ধে করিল প্রয়াণ । কুবলয় নামে তার আইল ভগিনী । স্বধস্থা গমনে দেয় জয় জয় ধ্বনি ॥ যাহু যাহ সাধু ভাই অৰ্জ্জুনের রণে । তোম হৈতে কৃষ্ণ আমি দেখিব নয়নে । স্বধস্থার জননী পাইল সমাচার । পুত্রের সম্মুখে আসে আনন্দ অপার । শীঘ্ৰ যাহ আরে পুত্র করিতে সমর । তোমা হৈতে আজি সে দেখিব গদাধর ॥ যেখানে অৰ্জ্জুন তথা দেব নারায়ণ । সত্য বলি এই কথা বলে সৰ্ব্বজন ॥ বিলম্ব না কর পুত্র চলহ সত্বরে । পূর্ব পুণ্যফলে ঘোড়া আইল নগরে ৷ চিরদিন আছে সাধ কৃষ্ণ দরশনে । দেখিব পরমানন্দে অর্জন মিলনে ॥ জননীর বচন শুনিয়া হরষিত । প্রণাম করিয়া মায়ে চলিল জ্বরিত ॥ হেথা দেখ সৰ্ব্ব সৈন্য সাজিয়া আইল । হংসধ্বজ মহারাজ সবারে দেখি