পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৮৩৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


কিরীটী চিন্তেন কৃষ্ণে সঙ্কটে পড়িয় ॥ । হা কৃষ্ণ করুণাসিন্ধু ওহে ভগবান । বিষম সমরে মোরে কর প্রভু ত্ৰাণ ॥ আইস কমলাপ্রিয় শীঘ্র মণিপুরে। বক্রবাহনের যুদ্ধে রক্ষা কর মোরে ॥ গজেন্দ্রে করুণা করি উদ্ধারিল হরি । অপার মহিমা তব কি কহিতে পারি ॥ ন্দ্রৌপদীর লজ্জ তুমি কৈলে নিবারণ। জতুগৃহে রক্ষা কৈলে আমা পঞ্চজন ॥ দুৰ্ব্বাসার অভিশাপে রাখিল আমারে। আপনি করিলা ত্রাণ বিরাট নগরে ॥ কুরুক্ষেত্র যুদ্ধে মুক্ত করিয়াছ তুমি । ংসারে বিদিত তাহা কি বলিৰ অামি । স্বরথ স্বর্ধম্বা যুদ্ধে রাখিলে আমারে। এবার আসিয়া রক্ষা কর মণিপুরে ॥ গঙ্গার বচন সত্য করিতে মুরারি। পার্থেরে রাখিতে না গেলেন ত্বর করি ॥ চাহেন আপন রথপানে ধনঞ্জয় | কৃষ্ণে না দেখিয়া পার্থ মনে পান ভয় ॥ বক্রবাহ বলে তুমি কি ভাবিছ মনে । , না পাবে নিস্তার তুমি আমার এ রণে ॥ এত বলি করে বীর বাণ বরিষণ । নিবারিতে না পারেন নর নারায়ণ ॥ " জর্জর হইল বীর বাণের প্রহারে । ফুটিল অর্জন বীরে রক্ত বহে ধারে । ব্ৰহ্মঅস্ত্র পাশুপত আদি যত বাণ । ভয়েতে কিরাটা সব করেন সন্ধান ॥ বক্রবাহ রাজা তাহ শরে নিবারেণ । প্রাণপণে কিরাট জিনিতে না পারেন ॥ বাণবেশে গঙ্গাদেবী আসিয়া সেখানে। কছেন সকল কথা বক্রবাহ কাণে । তাহা শুনি আনন্দিত হন নরপতি । , রাখিলেন গঙ্গা অস্ত্র করিয়া শকতি । , তৰে সেই অস্ত্র রাজ বুলিন চাপে ।

  • : *

- リー - ৰুিরটর মাথা কাটি ভূমিতে পাড়িল । পাণ্ডবের দলে যত শেষ সৈন্য ছিল । , অর্জন নিধন হেতু আতঙ্ক পাইল । । সংগ্রাম জিনিয়া বক্রবাহ কুতুহলে। পরে প্রবেশিল নীয় জয় জয় বোলে । নানাবাদ্য নৃত্য গীত হরিষ ঘোষণ। . মায়ের সম্মুখে গেল সে বক্রবাহন ॥ । ভূমিষ্ঠ হইয়া মায়ে করিল প্রণাম । হাসিয়া বলেন আমি জিনিলু সকল ॥ নাশিলাম ধনঞ্জয়ে সংগ্রামের স্থলে । যতেক পাণ্ডব-সৈন্য জিনিলাম ছেলে ॥ " পুত্রের মুখেতে কথা শুনিয়া এমন । ভয় পেয়ে চিত্রাঙ্গদ করয়ে রোদন ॥ ওরে পুত্র কি কহিলি অমঙ্গল কথা । কেমনে কাটিলি তুই জনকের মাথ ॥ । পিতৃহত্যা কৈলি তুই মহাপাপকারী । : এত বলি অচেতন হইল স্বন্দরী ॥ - ভূমিতে পড়িয়া চিত্রাঙ্গদা মহাশোকে। কোথা গেল প্রাণনাথ ঘন ঘন ডাকে ; অনেক বিলাপ করি কান্দয়ে বিস্তর । । শুনিয়া উলুপী ধেয়ে আইল সত্বর । , মুখে জল দিয়া তারে তুলে হাত ধরি.। না জানি বিষাদ কেন করহ স্বন্দরী ॥ । কৃষ্ণ সখা কিরিটির না হবে মরণ। বক্রবাহনের বাণে হৈল অচেতন ॥ পূর্ব কথা কছি আমি তোমার গোচঙ্গে। আপন মরণ তেঁই কপি আমারে ॥ । রোপিল দাড়িম্ব বৃক্ষ করিয়া যতন । . আমারে কহিল কথা পাণ্ডুর নন্দন ॥ দাড়িম্ব নিধনে মম জানিছ মরণ । ’ এত বলি নিজ দেশে করিল গমন । , ক্ৰন্দন ত্যজহু তুমি আমার বচনে । , দাড়িম্বের বৃক্ষ গিয়া দেখি দুইজনে । বোলে-চিত্রাঙ্গদা হয়ন্তি : eeeSeeeeSeeeSeeS S S AAAAA SAAAAA AAAA