পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৮৭৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৮৬৪ গৌরাঙ্গ মহাপ্রভুর ধ্যান—শ্ৰীগৌরাঙ্গ মহং বন্দে রাধাকৃষ্ণ— [ মহাভারত । অবশেষে অল্পমাত্র রহিল কিঞ্চিৎ । দেখিয়া কুমার সব হইল বিস্মিত ॥ হাতে ধরি ঘষিতে আয়ত্ত নাহি হয় । কেমনে করিব ইহা পাষাণেতে ক্ষয় ॥ খণ্ডিল মনের ত্রাস কৃষ্ণ উপদেশে । কি আর করিব ভয়ঙ্গল্প অবশেষে ॥ এতেক বালক সব মনে অনুমানি । শেষ লৌহ প্রভাস সলিলে ফেলে টানি ॥ হরষিতে স্নান করি প্রভাসের জলে । দ্বারাবতী চলে গেল বালক সকলে ॥ গোবিন্দের আগে আসি কহিল কাহিনী । শিশুগণে আশ্বাসেন দেব চক্রপাণি ॥ ভারতে মুষলপৰ্ব্ব অপূর্ব আখ্যান। কাশীরাম দেব কহে শুনে পুণ্যবান ॥ যছকুল ক্ষয়ার্থে কৃষ্ণ বলরামের যুক্তি । মুনি বলে শুন পরীক্ষিতের নন্দন । মুষল বৃত্তান্ত কহি শুনহ কারণ ॥ মুষল ঘষিয়া ক্ষয় কৈল শিশুগণ । সেই হ্রদে হৈল নল-খাগড়ার বন ? শেষ লৌহ জলে যেই টানিয়া ফেলিল । জলে ছিল মৎস্যরাজ তাহারে গিলিল ॥ ধীবর আইল মৎস করিতে ধারণ । জালে বন্দী হৈল মৎস্য দৈবের কারণ ॥ লৌহ শেষ পায় মৎস্ত কাটিবার কালে । জরা নামে এক ব্যাধ এসে সেই স্থলে ॥ মাগিয়া লইল লৌহ ধীবরের স্থানে । কৰ্ম্মিগুহে ফল৷ গড়াইয়া দিল বাণে ॥ এখানে দ্বারকাপুরে দেব নরহরি । যদুবংশ বিনাশিতে হৃদয়ে বিচারি ॥ অবধান কর দেব রেবতীরমণ । ভারাবতারণে আইলাম এ ভুবন ॥ দুষ্ট দৈত্য মারিয়া খণ্ডিমু পৃথিভার। ততোধিক যদুকুল হুইল আমার ॥ ইহা সব বিদ্যমানে নহে ভার শেষ । অধিক যাতনা ক্ষিতি পায় ত বিশেষ ॥ ইহার উপায় দেব চিন্তিয়াছি আমি । যদুকুল ক্ষয় করি হবে স্বৰ্গগামী ॥ মম বংশ ক্ষয় করে, আছে কোনজন । ব্ৰহ্মশাপ লক্ষ্য করি করিব নিধন ॥ প্রভাসে যাইব চল স্নান করিবারে । যদুবংশ সঙ্গে করি লহ সবাকারে ॥ এইমতে দুই ভাই উঠিয়া ত্বরায় । মাতা পিতা অগ্রে যান লইতে-বিদায় ॥ হেনকালে অমঙ্গল দেখি অপ্রমিত । ভূমিকম্প উল্কাপাত অতি বিপরীত ॥ সঘনে নির্ঘাত শব্দ দশদিকে হয় । দিবসেতে ধূমকেতু হইল উদয় ॥ দ্বারকায় জলচর হয় মুৰ্ত্তিমান । টলমল করয়ে দ্বারকাপুরীখান ॥ কাষ্ঠ শিলা মৃত্তিক প্রতিমা যত ছিল । কেহ অট্ট হাসে, কেহ বিদারী পড়িল ৷ নৃত্য করি বুলে কেহ, নগর ভিতরে । অকস্মাৎ ভাঙ্গি পড়ে দেউল মন্দিরে ॥ শৃগাল কুক্কুর সব ডাকে উচ্চৈঃস্বরে । প্রিয়া প্রিয়া দ্বন্দ্ব হয় নগরে নগরে ৷ অকালে উদয় হৈল দেব রবি শশী । . সিংহিকা তনয় তাহে অপূৰ্ব্ব গরাসী ॥ হাহাকার শব্দ করে নগরের লোক । স্বগের দেবতাগণ করে মহাশোক ॥ এইরূপে উৎপাত হইল স্থবিস্তার । দেবগণ সংহতি আইল স্থষ্টিধর ॥ অন্তরীক্ষে থাকিয়া যতেক দেবগণ । করিলেন বহুমতে প্রভুর স্তবন ॥ নমস্তে কমলাকান্ত বিশ্বরূপ হরি । নমস্তে ক্ষীরোদশায়ী মধুকৈটভারি ॥ নিলেপ নিগুঢ় নিরাকার নিরঞ্জন । অনন্ত আকার বিশ্বরূপ সনাতন ॥ সত্ব রজঃ তমোগুণে এ তিন প্রকার । লীলায় করহ স্বষ্টি লীলায় সংহার। | চন্দ্র সূৰ্য্য আকাশ পৃথিবী জলনিধি । পবন বরুণ ইন্দ্র গঙ্গা নদ নদী ॥