পাতা:কাশীদাসী মহাভারত.djvu/৯১১

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


_স্বৰ্গারোহণপৰ্ব্ব । ] শুভদাং স্থপ্রভাং দেবীং নারসিংহীং নমামহম্। brస్సిరి অন্তকাল জানিয়া চিন্তিল নারায়ণ । অবাক হইয়া পড়ি ছাড়িল জীবন ॥ যুধিষ্ঠিরে শুনাইল বৃকোদর ধীর। পৰ্ব্বতে ত্যজিল প্রাণ সহদেব বীর ॥ পড়িল কনিষ্ঠ ভাই শুনহ রাজন। দেখি শোকে কান্দিলেন ধৰ্ম্মের নন্দন ॥ কোথাকারে গেল ভাই পরাণ আমার । জ্যোতিষ শাস্ত্রের গুরু বুদ্ধির আধার ॥ আমাদিকে ছাড়ি ভাই গেলে কোথাকারে । বিপদে পড়িলে বুদ্ধি জিজ্ঞাসিব কারে । পরম পণ্ডিত ভাই মন্ত্রী চূড়ামণি । যার বুদ্ধে রাজ্য পাই কুরুগণে জিনি ॥ এত বলি পড়িলেন আছাড় খাইয়া । হায় সহদেব বলি ভুমে লোটাইয়া ॥ ভারত সমরে জয় কৈলা কুরুগণে । শকুনিরে সংহারিলা সব বিদ্যমানে ॥ দিগ্বিজয় করিয়া করিলে মহাক্রতু। মোরে এড়ি পৰ্ব্বতে পড়িলা কোন হেতু ॥ বিষম সঙ্কটে বনে পাইয়াছ ব্ৰাণ । পৰ্ব্বতে পড়িয়া ভাই হারাইলে প্রাণ ॥ জননী কুন্তীর তুমি বড় প্রিয়তর। হেন ভাই পৰ্ব্বতে রহিলা একেশ্বর ॥ ধবল পৰ্ব্বতে কৃষ্ণ কৃষ্ণ বিষ্ণুলোকে । কে জানিবে মম দুঃখ কহিব কাহাকে ॥ দশদিক অন্ধকার দেখেন নয়নে । স্থিরচিত্ত নৃপতির হৈল কতক্ষণে ॥ ভীম জিজ্ঞাসেন রাজা কহিবে আমাতে । কোন পাপে সহদেব পড়িল পৰ্ব্বতে ॥ যুধিষ্ঠির বলেন যে শুন সাবধান। সহদেব জ্ঞাত ভূত ভাবি বর্তমান ॥ পাশাতে আমারে আহানিল দুৰ্য্যোধন । বিদ্যমান ছিল ভাই মাষ্ট্রীর নন্দন ॥ হারিব জিনির সেই ভাল তাহ জানে । জানিয়া আমারে না করিল নিবারণে ॥ বারণাবতেতে যবে দিল পাঠাইয়া । আমাদিগে কপটে মারিত্বে পোড়াইয়া ॥ . . জানিয়া না বলিলেক কুলের বিনাশ । অধৰ্ম্ম হইল ভেঁই পাপের প্রকাশ ॥ এই পাপে যাইতে নারিল স্বৰ্গপুরে । শুন বৃকোদর ভাই জানাই তোমারে ॥ এত বলি যান রাজা করিয়া ক্ৰন্দন । ভীমাৰ্জ্জুন নকুল পশ্চাতে তিনজন । পখমধ্যে সরোবর দেখি বিদ্যমান । যুধিষ্ঠির তাতে করিলেন স্নানদান ॥ দেব ঋষি পিতৃলোকে করিয়া তপণ । শুচি হৈয়া করিলেন স্বৰ্গ আরোহণ ॥ সহদেব দ্ৰৌপদী চলিল স্বৰ্গপুরে । ভেটিল গোবিন্দে আতি সানন্দ অন্তরে ॥ জ্ঞাতি গোত্ৰগণ সঙ্গে হইল মিলন । যুধিষ্ঠির পথ চাহি আছে সৰ্ব্বজন ॥ ভারত পঙ্কজ রবি মহামুনি ব্যাস । বিরচিল পাঁচালী প্রবন্ধে কাশীদাস ॥ চন্দ্রকালী পৰ্ব্বতে নকুলের ও নন্দ্রিঘোষ পৰ্ব্বতে অৰ্জুনের দেহত্যাগ । মুনি বলে কহি শুন নৃপ জন্মেজয় । চলিল উত্তরমুখে পাণ্ডুর তনয় ॥ যাইতে উত্তরমুখে দেখেন রাজন । সরোবর তীরে লিঙ্গ অতি স্থশোভন ॥ " গঙ্গার সদৃশ দেখি স্বনিৰ্ম্মল জল । কোকনদ প্রফুল্ল সহস্ৰ শতদল ৷ সরোবর আছে শত যোজন বিস্তার। জল দেখি নৃপতির আনন্দ অপার ॥ মৃগ পক্ষী হংস চক্র বিহরে বিস্তর। ভ্রমর ঝঙ্কারে বনে জলে জলচর ॥ অপরূপ দেবের চুল্লভ সেই স্থান । বসন্তে পবন মত্ত কোকিলের গান ॥ পদ্মে আচ্ছাদিত সব নাহি দেখি নীর । নিত্য স্নান হয় যাতে সদা ইন্দ্রাণীর ॥ সেই সরোবরে স্নান করি চারিজন । শোক দুঃখ ছাড়ি কিছু স্থির হৈল মন ॥