পাতা:কৃষিতত্ত্ব - নীলকমল লাহিড়ী.pdf/১৫২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

8 R. কৃষিতত্ত্ব । দুই হােত গভীর ও এক হাত ব্যাস একটা গৰ্ত্ত গোময় অথবা অন্য কোন পচা সারের চতুর্থাংশ উপযুক্ত মৃত্তিকাতে মিশ্ৰিত করিয়া বীজ রোপণের অনুন চারি মাস পূর্বে পূরণ করবে। সময়ে সময়ে জল দিয়া মৃত্তিক সরস এবং তাজা রাখিবো। পরে সেই স্থানে বীজ অথবা কলমের চারা রোপণ করিবে । চারা বদ্ধিত হইলে গোড়ার মৃত্তিক অল্প খনন করিয়া তাহার সহিত সার মিশ্ৰিত করিয়া দিবে। মৃত্তিকা নীরস হইলে জল দেওয়া আবশ্যক। যত্ন করিলে বীজের চারাতেও তিন চারি বৎসরে ফল হয়। ইহা সুখাদ্য ফল। আতার গুণ-তৃপ্তিজনকত্ব, রক্তবৰ্দ্ধকত্ব, স্বাদুত্ব, শীতলত্ব, বল্যমাংসকারিত্ব, হৃদ্যত্ব, দাহরক্তপিত্তনাশিত্ব । অন্য দুই প্রকারের গুণ-হৃদ্যত্ব, সুগন্ধিত্ব, কফব্বাতনাশিত্ব, অৰ্শবাতপিত্তহরত্ব, লঘুত্ব। আমি সপারী, শফৱী, আজি ফল, পেয়ারা । ইহা কিঞ্চিৎ অধিক বালির ভাগ বিশিষ্ট দোয়াস মৃত্তিকাতে উত্তম জন্মে । অন্য প্রকার সাধারণ মৃত্তিকাতেও জন্মে। অন্যান্য বৃক্ষের ন্যায়। সার আদি দিলে ভাল হয়। ইহা নানা জাতীয় হয়। বৃহদাকার ও সদগন্ধযুক্ত গুলিকেই পেয়ারা বলে। এই জাতি উত্তম । বঙ্গদেশের দক্ষিণ প্রদেশে অধিক জন্মে, সফরী আম সব্বত্রই আছে। বীজ এবং কলম উভয় প্রকারেই চার জন্মান যায়। বীজের চারা অপেক্ষ কলমের চারাতে ফল ভাল হয়। ইহার মূল অধিক মৃত্তিকার নীচে প্রবিষ্ট হয় না। এজন্য রোপণ কালে অধিক গভীর করা অনাবশ্যক। দেড় অথবা দুই ফুট গৰ্ত্ত করিয়া উপযুক্ত মুত্তিক এবং সারা দিয়া রোপণ করিলেই হইতে পারে। পেয়ারার জন্য লোকে যেরূপ যত্ন করে, আমসফরী প্ৰভৃতির জন্য তত যত্ন করে না। যত্ন uBBBBDB BDDDBDD BDD DDS DDY DBDBS