পাতা:কৃষিতত্ত্ব - নীলকমল লাহিড়ী.pdf/৩০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।

R O কৃষিতত্ত্ব । ইয়া বান্ধিবো। বালতির কড়াতে রজ্জ্ব লােগাইয়া বাশের মাথার সহিত বান্ধিতে হয়। ঐ বঁাশসকলের পশ্চাৎ ভাগে পরিমাণে ভারি। এমত কোন বস্তু ৰান্ধিয়া দিবে। যতগুলা বালতি, তত লোক মাচির উপর চড়িয়া যে মাথায় বালতি থাকে, সেই মাথা চাপিয়া ধরিয়া জলে ডুবাইবে । জল পূর্ণ হইলে ছাড়িয়া দিলে পশ্চাঞ্চভাগে গুরুতর বস্তু বান্ধা থাকায় বালতি উৰ্দ্ধে উঠিবে। ঐ মাচির সম্মুখে আর কয়টী বঁাশ পুতিয়া তাহার উপর ডোঙ্গা বসাইবার সুযোগ করিয়া ডোঙ্গ বসাইয়া রাখিবে এবং সেই ডোঙ্গার সহিত যোগ রাখিয়া, ক্ৰমে নীচে নীচে ডোঙ্গা বসাইয়া যে স্থানে জল লইতে হইবে, সেই স্থান পৰ্য্যন্ত লইবে । তদনন্তর বালতি ধরিয়া প্রথমোক্ত ডোঙ্গাতে জল ঢালিয়া দিবে, পশ্চাৎ সেই জল ক্ৰমিক ডোঙ্গা দ্বারা যথাস্থানে যাইবে। অন্যান্য যন্ত্র অপেক্ষ এই যন্ত্র দ্বারা অল্প সময়ের মধ্যে অধিক পরিমাণ জল লইয়া প্রয়োজন সাধন করা যাইতে পারে। ঐ সকল যন্ত্র কেবল ক্ষেত্রে জল দিবার নিমিত্ত ব্যবহার হইতে পারে। উদ্যানে, শাক শবজির ক্ষেত্রে, এবং বৃক্ষ মূলে জল দিবার জন্য অন্য প্রকার যন্ত্র আবশ্যক। তাহাতে সূক্ষ্ম বহু ছিদ্র যুক্ত পাত্ৰ জল পূর্ণ করিয়া তন্দ্বারা জল দিতে হয় । টিনের ঐ রূপ পাত্ৰ এক্ষণে সুলভ, তাহা না পাইলে কোন মৃৎপাত্রের নীচে সুক্ষ্ম সুন্ম অনেক ছিদ্র করিয়া তন্দ্বারা ঐ রূপে জল দিবে। বৃষ্টির ও বন্যার জলে উদ্ভিদের যত উপকার হয়, উদ্ধৃত জলে তত উপকার হয় না, ইহা সত্য, তথাপি অভাব স্থলে অবশ্যই ঐ সকল উপায় অবলম্বন করা কীৰ্ত্তব্য, তাহা না করিলে পরিশ্রম নিস্ফল হয়। ক্ষেত্রে বীজ বপন করিয়া অধিক জল দিলে বীজ অধিক মৃত্তিকার নীচে প্ৰবেশ করে, এবং বীজসকল জলের cबांश डिन डिन স্থানে না থাকিয়া একত্র হয়, আর অধিক জলে বীজ পচিয়া যাইবারও সম্ভাবনা, অতএব বীজ বপনের পর যদি জল দিতে হয়, তবে অতি অন্ন পরিমাণে জল দিবে, অন্ধুর উদগত হইবার নিমিত্ত যে পরিমাণ জল আবশ্যক, তাহাই দিবে। অন্ধুর ও শিকড় উৎপন্ন হইয়া ক্ৰমে বাড়িলে ক্ৰমে জলের পরিমাণও বৃদ্ধি করিবে, অর্থাৎ শিকড় মৃত্তিকার নীচ অধিক দূর পর্য্যন্ত প্ৰবেশ করিলে তথাকার মৃত্তিক যাহাতে সরস থাকে, সেই পরিমাণে জল দিবে।