পাতা:কৃষ্ণচরিত্র.djvu/২০৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চতুর্থ ও নবম পরিজে অভিল క్షి శిభి

  • অপ্রদ্ধেয় বলিয়া জামাদিগের বোধ इज़ । গ্ৰীকৃষ্ণ অস্থাগু ক্ষত্রিয়দিগের স্থায় ব্ৰাহ্মণকে

যথাযোগ্য সম্মান করিক্তেন বটে, কিন্তু তাহাকে কোথাও ব্রাহ্মণের গৌরব প্রচারের জন্তু বিশেষ ব্যস্ত দেখি না । বরং অনেক স্থানে তঁাহাকে বিপরীত পথ অবলম্বন করিতে দেখি4 যদি বনপর্বে ঘর্বাসার আতিথ্য বৃত্তান্তটা মৌলিক মহাভারতের অন্তর্গত বিবেচনা করা যায়, তাহ হইলে বুঝিতে হুইবে যে, তিনি রকম সকম করিয়া ব্রাহ্মণঠাকুরদিগকে পাণ্ডবদিগের আশ্রম হইতে অৰ্দ্ধচন্দ্র প্রদান করিয়াছিলেন । তিনি ঘোরতর সাম্যবাদী । গীতোক্ত ধৰ্ম্ম যদি কৃষ্ণোক্ত ধৰ্ম্ম হয়, তবে বিস্তাবিনয়সম্পল্পে ব্রাহ্মণে গবি হস্তিনি । শুনি চৈব শ্বপাকে চ পণ্ডিতা: সমদৰ্শিনঃ ॥ ৫ ॥ ১৭ তাহার মতে ব্রাহ্মণে, গোরুতে, হাতিতে, কুকুরে ও চণ্ডালে সমান দেখিতে হইবে। তাহা হইলে ইহা অসম্ভব যে, তিনি ব্রাহ্মণের গৌরব বৃদ্ধির জন্য র্তাহীদের পদপ্রক্ষালনে নিযুক্ত হইবেন। কেহ কেহ বলিতে পারেন, কৃষ্ণ যখন আদর্শ পুরুষ, তখন বিনয়ের আদর্শ দেখাইবার জগুই এই ভূত্যকার্য্যের ভার গ্রহণ করিয়াছিলেন । জিজ্ঞাস্ত, তবে কেবল ব্রাহ্মণের পাদপ্রক্ষালনেই নিযুক্ত কেন ? বয়োবৃদ্ধ ক্ষত্রিয়গণেরও পাদপ্রক্ষালনে নিযুক্ত নহেন কেন ? আর ইহাও বক্তব্য যে, এইরূপ বিনয়কে আমরা অাদর্শ বিনয় বলিতে পারি না । এটা বিনয়ের বড়াই। ". অন্তে বলিতে পারেন যে, কৃষ্ণচরিত্র সময়োপযোগী। সে সময়ে ব্ৰাহ্মণগণের প্রতি ভক্তি বড় প্রবল ছিল ; কৃষ্ণ ধূৰ্ত্ত, পশার করিবার জন্য এইরূপ অলৌকিক ব্ৰহ্মভক্তি দেখাইতেছিলেন। আমি বলি, এই শ্লোকটি প্রক্ষিপ্ত। কেন না, আমরা এই শিশুপালবধ-পৰ্ব্বাধ্যায়ের অন্য অধ্যায়ে (চোঁয়াল্লিশে) দেখিতে পাই যে, কৃষ্ণ ব্রাহ্মণগণের পাদপ্রক্ষালনে নিযুক্ত না থাকিয়, তিনি ক্ষত্রিয়োচিত ও বীরোচিত কাৰ্য্যন্তরে নিযুক্ত ছিলেন। তথায় লিখিত আছে, “মহাবাহু বাস্থদেব শখ, চক্র ও গদা ধারণ পূর্বক সমাপন পৰ্য্যন্ত ঐ যজ্ঞ রক্ষা করিয়াছিলেন।” হয়ত দুইটা কথাই প্রক্ষিপ্ত। আমরা এ পরিচ্ছেদে এ কথার বেশী আন্দোলন আবশুক বিবেচনা করি না। কথাটা তেমন গুরুতর কথা নয়। কৃষ্ণচরিত্র সম্বন্ধে মহাভারতীয় উক্তি অনেক সময়েই পরম্পর অসঙ্গত, ইহা দেখাইবার জন্তই এতটা বলিলাম। নানা হাতের কাজ বলিয়া এত অসঙ্গতি। --