পাতা:কৃষ্ণচরিত্র.djvu/২২৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


१२• কৃষ্ণচরিত্র আইন-আদালতের সাহায্য প্রাপ্য নহে, সেখানে বলপ্রয়োগ ধৰ্ম্মসঙ্গত কি না ? বল ও ক্ষমার সামঞ্জস্য সম্বন্ধে এই সকল কুটতর্ক উঠিয়া থাকে। কাৰ্য্যতঃ প্রায় দেখিতে পাই যে, যে বলবান, সে বলপ্রয়োগের দিকেই যায়। যে স্থৰ্ব্বল, সে ক্ষমার দিকেই যায়। কিন্তু যে ’ বলবানু অথচ ক্ষমাবান, তাহার কি করা কওঁৰ্য ? অর্থাৎ আদর্শ পুরুষের এরূপ স্থলে কি কর্তৃব্য ? তাহার মীমাংস উদ্ভোগপর্বের আরম্ভেই আমরা কৃষ্ণবাক্যে পাইতেছি। . ভরসা করি, পাঠকেরা সকলেই জানেন যে, পাণ্ডবের দূতক্রীড়ায় শকুনির নিকট হারিয়া এই পণে বাধ্য হইয়াছিলেন যে, আপনাদিগের রাজ্য ছুৰ্য্যোধনকে সম্প্রদান করিয়া স্বাদশ বর্ষ বনবাস করিবেন। তৎপরে এক বৎসর অজ্ঞাতবাস করিবেন ; যদি অজ্ঞাতবাসের ঐ এক বৎসরের মধ্যে কেহ তাহাদিগের পরিচয় পায়, তবে তাহারা রাজ্য পুনর্বার প্রাপ্ত হইবেন না, পুনৰ্ব্বার স্বাদশ বর্ষ জষ্ঠ বনগমন করিবেন। কিন্তু যদি কেহ পরিচয় না পায়, তবে তাহারা ফুৰ্য্যোধনের নিকট আপনাদিগের রাজ্য পুনঃপ্রাপ্ত হইবেন। এক্ষণে র্তাহার। দ্বাদশ বর্ষ বনবাস সম্পূর্ণ করিয়া বিরাটরাজের পুর মধ্যে এক বৎসর অজ্ঞাতবাস সম্পন্ন করিয়াছেন, ঐ বৎসরের মধ্যে কেহ তাহাদিগের পরিচয় পায় নাই । অতএব তাহারা দুৰ্য্যোধনের নিকট আপনাদিগের রাজ্য পাইবার স্বায়তঃ ও ধৰ্ম্মতঃ অধিকারী। কিন্তু ফুৰ্য্যোধন রাজ্য ফিরাইয়। দিবে কি ? না দিবারই সম্ভাবনা । যদি না দেয়, তবে কি করা কর্তব্য ? যুদ্ধ করিয়া তাহাদিগকে বধ করিয়া রাজ্যের পুনরুদ্ধার করা কৰ্ত্তব্য কি না ? অজ্ঞাতবাসের বৎসর. অতীত হইলে পাণ্ডবের বিরাটরাজের নিকট পরিচিত হইলেন । বিরাটরাজ তাহাদিগের পরিচয় পাইয়া অত্যন্ত আনন্দিত হইয় আপনার কন্য। উত্তরাকে অর্জুনপুত্র অভিমন্ত্র্যকে সম্প্রদান করিলেন। সেই বিবাহ দিতে অভিমন্ত্র্যর মাতুল কৃষ্ণ ও বলদেব ও অন্যান্ত যাদবের আসিয়াছিলেন। এবং পাগুবদিগের শ্বশুর দ্রুপদ এবং অন্যাস্থ কুটুম্বগণও আসিয়াছিলেন । তাহার। সকলে বিরাটরাজের সভায় আসীন হইলে পাণ্ডব-রাজ্যের পুনরুদ্ধার প্রসঙ্গটা উথাপিত হইল। নৃপতিগণ “শ্ৰীকৃষ্ণের প্রতি দৃষ্টিপাত করিয়া মৌনাবলম্বন করিলেন ।” তখন শ্ৰীকৃষ্ণ রাজাদিগকে সম্বোধন করিয়া অবস্থা সকল বুঝাইয়। বলিলেন। যাহ। যাহা ঘটিয়াছে তাহা বুঝাইয়া তার পর বলিলেন, “এক্ষণে কৌরব ও পাণ্ডবগণের পক্ষে যাহা হিতকর, ধৰ্ম্ম্য, যশস্কর ও উপযুক্ত, আপনার তাহাই চিন্তা করুন।” & কৃষ্ণ এমন কথা বন্সিলেন না যে, যাহাতে রাজ্যের পুনরুদ্ধার হয়, তাহারই চেষ্টা করুন। কেন না হিত, ধৰ্ম্ম, যশ হইতে বিচ্ছিন্ন ষে রাজ্য, তাহ তিনি কাহারও প্রার্থনীয়