পাতা:কৃষ্ণচরিত্র.djvu/২৪৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ॐé8 কৃষ্ণচরিত্র কাপুরুষ মহেন। যিনি বিশ্বরূপ, র্তাহার এরূপ ভয়ের সম্ভাবনা নাই। অতএব বিশ্বরূপ প্রকাশের কোন কারণ ছিল না। এ অবস্থায় ক্রুদ্ধ বা দাস্তিক ব্যক্তি ভিন্ন শক্রকে ভয় দেখাইৰার চেষ্টা করে মা। যিনি বিশ্বরূপ, তিনি ক্রোধশুস্ত এবং দম্ভশূন্ত । "অতএব, এখানে বিশ্বরূপের কথাটা কুকবির প্রণীত অলীক উপন্যাস বলিয়া ত্যাগ করাই বিধেয়। আজি পুনঃ পুনঃ দেখাইয়াছি, মামুৰী শক্তি অবলম্বন করিয়া কৃষ্ণ কৰ্ম্ম করেন, ঐশী শক্তি দ্বারা নহে। এখানে তাহার ব্যতিক্রম হইয়াছিল, এরূপ বিবেচন৷ করিবার কোন কারণ নাই । কুরুসভ্য হইতে কৃষ্ণ কুন্তীসম্ভাষণে গেলেন। সেখান হইতে তিনি উপপ্লব্য নগরে, , যেখানে পাণ্ডবের অবস্থান করিতেছিলেন, তথায় যাত্রা করিলেন। যাত্রাকালে কর্ণকে ধু আপনার রথে তুলিয়া লইলেন। র্যাহার কৃষ্ণকে নিগ্ৰহ করিবার জন্য পরামর্শ করিতেছিল, কর্ণ তাহার মধ্যে । তবে কর্ণকে কৃষ্ণ স্বরথে আরোহণ করাইয়া চলিলেন কেন, তাহ পরপরিচ্ছেদে বলিব । সে কথায় কৃষ্ণচরিত্র পরিস্ফুট হয়। সাম ও দণ্ডনীতিতে কৃষ্ণের নীতিজ্ঞতা দেখিয়াছি । এক্ষণে ভেদনীতিতে র্তাহার পারদর্শিত দেখিব । সেই সঙ্গে ইহাও দেখিব যে, কৃষ্ণ আদর্শ পুরুষ বটে, কেন না তাহার দয়, জীবের হিতকামন, এবং বুদ্ধি, সকলই লোকাতীত । অষ্টম পরিচ্ছেদ

  • ... . কৃষ্ণকর্ণসংবাদ

কৃষ্ণ সৰ্ব্বভূতে দয়াময়। এই মহাযুদ্ধজনিত যে অসংখ্য প্রাণিক্ষয় হইবে, তাহাতে আর কোন ক্ষত্রিয় ব্যথিত নহে, কেবল কৃষ্ণই ব্যথিত। যখন প্রথম বিরাট নগরে যুদ্ধের প্রস্তাব হয়, তখন, কৃষ্ণ যুদ্ধের বিরুদ্ধে মত দিয়াছিলেন । অৰ্জুন তাহাকে যুদ্ধে বরণ করিতে গেলে, কৃষ্ণ এ যুদ্ধে অস্ত্র ধরিবেন না ও যুদ্ধ করিবেন না প্রতিজ্ঞা করিলেন। কিন্তু তাহাতেও যুদ্ধ বন্ধ হইল না । অতএব উপায়ান্তর না দেখিয়া ভরসাশূন্ত হইয়াও, সন্ধি স্থাপনের জন্তু বৃতরাষ্ট্র-সভায় গেলেন । তাহাতেও কিছু হইল না, প্রাণিহত্য নিবারণ হয় না। তখন রাজনীতিজ্ঞ কৃষ্ণ জনসমূহের রক্ষার্থ উপায়ান্তর উদ্ভাবনে প্রবৃত্ত হইলেন।