পাতা:কৃষ্ণচরিত্র.djvu/২৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


প্রথম খণ্ড : চতুর্থ পরিচ্ছেদ : মহাভারতের তাহাদিগের নিজ নিজ পুস্তকে উদ্ধৃত করিয়াছিলেন, তাহাই সন্ধ৷ (Dr. Schwanbeck) নামক এক জন আধুনিক পণ্ডিত একখা:ি তাহাই এখন মিগাস্থেনিস কৃত ভারতবৃত্তান্ত বলিয়। প্রচলিত। তাহী* 北* বিলুপ্ত ; স্বতরাং তিনি মহাভারতের কথা বলিয়াছিলেন কি না বলা যায় না। ইহ জানিয়া শুনিয়াও কেবল ভারতবর্ষের প্রতি বিদ্বেষবুদ্ধিবশতঃ বেবর সাহেব এরূপ কথা লিখিয়াছেন। তাহার প্রণীত ভারত-সাহিত্যের ইতিবৃত্ত বিষয়ক গ্রন্থে আদ্যোপাস্ত ভারতবর্ষের গৌরব লাঘবের চেষ্টা ভিন্ন, অন্য কোন উদ্দেশ্ব দেখা যায় না। ইহার পর বলা বাহুল্য যে, মিগাস্থেনিস মহাভারতের নাম করেন নাই, ইহা হইতেই এমন বুঝায় না যে, তাহার সময়ে মহাভারত ছিল না। অনেক হিন্দু জৰ্ম্মনি বেড়াইয়া আসিয়াছেন, গ্রন্থও লিখিয়াছেন, র্তাহীদের কাহারও গ্রন্থে ত বেবর সাহেবের নাম দেখিলাম না । সিদ্ধাস্ত করিতে হইবে কি যে, বেবর সাহেব কখনও ছিলেন না ? অন্যান্ত পণ্ডিতেরা, বেবর সাহেবের মত, সব উঠাইয়া দিতে চাহেন না । তাহার যে আপত্তি করেন, তাহা দুই প্রকার ;– (১) মহাভারত প্রাচীন গ্রন্থ বটে, কিন্তু খ্রিঃ পুঃ চতুর্থ কি পঞ্চম শতাব্দীতে প্ৰগীত হইয়াছিল, তাহার পূর্বে এরূপ গ্রন্থ ছিল না। (২) আদিম মহাভারতে পাগুবদিগের কোন কথা ছিল না। পাণ্ডব ও কৃষ্ণ প্রভৃতি কবিকল্পনা মাত্র। দেশী মত আবার বিপরীত সীমান্তে গিয়াছে। দেশীয়েরা বলেন, কলির আরস্তের ঠিক পূৰ্ব্বে কুরুক্ষেত্রের যুদ্ধ হইয়াছিল। সে সময়ে বেদব্যাস বর্তমান ছিলেন। কলির প্রবৃত্তি মাত্রে পাণ্ডবেরা স্বর্গারোহণ করেন। অতএব কলির আরম্ভেই অর্থাৎ অদ্য হইতে ৪৯৯২ বৎসর পুৰ্ব্বে, মহাভারত প্রণীত হইয়াছিল। ছুটি মতই ঘোরতর ভ্রমপরিপূর্ণ। দুই দলের মতেরই খণ্ডন আবশ্বক। তজ্জন্ত প্রথম প্রয়োজনীয় তত্ত্ব এই যে, কুরুক্ষেত্রের যুদ্ধ কবে হইয়াছিল ইহার নির্ণয়। তাহ নির্ণীত হইলেই কতক বুঝিতে পারিব, মহাভারত কবে প্রণীত হইয়াছিল, এবং পাণ্ডবাদি কবিকল্পনা মাত্র কি না ? তাহা হইলেই জানিতে পারিব, মহাভারতের উপর নির্ভর করা যায় কি না ?