পাতা:কৃষ্ণচরিত্র.djvu/৮৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


s প্রথম খণ্ড • সপ্তদশ পরিচ্ছেদ ঃ ইতিহাসাদির পৌৰ্ব্বাপৰ্য্য se উপন্যাসভাগ যত বাড়িয়াছে, সেই গ্রন্থ তত আধুনিক । এই নিয়মানুসারে, আলোচ্য গ্রন্থ সকলের পৌৰ্ব্বাপর্য্য এইরূপ অবধারিত হয়। প্রথম । মহাভারতের প্রথম স্তর } দ্বিতীয়। বিষ্ণুপুরাণের পঞ্চম অংশ। তৃতীয় । হরিবংশ । চতুর্থ। শ্ৰীমদ্ভাগবত। ইহা ভিন্ন আর কোন গ্রন্থের ব্যবহার বিধেয় নহে। মহাভারতের দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্তর অমৌলিক বলিয়া অব্যবহার্য্য, কিন্তু তাহার অমৌলিকতা প্রমাণ করিবার জন্য, ঐ সকল অংশের কোথাও কোথাও সমালোচনা করিব। ব্ৰহ্মপুরাণ ব্যবহারের প্রয়োজন নাই, কেন না বিষ্ণুপুরাণে যাহা আছে, ব্ৰহ্মপুরাণেও তাহ আছে। ব্রহ্মবৈবর্তপুরাণ পরিত্যাজ্য, কেন ন, মৌলিক ব্ৰহ্মবৈবৰ্ত্ত লোপপ্রাপ্ত হইয়াছে। তথাপি জীৱাষার বৃত্তান্ত জন্য একবার ব্ৰহ্মবৈবৰ্ত্ত ব্যবহার করিতে হইবে । অস্কাষ্ঠ পুরাণে কৃষ্ণকথা অতি সংক্ষিপ্ত, এজন্য সে সকলের ব্যবহার নিষ্ফল। বিষ্ণুপুরাণের পঞ্চমাংশ ভিন্ন চতুর্থাংশও কদাচিৎ ব্যবহার করার প্রয়োজন হইবে—যথা স্তমস্তক মণি, সত্যভামা, ও জাম্ববতীবৃত্তাস্ত । , পুরাণ সকলের প্রক্ষিপ্তবিচার দুর্ঘট। মহাভারতে যে সকল লক্ষণ পাইয়াছি, তাহ হরিবংশে ও পুরাণে লক্ষ্য করা ভার। কিন্তু মহাভারত সম্বন্ধে আর যে হুইট ৪ নিয়ম করিয়াছি যে, যাহা অনৈসর্গিক, তাহা অনৈতিহাসিক ও অতিপ্রকৃত বলিয়া পরিত্যাগ করিব ; আর যাহা নৈসর্গিক, তাহাও যদি মিথ্যার লক্ষণাক্রান্ত হয়, তবে তাহাও পরিত্যাগ করিব ; এই দুইটি নিয়ম পুরাণ সম্বন্ধেও খাটিবে। এক্ষণে আমরা কৃষ্ণচরিত্রকথনে প্রস্তুত।

  • ५१ शृणॆ वर्षॆ ।