পাতা:কোরআন শরীফ (প্রথম খণ্ড) - মোহাম্মদ আকরম খাঁ.pdf/১৫৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২য় ছুরা, ৮ম রুকু ] “বানৱ হইল্লা জাও” .۹ - د সমসাময়িক পণ্ডিতদিগের আক্রমণের ভয়ে এমাম রাজী তাহীর তফছিরের বহুস্থানে এই প্রকার প্রকারস্তরে নিজের মতামত প্রকাশ করিয়াছেন। সে যাহা হউক, এমাম ছাহেবের এই বর্ণনায় জানা যাইতেছে যে—বাদর-শব্দের যে ভাবাৰ্থ আমরা গ্রহণ করিয়াছি, আরবী ভাষায় তাহ সাধারণ ভাবে প্রচলিত ও সৰ্ব্বজন বিদিত ইডিয়ম, এবং এই অর্থ গ্রহণ করা সম্পূর্ণ নিরাপদ। ইহাতে কোন প্রমাণহীন ও অস্বাভাবিক ঘটনায় বিশ্বাস করারও কোন আবশ্বক হয় না। সেই জন্য আমরা এই সৰ্ব্বজন বিদিত সাধারণ তাৎপৰ্য্য গ্রহণ করিয়াছি । তোমরা বিদূরিত বিতাড়িত বাদর হও—ইহার তাৎপৰ্য্য তোমরা যুগপৎভাবে বাদরত্ব প্রাপ্ত হও এবং দেশ দেশান্তরে বিতাড়িত ও বিক্ষিপ্ত হইয়া যাও ! উভয়ই 'কুতু’-পদের খবর’, তাহাদের মধ্যে বিশেষ বিশেষণ সম্বন্ধ নহে। সেই জন্য থাছেয়ান ও কেরাদণতনি দুই শব্দের লিঙ্গগত সামঞ্জস্ত রক্ষিত হয় নাই । বাদরের কএকটা বিশেষ স্বভাব আছে, সে সময়কার এহুদীরা সেই সব স্বভাবকে অর্জন করিয়া অভিশপ্ত হইয়াছিল । তাহার মধ্যকার একটা স্বভাব হইতেছে—পরের অন্তকরণপ্রিয়তা। বিষয়টার দোষ গুণের বিচার না করিয়া, খোদার দেওয়া জ্ঞান ও শরিঅত'কে উপেক্ষা করিয়া তাহারা পরজাতির অনুকরণ করিতে অভ্যস্ত হইয়া পড়িয়াছিল। পরবর্তী আয়ুতে তাহদের যে গো-পূজার প্রতি ইঙ্গিত করা হইয়াছে, তাহাও তাঁহাদের মিসরীয়দিগের অন্ধ অন্তকরণের কুফল । তাহার পর আরবী সাহিত্যে, “বাদরের কামুকতা” প্রবাদরূপে ব্যবহার হইয়া থাকে। অতিরিক্ত ব্যভিচার ব্যক্তিকে বলা হয়— ১, ৮ _ » অর্থাৎ —“লোকটা বাদর অপেক্ষাও অধিক ব্যভিচারী” । এহুদী জাতি এই সমস্ত স্বভাবকে অতি মারাত্মকরূপে অর্জন করিয়াছিল । t O কুকুরকে মাহৰ নিকটে আসিতে দেয় না—যেখানে যায়, সেখান হইতে তাহাকে দূর দূর করিয়া তাড়াইয়া দেওয়া হয়—ইহাই হইতেছে ‘খাছেয়ীন’ শব্দের ধাতুগুত তাৎপৰ্য্য । এহুদী জাতি ছনার সর্বত্র এইরূপে ঘৃণিত ও লাঞ্ছিত হইবে, সকল স্থান হইতে এইরূপে বিতাড়িত হইবে, থাছেীন’ শব্দ দ্বারা ইহাই বুঝান হইতেছে। চুরা 'নেছী'র ৪৭ আয়তের আলোচনায় আমরা দেখিয়াছি যে, হজরতের সমসাময়িক এহুদীদিগের যে প্রকার দুরবস্থা ঘটিয়াছিল, বিশ্রাম দিবস অমান্তকারী এই এহুদীদিগেরও ঠিক তাহাই ঘটিয়াছিল। হজরতের সমসাময়িক এহুদী জাতি স্বদেশ হইতে বিতাড়িত ও পরজাতির পদদলিত হইয়াছিল, সুতরাং বিশ্রাম দিবস অমান্তকারী এহুদীদিগকেও এইরূপ ইতস্ততঃ বিক্ষিপ্ত, স্বদেশ হইতে বিতাড়িত এবং পরজাতি কর্তৃত লাঞ্ছিত হইতে হইয়াছিল, ইহা আয়তের স্পষ্ট তাৎপৰ্য্য। • বাইরেলে এহুদী জাতির এই প্রকার পতন ও দুরবস্থার কথা খুব স্পষ্ট করিয়া বর্ণিত হইয়াছে। নিয়ে তাহার একটু নমুনা দিয়া ক্ষান্ত হইতেছি। ফিহিস্ফেল ২২ অধ্যায়ে এহুদীদিগের সম্বন্ধে লিখিত হইয়াছে ঃ– “. . . . . . তুমি আমার পবিত্র বস্তু সকল অবজ্ঞা করিয়াছ, ওঁ আমার বিশ্রাম দিন সকল >br 崎