পাতা:কোরআন শরীফ (প্রথম খণ্ড) - মোহাম্মদ আকরম খাঁ.pdf/২৭৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২য় ছুর, ১৯শ রুকু ] তাওহীদ o ২G১ থাকিলেও, বিশ্বমানব বাস্তব ক্ষেত্রে সে একত্ববাদকে সম্পূর্ণভাবে বিস্তুত হইয়া বা মারাত্মকরূপে বিকৃত করিয়া স্বষ্টি আর স্বজনকৰ্ত্তার ব্যবধানকে একেবারে অস্বীকার করিয়া বসিয়াছিল। “আল্লাহ এক ও অদ্বিতীয়রূপে বিরাজমান আছেন, সকল শক্তির পূর্ণতম ও একমাত্র আকররূপে বিরাজমান আছেন। র্তাহার জাত বা স্বত্বার শরিক যেমন অন্য কেহ নাই এবং অন্য কেহ হইতে পারে না, সেইরূপ র্তাহার ছেফাত বা ঐশিক গুণের শরিকও অন্য কেহ নাই এবং হইতে পারে না। তিনি ছামাদ অর্থাৎ অন্ত-নিরপেক্ষ ও বেনায়াজ, সুতরাং সৃষ্টিতে আর স্বষ্টিকে পরিচালন ও নিয়ন্ত্রণ করাতে প্রকৃতি Soul, Matter বা অন্য কোন, কিছুর মুখাপেক্ষী তিনি নহেন। স্বষ্টি স্থিতি লয়ের এবং আলোক ও অtধার প্রভৃতি সমস্ত বস্তুর একমাত্র মালেক তিনি, তাহার জন্য অন্য কোন কৰ্ত্ত নাই। মানব যেমন কোন অবস্থাতেই ঈশ্বরত্বের একটু সামান্য অংশও প্রাপ্ত হইতে পারে না, সেই প্রকার অবতাররূপে মানব আকারে আত্মপ্রকাশও তিনি কখন করেন না । বিশ্বজগতের এক তিলাদ্ধ পরিমাণ ক্ষতি বা উপকার করার ক্ষমতা তিনি বাতীত অন্য কোন ব্যক্তি বা বস্তুর নাই। কোন ব্যক্তি বা বস্তুকে কোন প্রকারে ঐ প্রকার ক্ষতি বা উপকার করার অধিকারী বলিয়া মনে করিলে তাওহীদ বা একত্ববাদের শিক্ষাকে সম্পূর্ণভাবে অমান্ত করা হয়। আল্লাহকে এক, আদিতীয় ও সকল শক্তির একমাত্র আকর বলিয়া স্বীকার করিয়া ও মাতুষ কোন মঙ্গলকে লাভ করার অথবা কোন অমঙ্গল হইতে রক্ষণ পাওয়ার জন্য, ঠাকুর দেবতা এবং পীর ও আওলিয়ার শরণ গ্রহণ করে, তাহীদের সুপারিস লইয়া আল্লার হুজুরে উপস্থিত হইবার বাহানায় । কোবৃঅানে পুনঃ পুনঃ ইহার প্রতিবাদ করিয়া বলা হইতেছে—স্বৰ্গ মৰ্ত্তের কোন ব্যাপারই আল্লার অগোচর নহে, তিনি সৰ্ব্বজ্ঞ ও সৰ্ব্বশক্তিমান এবং সঙ্গে সঙ্গে তিনি করুণাময় ও রুপানিধান । কোন কৰ্ত্তব্যপালনের জন্য র্তার সুপারিসের দরকার হয় মনে করিলে, তার এই সৰ্ব্বজ্ঞ । সৰ্ব্বশক্তিমান ও করুণাময় গুণকে অস্বীকার করা হয়, সুতরাং ইঙ্গও তাওহীদের বিপরীত শিক্ষণ । Jo