পাতা:কোরআন শরীফ (প্রথম খণ্ড) - মোহাম্মদ আকরম খাঁ.pdf/৩৪৫

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২য় ছুরা, ২৬শ রুকু ] জেহাদ-আগ্ৰীতিকর Nరిషి ల AA AeeS SAM Ae ee AAAA AAAA AAAAe eAe ee AeeAAA AAAA AAAA AAAA SAAAAAS AAASASAAAAAS AAAAA AAASS AeS SeAeeAAASAAAAAA ASAS A SAS SSAS SSAS به همراه ه ماه مهم بیع مهمی که به پاحی হিসাবে যাহা নিশ্চিত, যাহা অপরিহার্য্য, বাহা অলঙ্ঘনীয়, তাহার সম্বন্ধে বলা ཐ་ན ༦ག་ས། হইল, লিখিয়া দেওয়া হইল (রাগেব ) । কোআনের বহুস্থানে এইরূপ ব্যবহার আছে । এই ছুরার ১৮৩ আয়তে বলা হইয়াছে— L یاییها الذين آمڈ,! کتب علیکم الصيام —“হে মো'মেনগণ! রোজাকে তোমাদিগের প্রতি লিখিয়া দেওয়া হইল”—অর্থাৎ তোমার জন্য অপরিহার্য্য কৰ্ত্তব্যরূপে নিৰ্দ্ধারিত করা হইল। এখানেও ঠিক ঐক্লপে মুছলমানদিগকে লক্ষ্য করিরা বলা হইতেছে ষে, আল্লাহ জেহাদকে তোমাদিগের জন্য অপরিহার্য্য কৰ্ত্তব্যরূপে —ফরজরূপে-নিৰ্দ্ধারিত করিয়া দিয়াছেন । নমাজ ও রোজার স্তায় জেহাদও এছলামের অপরিহার্য্য ফরজ । ২০৬ জেহাদ-অপ্রীতিকর – এই আয়তের প্রথম লক্ষ্য ছিলেন—হজরতের ছাহাবিগণ । আল্লার এই হুকুম তাহদিগের পক্ষে “অপ্রীতিকর” হইয়াছিল কোন হিসাবে ? এই প্রশ্নের উত্তরে বলা হইয়াছে যে, জেহাদে অর্থের ক্ষতি, প্রাণহানির আশঙ্কা এবং নানাবিধ দৈহিক ক্লেশের সম্মুখীন হইতে হয়, এই সব আপদ বিপদের জন্য জেহাদ করিতে কুষ্ঠিত হওয়া মানুষের পক্ষে স্বাভাবিক । এই স্বাভাবিক দুর্বলতার জন্য হজরতের ছাহাবাগণ জেহাদকে প্রীতির চক্ষে দর্শন করিতে পারেন নাই। কিন্তু ছাহাবাদিগের মহানচরিত্র সম্বন্ধে যাহারা আলোচনা করিয়াছেন, এরূপ কথা তাহারা কখনই বলিতে পরিবেন না । বস্তুতঃ পার্থিব ক্ষতির ভয়ে তাহারা বিচলিত হন নাই, নিজেদের যথাসৰ্ব্বস্তকে আল্লার নামে উৎসর্গ করিয়াই তাহারা মুছলমান হইয়াছিলেন। পক্ষান্তরে যুদ্ধবিগ্রহ তখনকার আরবের নিত্যনৈমিত্তিক ঘটনায় পরিণত হইয়াছিল, . যুদ্ধের বিভীষিকা তাহদের মনকে কখনই বিচলিত করিতে পারে নাই। সুতরাং এই প্রকার তাৎপৰ্য্য গ্রহণ করা অসমীচীন। বস্তুতঃ নিজেদের সুখস্বাচ্ছন্দ্যের ভাবনায় ছাত্রাবাগণ কখনই অস্থির হন নাই। র্তাহারা বিচলিত হইয়াছিলেন এছলামের ভবিষ্যৎ ভাবিয়া । মুছলমান তখন উভয় জনবলে ও ধনবলে অতিশষ্ম দুৰ্ব্বল। তাই তাহারা মনে করিয়াছিলেন–এ অবস্থায় সমরে লিপ্ত হইলে এই মুষ্টিমেয় মুছলমানের অস্তিত্ব বিলুপ্ত হইয়া যাইবে, মুছলমানের সঙ্গে সঙ্গে আল্লার সত্যধৰ্ম্ম এছলামও লোপ পাইবে । তালুতের উপখ্যানে ইহারই নজির দিতে গিয়া অল্পপরেই বলা হইয়াছে —‘কত সংখ্যালঘু সঙ্ঘ আল্লার হুকুমে কত সংখ্যাগুরুদলকে পরাজিত করিয়াছে, • বস্বতঃ ধৈর্য্যশীলদিগের সহায় আল্লাহ (২৪৯ আয়ত ) । আল্লাহ নিজের পতাকা বাহাকে • স্বান করেন, তাহ বহন করার শক্তিও তিনি তাহাকে প্রদান করিয়া থাকেন। সমাজের