পাতা:কোরআন শরীফ (প্রথম খণ্ড) - মোহাম্মদ আকরম খাঁ.pdf/৩৫৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


N99షా কোৱাতমান শরীফ [ দ্বিতীয় পারা 蠱 AAAAAA AAAA AAAA AAA AAAA AAAA AAAA AAAA AAAA AAAA AAAAeAeeeS eeee eeeAAA AAAA AAAA AAAS به تایی و جیمی تر به این ته ایسم گفتنی. তাহাম্বারা সাধিত হইয়া থাকে। অতএব আমরা বুঝিলাম—যে কার্ষ্যে বা যে বস্তুতে অধিকাংশ সময় অধিকতর লোকের গুরুতর অনিষ্ট সাধিত হইয়া থাকে, সময় সময় অল্পসংখ্যক লোকের সামান্ত পরিমাণ উপকার তাহাদ্বারা সাধিত হইলেও, মানবসমাজের জন্য সেই প্রকার কার্য্য বা বস্তুকে নিষিদ্ধ করিয়া দেওয়াই সঙ্গত হইবে। এই কারণেই এছলাম মাদকদ্রব্য ও জুয়াকে হারাম করিয়া দিয়াছে এবং শরিয়তের প্রত্যেক নিষিদ্ধ বিষয়ের মূলে এই নীতিই কাজ করিয়া আসিতেছে। ( অর্থ স্বাস্থ্য ও জ্ঞান মানবজীবনের প্রধান কাম্যবন্ত, যাক ও জুয়ার সঞ্জৰে এসমভেরই সৰ্ব্বনাশ ঘটিা থাকে ) কলিকাতা শহরে আজ মুছলমানের বিষয় সম্পত্তি খুজিয়া পাওয়া যায় না, প্রাচীন পরিবারগুলির নামনিশান পর্য্যন্ত লোপ পাইতে বসিয়াছে। কিন্তু চিরকাল এরূপ ছিল না। মুছলমানের সে সমস্ত বিষয়সম্পত্তি প্রধানতঃ মদে ও ঘোড়দৈাড়ের জুয়াতেই নিঃশেষিত হইয়া গিয়াছে । G এই আয়ত নাজেল হওয়ার সময় পৰ্য্যন্ত আরবের সমস্ত গোত্রগুলি মদ ও জুয়ার নেশায় একেবারে মশগুল হইয়াছিল এবং তাহীদের আত্মবিচ্ছেদ ও গৃহ যুদ্ধের প্রধান কারণও ছিল ইহাই (৫-১• আস্থত দ্রষ্টব্য)। মুছলমানকে এখন জেহাদের জন্য প্রস্তুত করা হইতেছে। সেজন্য তাহার দরকার অর্থবলের, জ্ঞানবলের, মানসিক শক্তির এবং সংহতি শক্তির । কিন্তু মদ ও জুয়ার প্রচলন থাকিতে ইহার আশা করা মাম্ব না। তাই এখানের জেহাদের জাদেশের সহিত মদ ও জুয়ার নিষেধকেও প্রসঙ্গক্রমে একসঙ্গে বর্ণনা করা হইয়াছে। মদ ও জুয়া সংক্রান্ত অন্যান্য কথা ছুর মায়দার তফছিরে আলোচনা করাই অধিকতর সঙ্গত হইবে । • পাখিৰ ও পারলৌকিক বিষয়ে চিন্তা — ১৯৫ মাতে আল্লার পথে বা জেহাদের জন্য অর্থব্যয় করার আদেশ দেওয়া হইয়াছে। জেহাদ সংক্রান্ত আদেশ উপদেশগুলি পর পর প্রকাশিত হওয়ার পর তাহার আয়োজনও আরম্ভ হইয়া গেল। তখন অর্থের আবশ্বক হইল এবং আল্লার পথে ব্যয় করার জন্য জাতীয় ধনভাণ্ডার সঞ্চিত হইতে লাগিল । সেইসময় ছাহাবাগণ জিজ্ঞাসা করিতে লাগিলেন— জামাজের ধনসম্পদের কি পরিমাণ জেহাদের জন্য দান করিতে হইবে ? এই শ্রেণীর প্রশ্নের উত্তরে কোরআনে বলিয়া দেওয়া হইতেছে—যে পরিমাণ ব্যয় করা তোমাদিগের পক্ষে সহজসাধ্য, প্রত্যেকে নিজের অবস্থা অনুসারে সেই প্রকার দান করিৰে। ' ইহকাল ও পরকাল উভয়ই মুছলমানের লক্ষ্যের বিষয়, ২১৭ আয়তে জেহাঙ্গ উপলক্ষে তাহার উল্লেখ হইয়াছে। এখানেও বলা হইতেছে যে, মুছলমানের পার্থিব ও পারলৌকিক DBBBB BBB BBB B BBB DDBB DD DDDS DBBBBH B BBBDBB BBD কোজানের জাম্বতের মধ্য দিব সেগুলিকে ৰিশদরূপে বর্ণনা করিয়া দিতেছেন। মুছলমান