পাতা:কোরআন শরীফ (প্রথম খণ্ড) - মোহাম্মদ আকরম খাঁ.pdf/৩৭৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২য় ছুরী, ২৯শ রুকু ] তমালেম সমাজ NEGG AAAAAAAS AAAA S S AAAAAeS eeeSeee AA SAeS e AAAA SAAAAA ASASASA eeS Ae eSeSAAAAAAS AAAA S S 鳴 疇 gকে । কিন্তু উপায় নাই, উহা তাহাদের ফৎওয়ায় তিন তালাক বলিয়া গণ্য । কাজেই বsরী স্বামী হয় নিরুপায় হইয়া অন্য ‘মজহাব গ্রহণ করে, না হয় ঘৃণিতভাবে হীলtশরয়ী করিয়া অন্য স্বামীদ্বারা তাহাকে হালাল করিয়া লওয়ার চেষ্টা পাইয়া থাকে। যেহেতু প্রথমে গুহারা বলিয়া ফেলিয়াছেন যে, একসঙ্গে তিন তালাক দিলে, সেই বেদূত্মাৎ ও হারাম তালাক বলবৎ হইয়া যাইবে—সেই জন্য এই শ্রেণীর জঘন্য ব্যভিচারকেও তাহারা “মকৃরূহ হইলেও জাএজ” বলিয়া ফৎওয়া দিতে বাধ্য হইয়াছেন । এইরূপে বিবাহের নামকরণে এই জঘলু ব্যভিচারের ঘৃণিত প্রথা মোছলেম জগতের প্রতি কেন্দ্রে অতি শোচনীয়ভাবে সংক্রমিত হইয়া পড়িয়াছে । ২৩১ অালেম সমাজ – আলেম সমাজের জন্য বিবাহ ও তালাক সংক্রান্ত আল্লার বিধিব্যবৃন্থাগুলি কোরআনে পরিস্কারভাবে বর্ণনা করা হইয়াছে । আলেম বা বিদ্বান সমাজ তাহার ভাব ও ভাষা এবং তাহার লক্ষ্য ও আদর্শগুলিকে প্রথমে নিজেরা উত্তমরূপে হৃদয়ঙ্গম করিয়া লইবেন,এবং তাহার পর জনসাধারণকে তাহা বুঝাইয়া দিবেন—ঐ সকল নিয়মের কোন অপচয় যাহাতে তাহারা করিতে না পারে, সে চেষ্টা র্তাহারা বিহিতভাবে করিতে থাকিবেন । কিন্তু আজি এই সকল বিষয়ু উপলক্ষে মুছলমান সমাজে সাধারণতঃ কোআনের শিক্ষার যে মারাত্মক ব্যভিচার আরম্ভ হইয়। গিয়াছে, সেদিকে লক্ষ্য করা বা তাহার প্রতিকারের চেষ্টা পাওয়া কেহই আবিস্ত্যক বলিয়া মনে করিতেছেন না । ২৩২ স্ত্রীকে আটকাইয়া রাখা — নিৰ্দ্ধারিত মিয়াদ অর্থে ইন্দত। ইদতে উপনীত হইয়া যায়-অর্থে ইন্তকাল সমাপ্ত fর উপক্রম করে, ইদ্দত শেষ হয় হয় অবস্থায় উপনীত হয়। ইদ্দত্ব শেষ হওয়ার পূৰ্ব্বে । স্বামী স্ত্রীকে পুনঃগ্রহণ করিতে পারে, ২২৯ আয়তে তাহা বলা হইয়াছে। ইদতের মধ্যে স্বামী স্ত্রীকে পুনরায় গ্রহণ করিতে পারে, শুধু এইটুকু বলিয়া ক্ষান্ত হইলে অসতর্ক বা অনাচারী স্বামীদিগের হাতে একটা স্বেচ্ছাচারের অধিকার তুলিয়া দেওয়া হয় । তাই এই আয়ুতে বলিয়া দেওয়া হইতেছে যে, ইন্দতের মধ্যে স্ত্রীকে পুনরায় গ্রহণ করিতে পারে বলিয়। -অসদুদেখে, স্ত্রীকে ক্ষতিগ্রস্ত করার জন্য আটকাইয়া রাখার অধিকার তাহার নাই। যেমন একজন স্বামী তাহার স্ত্রীকে তালাক দিল এবং ইদত পুরা হওয়ার দুই তিন দিন পূৰ্ব্বে বলিয়া দিল—আমি স্ত্রীকে গ্রহণ করিলাম। কিছুদিন পরে, আবার তালাক দিল এবং ঐ প্রকারে . আবার গ্রহণ করিল। এইরূপে স্বামী স্ত্রীকে আজীবন আটকাইয়া রাখিয়া চিরকাল তাহার উপর অত্যাচার করিতে পারে। তাহার অত্যাচারের হাত হইতে মুক্তি পাইয়া নিজের জন্ত কোন ব্যবস্থা করার সুযোগ লাভ তাহা হইলে স্ত্রীর পক্ষে কখনই সম্ভবপর হইতে