পাতা:কোরআন শরীফ (প্রথম খণ্ড) - মোহাম্মদ আকরম খাঁ.pdf/৩৮৪

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


రిల్నూ কোরআন শরীফ ہے سمتیے =ایسے متقی خ_نقشہ = { দ্বিতীয় পার এক বা দুই তালাক দেয়, আর ইদ্দত শেষ হওয়ার পূৰ্ব্বে স্ত্রীকে পুনঃগ্রহণ না করে, আলোচ্য আয়তে এই শ্রেণীর ঘটনা সম্বন্ধে ব্যবস্থা দেওয়া হইতেছে। এখানে বলা হইতেছে যে, স্বামী যদি এক বা দুই তালাক দেয় এবং সেই অবস্থাতেই যদি ইন্দতকাল শেষ হইয়া যায়, তাহা হইলে নিজের ইচ্ছাক্রমে স্ত্রীকে ফিরাইয়া লওয়ার অধিকার তাহার আর থাকিবে না । এ অবস্থায় নুতন বিবাহদ্বারা তাহারা পুনরায় মিলিত হইতে পারে এবং বিবাহ করিতে হইলে যথারীতি স্ত্রীর সম্মতি ইত্যাদিও দরকার । স্ত্রী ইচ্ছা করিলে সে বিবাহে সম্মত হইতে পারে, ইচ্ছা করিলে অসন্মতও হইতে পারে। স্বামী ও স্বীর মধ্যে বিশেষ অসদ্ভাব না ঘটিলে তালাক পৰ্য্যন্ত শ্রান্ধ গড়ায় না। স্বামী তালাক দিলে, দীর অভিভাবকগণ স্বামীর উপর বিশেষ অসন্তুষ্ট হইবেন, ইহা স্বাভাবিক কথা। এই প্রকারে স্ত্রীর প্রতি দুৰ্ল্যবহার করিয়া, তাহাকে তালাক দিয়া দূর করিয়া দিল যে স্বামী, তাহার প্রতি দীর অভিভাবকের সৃণ ও বিদ্বেষেরও অবধি থাকে না। কাজেই সে স্বামীর সহিত পুনরায় নিজের কন্যা বা ভগ্নীর বিবাহ দিতে উহাদের অভিমানে আঘাত লাগারই কথা । কিন্তু অভিভাবকগণ এক্ষেত্রে নিজের অভিমান বা ক্রোধের প্রতি নজর করিতে পরিবেন না—তাঙ্গদিগকে দম্পতিযুগলের-বিশেষতঃ স্ত্রীর—জীবনের সুখ শান্তি আর তাহীদের মানসিক অবস্থার প্রতি দৃষ্টি রাখিয়াই ব্যবস্থা করিতে হইবে। যদি দেখা যায় যে, এই বিচ্ছেদের জন্য স্বামী ও স্ত্রী উভয়ই সত্য সত্যই দুঃখিত ও অতুতপ্ত হইয়াছে, পুনরায় মিলিত হওয়ার জন্য তাহীদের অন্তরে সত্যকার আগ্রহ জাগ্রত হইয়াছে, সে অবস্থায় স্ত্রীকে এই বিবাহে বাধা দেওয়া তাহার অভিভাবকের পক্ষে কখনই বৈধ হইবে না। হজরত রচুলে করিমের সময় ঠিক এইরূপ একটা ঘটনা ঘটে । মা’কল-এবনে-য়্যাছার নামক ছাহাবীর ভগ্নিপতি র্তাহীর ভগ্নীকে এইরূপ তালাক দেওয়ার পর ইদ্দত শেষ হইয়া যায়, তাহার মধ্যে স্বামী, তাহাকে গ্রহণ কুরিলেন না। কিন্তু ইদ্দত শেষ হওয়ার পর তাহকে পুনরায় বিবাহ করার জন্য ঘটক পাঠাইলেন—পরম্পরকে পাওয়ার জন্য তখন তাহারা উভয়ই ব্যগ্র হইয়া পড়িয়াছে। মাকল ইহাতে ক্রুদ্ধ হইয়া বিশেষ ভংসনার সহিত এই বিবাহের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করিয়া দেন । এই ঘটনার বিবরণ হজরতের কর্ণগোচর হইলে, তিনি মা’কলকে ডাকিয়া তাহার নিকট এই আয়ত পাঠ করিলেন । মা’কল তখন নিজের ব্যবহারের জন্য অমৃতপ্ত হইলেন এবং সন্তুষ্টচিত্তে ঐ বিবাহের প্রস্তাবে সম্মতি দিলেন (বোখারী, আৰু দাউদ তিরমিজী, এবনে মজি, এবনে জরির প্রভৃতি ) ৷ . . . ২৩৫ শুদ্ধতম ও পবিত্রতম ব্যবস্থা ঃ– যাহারা আল্লার প্রতি এবং পরকালের প্রতি বিশ্বাসী—অর্থাৎ বাহারা সত্যকারভাবে বিশ্বাস করে যে, আল্লাহ পরকালে সদাসৎ কাজের পুরস্কার বা দণ্ড মানুষকে নিশ্চয়ই প্রদান করবেন, এই সকল বিবরণদ্বারা তাহাদিগকে সদৃপদেশ দেওয়া হইতেছে। সত্যকার