পাতা:কোরআন শরীফ (প্রথম খণ্ড) - মোহাম্মদ আকরম খাঁ.pdf/৩৮৯

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


২য় চুরা, ৩•শ রুকু ] গোপলে বিবাহের ওক্সাদা ベつこa, নিৰ্ম্মম অত্যাচার আর কি হইতে পারে ? পক্ষান্তরে এক শ্রেণীর লোকের অবিরাম প্রচারের ফলে সাধারণতঃ মনে করিয়া লওয়া হইয়াছে যে, বিধবামাত্রকেই পুনরায় স্বামী গ্রহণ করিতেই হইবে—ইহাই আদর্শ। পরলোকগত স্বামীর প্রেমস্থতি এবং শিশু সন্তানদিগের ভবিষ্যৎ ভাবিয়া যদি কোন বিধবা পুনরায় বিবাহ করিতে অসম্মত হয়, তাহ হইলে ঐ শ্রেণীর প্রচারকেরা আদাজল খাইয়া তাহীদের পশ্চাতে লাগিয়া যান এবং ধৰ্ম্মের নামে নানা প্রকার ভয় দেখাইয়া সেই বিয়োগ বিধুর হতভাগিনীদিগের শোকসন্তপ্ত ও দুর্ভাবনাক্লিষ্ট মন ও মস্তিষ্ককে আরও জালাতন করিয়া তোলেন । কিন্তু অতি-ধৰ্ম্মিকতার আগ্রহাতিশয্য বশতই হউক, নিজেদের কোন গোপন লালসার প্ররোচনায় হউক, অথবা শুধু অজ্ঞতার জন্যই হউক—র্তাহারা ভুলিয়া যান যে, ৪• কোটি রূহান সন্তানের প্রেমময় পিতা হজরত মোহম্মদ মোস্তাফা, ঐ শ্রেণীর বিধবাদিগের সম্বন্ধে সুব্যবস্থা করিয়া যাইতেও বিস্মৃত হন নাই । তিনি স্পষ্টাক্ষরে ঘোষণা করিতেছেন – M. o إلا وإمرأة سفع أو (لغديرى کہاتیری یومِ القيامة ۰۰۰ همرآت آمبتنی * نيا زن جه-ا ذات منصب از جمال حبست نفسها علی یاتاماها حتی بازار ارماتو - برداؤد - মৰ্ম্মাতুবাদ ঃ—যে নারীর রূপ আছে, সন্ত্রম আছে—অথচ স্বামী বিয়োগে যাহার গণ্ডদ্বয়ের উপর কালিমা ছাইয়া পড়িয়াছে, নিজের এতিম পুত্র কন্যাগণের মুখ চাহিয়া আত্মসম্বরণ করিয়া থাকে এরূপ যে বিধবা, সে কেয়ামতের দিনে আমার এমনই নিকটে হইবে—তর্জনী ও মধ্যম যেরূপ পরস্পর মিলিত হইয়া থাকে (আবুদাউদ ) । "تيوم "

২৩৯ ইন্দভকালে পয়গাম — কোন স্ত্রীলোককে বিবাহ করার ইচ্ছা মনে মনে পোষণ করা অথবা এই ইচ্ছ", ༦ས། , প্রকান্তরে তাহাকে জানাইয়া দেওয়াতে দোষ নাই । এখানে "স্ত্রী লোক' অর্থে পূৰ্ব্বৰ্ণষ্ঠ; বিধবাদিগকে বুঝাইতেছে । ২৪০ গোপনে বিবাহের ওয়াদা :– বিবাহের যে বিহিত নিয়ম সমাজে প্রচলিত আছে, সে অনুসারে সঙ্গত ভাবে কোন নারীকে বিবাহ করায় প্রস্তাব করাতে দোষ নাই। কিন্তু তাহার বিপরীত, গুপ্ত ভাবে দ্বীলোকের সুহিত বিবাহের কথাবাৰ্ত্ত পাকা করা অন্যায়। ভাবপ্রবণ নারী হৃদকে •রুপজ "বা কামজ মোহে আবিষ্ট করিয়া এক শ্রেণীর লালসাসৰ্ব্বস্ব পুরুষ তাহাদিগকে চিরকালই প্রবঞ্চিত করিয়া থাকে। অধিকন্তু এই শ্রেণীর গুপ্ত প্রেমের দ্বারা সাধারণতঃ ব্যভিচারের দ্বার মুক্ত হইয়া যায় এবং অবশেষে পুরুষের বিশ্বাস ঘাতকতার ফলে নারীর ভাবী জীবন বিষময় হইয়া উঠে । আল্লার এই বিধানকে উপেক্ষ করার ফলে ইউরোপ ও আমেরিকায় সমাজিক জীবন যে কিরূপ সাংঘাতিক ভাবে কলুষিত হইয়া পড়িাছে,