পাতা:কোরআন শরীফ (প্রথম খণ্ড) - মোহাম্মদ আকরম খাঁ.pdf/৪১৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


२ङ्ग छूद्रn, ७०चं ब्रम्कू ] पन्होंऽस्रटन्हङ्व न्वान्वञ्च .رسیده است লাগিল—জালুতের ও তাহার বিরাট সৈন্যবাহিনীর সহিত মোকাবেল করার শক্তি আজ” BBBBB BDS SBBBS BBS BBS BD BBB BBS BBB BBBBB BBD উহাদিগের মোকাবেলার জন্য অগ্রসর হইব । কিন্তু খাটি মোমেন বাহরা, যাহারা বিশ্বাস করিয়া থাকে যে, মৃত্যুই মানবজীবনের শেষ পরিণতি নহে, এবং এই মৃত্যুর যবনিকাকে অতিক্রম করিয়াই বান্দা তাহার দয়াময় আল্লার সহিত মিলিত হইতে পারে—তাহার। তখন তারস্বরে বলিয়া উঠিল, মুছলমানের শক্তি তাহার সংখ্যায় নহে, যুদ্ধের সাজসরঞ্জামেও নহে । তাহার প্রকৃত তেজ ও বাস্তব শক্তির একমাত্র কেন্দ্র হইতেছেন—আল্লাহ । সেই আল্লাহকে বুকে গ্রহণ করিয়া, তাহার পতাকাকে উচু করিয়া ধরিতে চাহিয়াছে বাহার, ংখ্যা শক্তিতে ক্ষুদ্র হইয়াও তাহারা বহুবার বহু সংখ্যাগুরু অনাচারীদিগের বিরাট, সৈন্তবাহিনীকে পরাজিত করিয়াছে । জগতের ইতিহাসে মোছলেম জীবনের এই সফলতার বহু নজির বিদ্যমান আছে। অবশুক ছবর বা ধৈর্য্যধারণ করার। আল্লাহ ঠাহীর ছাবের বান্দাদিগের সঙ্গে আছেন, সুতরাং শক্তির জন্য সংখ্যাগণনা করিতে বসার কোন দরকার মুছলমানের কখনও হইতে পারে না । ২৬২ বিজয় লাভের গৃঢ় রহস্ত –

  • ধৈর্য্য ও প্রার্থনার দ্বারা শক্তি সঞ্চয় করিতে থাক”—এই আয়তের তাৎপৰ্য্য আমরা পূৰ্ব্বে অবগত হইয়াছি। তাল,তের সহযাত্রী মোমেন-মোঙ্গহেদগণ প্রথমে ধৈর্য্যধারণের সাধনায় অগ্রসর হইতেছেন, পূৰ্ব্ব আয়তে তাহার আভাৰ দেওয়া হইয়াছে। আলোচ্য আয়তে তাহীদের প্রার্থনার বিশেষত্ব বর্ণিত হইতেছে ।

জাল,ৎ এক “৬ হাত দীর্ঘ বিরাট বপু দৈত্য ।” অসংখ্য সৈন্তের এক বিরাট বাহিনী তাহার চারিপাশ্বে সমবেত । তাঁহাদের অযুত কণ্ঠের জয়নিনাদে সমর প্রাঙ্গন মুম্বই প্রকম্পিত । অন্যদিকে একদল সংখ্যালঘু মোছলেম ধীরস্থিরভাবে দণ্ডীয়মান হইয়া, আকাশের পানে দুইহাত তুলিয়া প্রার্থনা করিতেছে—হে আল্লাহ ! হে সকল শক্তির একমাত্র কেন্দ্র BBB S BBBB BB BBB BBBB BB BBB DDDSBBB BBBB BBBS BBS সেই ধৈৰ্য্য ধারণের পূর্ণশক্তি আমাদিগকে প্রদান কর, আমাদিগের চরণগুলি অটল করিয়া রাখ, এবং কাফের জাতির উপর আমাদিগকে জয়যুক্ত করিয়া দাও ! মুছলমানের মুক্তিসাধনার গুরুত্ব ও বৈশিষ্ট্য এই দৃশ্বের মধ্য দিয়া পরিস্ফুট হইয়া উঠিতেছে। হজরত মোহাম্মাদ মোস্তফার জীবন ইতিহাসের প্রতি পৃষ্ঠায়, শক্তি ও ভক্তি সাধনায় এই পুণ্য আদর্শ পূর্ণরূপে প্রতিষ্ঠিত হইয়া আছে । 剌 ২৬৩ দাউদের বীরত্ব ঃ– দাউদ সমাজের এক তরুণ যুবক । তাহার জ্যেষ্ঠ সহোদরগণ যুদ্ধে আসিয়াছিলেন, .