পাতা:কোরআন শরীফ (প্রথম খণ্ড) - মোহাম্মদ আকরম খাঁ.pdf/৪৭২

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


৪৫২ : কেলজতাশ শরীফ [ ङ्गठौष्ठ *ांब्री AAAAAA AAAA AAAAeeASAee Ee E AAAA AAAA AAAAS AAAAA AAAA AAAAS 更臀 AAAA SAS SSAS SSAS See AeSASAee eASeeeSeeSeeeASAeSMeAeeSeeMAeeAAA AAAAA আল্লাহ লেখকগণের প্রতি আদেশ করিতেছেন যে, তাহারা ভাষ্য ভাবে লিখিবে, কাহারও প্রতি পক্ষপাত করিবে না। আর সেই চুক্তিতে ক্রেতা বা বিক্রেতার भाषा बाण वा पूजा পরিশোধ করিতে ' দায়ী হইবে যে ব্যক্তি, সেই-ই লেখককে dictate করিuৰ—দলিলের এবারও বলিয়া দিবে। ইহাতে দলিলের শর্ত বা নিজের দায়িত্ব সম্বন্ধে কোন প্রকার অন্যায় ওজর আপত্তি তোলা দেনাদারের পক্ষে আদৌ সম্ভবপর হইবে না। ৩•৫অভিভাবকের দ্বারা চুক্তি – যে সকল ব্যক্তি তাহার দেয় মাল বা মূল্য বাকি রাখিয়া চুক্তিতে আবদ্ধ হইতেছে, তারাদের পক্ষে উপরিবর্ণিত রূপে দলিলের এবারৎ বলিয়া দেওয়া সকল সময় সম্ভবপর হইয়া উঠবে না। সেই জন্য সঙ্গে সঙ্গে বলা হইতেছে যে, দেনাদার যদি নিৰ্ব্বোধ হয়, কিম্বা সে যদি শক্তিহীন হয়, অথবা নিজে দলিলের এবরৎ বলিয়া দেওয়ার ( dictate করার ) মত ৰোগ্যতা যদি তাহার না থাকে, তবে তাহার অভিভাবক তাহার হইয়া এই সকল কৰ্ত্তব্য পালন করিবে । এখানে 'জইফ’ বা শক্তিহীন অর্থে অপ্রাপ্ত বয়স্ক বা অক্ষম বুদ্ধকে স্কুঝাইতেছে। ৩০৬ সাক্ষী :– অন্ততঃপক্ষে দুইজন সাক্ষী রাখার এই যে আদেশ, ইহা এই শ্রেণীর বৈষয়িক ব্যাপার -শম্বন্ধে বিশেষ ব্যবস্থা বলিয়া মনে হয় । কারণ এই বিষয়গুলি লইয়া গুরুতর বাদ বিতণ্ডা ও মামলা মোকদ্দমা উপস্থিত হইয়া থাকে। একজন পুরুষের পরিবর্তে দুইজন স্ত্রীলোককে সাক্ষী করার আদেশও এইরূপ একটা বিশেষ ব্যবস্থা। বহু ক্ষেত্রে কেবল একজন সাক্ষীর, এমন কি একজন স্ত্রীলোক সাক্ষীর বস্থানের উপর নির্ভর করিয়াই মোকদ্দমার চূড়ান্ত নিষ্পত্তি হইতে পারে বলিয়া বহু এমাম ও আলেম মত প্রকাশ করিয়াছেন। আল্লাহ নারীদিগের জন্য স্বতন্ত্ৰ কৰ্ম্মক্ষেত্ৰ নিৰ্দ্ধারিত করিয়া দিয়াছেন। পুরুষের কৰ্ম্মক্ষেত্রে সচরাচরই যদি তাহাকে টানিয়া আনা ও বৈষয়িক ব্যাপারে বেষ্টিত করিয়া রাখা হয়, তাহা হইলে তাহার নারীত্বের শ্রেষ্ট সম্বলগুলির অপচয় ঘটিয়া যাইবে। দুই পক্ষে মতানৈক্য হইলেই সাক্ষৗদিগকে প্রক্ষাত আদালতে উপস্থিত হইয়া সাক্ষ্য দিতে হইবে। নারীর পক্ষে ইহা যে কতদূর ধনসম্মানকর ও অসুবিধাজনক, তাহা সহজে অকুমান করা বাইতে পারে। এই জন্য ধারীকে বিনা দরকারে এই শ্রেণীর ব্যাপারে লিপ্ত না করাই সঙ্গত। তবে দরকার হইলে তাহদের লক্ষী হওয়ায় বা সাক্ষ্য দেওয়ায় কোন ক্ষতি নাই—আয়তে তাহা স্পষ্টতঃ বলিয়া দেওয়া হইয়াছে। নানা কারণে ছনয়ায় সাধারণতঃ নারীদিগের ষে অবস্থা তখন ছিল এবং এখনও আছে, তাহার উপর লক্ষ্য রাখিরা দুইজন নারীকে সাক্ষী করিতে বলা হইয়াছে। দুইজন হাখার তাৎপৰ্য্য কি, আয়তে তাহাও স্পষ্ট করিয়া বলিস্ক দেওয়া হইয়াছে।