পাতা:কোরআন শরীফ (প্রথম খণ্ড) - মোহাম্মদ আকরম খাঁ.pdf/৫৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


খর ছুপ , ১ম গ’? J আখেরাত, €S কৰত-মধ্যকার অন্ত লোকদিগকে বাহার এ যাবৎ (এই অতি অবতীর্ণ হওয়ার সূত্র পৰ্য্যন্ত) তাহাদিগের সঙ্গে—মুছলমানদিগের সঙ্গে যোগদান করে নাই, (তাহাদিগকেও ৷ হজরত আল্লার বাণী শুনাইবার এবং পবিত্র করার চেষ্টা করিয়া থাকেন)। ফলে হজরতের জীবিত কালের উন্মিদিগের কথাই এ আয়তে বলা হইতেছে, তাহার মৃত্যুর তের শত বৎসরকার কোন ঘটনার প্রতি নিশ্চয়ই এ আয়তে ইঙ্কিত করা হয় নাই। মির্জা ছাহেব নিজের অসাধু উদ্বেগু সফল করার জন্য প্রথমে উহাকে কতক সংযোগ সহ বাহরূপে অনুবাদ করিাছেন, .a০ শব্দের অনুবাদ ত্যাগ করিয়াছেন, এবং ৮us শব্দের অম্বুবাদ প্রথমে করিয়াছেন recites, আর পরে করিয়াছেন will read বলিয়া । لما يلعقول بهم পদের তত্তম হইবে —who have not yet joined them (RSoft cotstow win o worth, S. as 喃1)1 fool ofton of rotton who are yet to join them, ototo old .similarly কথাটা যোগ করিয়া দিয়াছেন। এখন পাঠক দেখিতেছেন—এ আয়তের বিকৃত অনুবাদ করিয়া মির্জা ছাহেব কিরূপ First advent 3 Second advent—to wifold of rotton I stata ord منهم -এর অনুবাদ বাদ দিয়াও যদি ধরা যায়, তাহা হইলে আল্লার বাণী শুনাইতে বা purify করিতে হজরতকে পুনরায় ফিরিয়া আসিতে হইবে—আহার মানে কি আছে o উম্মতের আলেমগণ প্রত্যেক যুগে লক্ষ কণ্ঠে তাহার তেলাওত, করিতেছেন এবং হজরতের শিক্ষা ও. আদর্শকে র্তাহারা বহু হাদিছের কেতবে জীবন্ত করিয়া রাখিয়া গিয়াছেন । ه صی / জগতের সমস্ত ধৰ্ম্ম মতের সমন্বয় সাধন করা এছলামের একটা প্রধান সাধনা। এছলামের পূৰ্ব্বে জগতের মাহৰ নিজেদের মধ্যে যে ভয়ানক কোদল কোলাহলের স্বট করিয়া রাখিয়াছিল, এবং এছলামকে অমান্ত করিয়া এখনও যাহারা পরম্পরের সহিত কোল কোলাহলে প্রবৃত্ত আছে—তাহার প্রধান উপলক্ষ হইতেছে ধর্থ। প্রত্যেক ধর্ম ও সমাজ বলে ও বিশ্বাস করে—একমাত্র তাহদের নিকট নবী ও আল্লার বাণী আসিয়াছে। ছায় তাহারা ছাড়া আর কেহই তাহ পাইবার অধিকারী নহে। যাহারা এরূপ দাবী করিতেছে, তাহারা মিথ্যাবাদী ও ভণ্ড । ঝগড়া বাধিতেছে এই খানে—আমার দেশ, আমার জাতি, আর আমার ভাষা ব্যতীত নবী হইতে পারে না, আল্লার বাণী প্রকাশিত হইতে পারে না । এই অহুদার মনোবৃত্তি লইয়া দ্বনাময় একটা মহা অনর্ধ ঘটতেছে। কিন্তু কোলান স্পষ্টীক্ষরে পুনঃ পুনঃ বলিয়া দিতেছে—প্রত্যেক দেশে ও প্রত্যেক জাতির মধ্যে আল্লার বাণী ও তাহার বাহকের আবির্ভাব হইয়াছে—“প্রত্যেক জাতির মধ্যে নবীর আবির্ভাব হইয়াছে।” ( ফাতের ২৫ ) । অন্যত্র বলা হইতেছে—“এবং আমরা প্রত্যেক জাতির নিকট রছল পৃঠিাইয়াছি |” কোআন ও হাদিছে এই মর্শ্বের আরও অনেক প্রমাণ বর্ণিত্ত্ব.আছে, এধু ইহা মুছলমান সমাজের সর্ববাদী সন্মত আকিদা।