পাতা:কোরআন শরীফ (প্রথম খণ্ড) - মোহাম্মদ আকরম খাঁ.pdf/৫৮

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


f wwwwwwu w Fu^^^^^^^^ گرمہ AAAAAASAAAA AAAA AAAAS AAAAA AAAAeeAe eSeSeSee eeeeA AeAeee eA AeeeSeeeSeEe eSeSeSeeeS eSeS SeS e eeeS AAAAAS SSAS SSAS SSAS SSASE eESeAeSAASAASAA AAAA ATTAeeMeAe eAeeeSAeeSeeMAee eeeAe Ae eAeESE eS AeSAeAeS eછે. ‘દ્ર কোরআন শরীফ [ প্রথম পারা এই আয়তেও বলা হইতেছে যে, মুছলমানগণ যেমন কোআনের প্রতি ঈমান রাখিবেন, সেইরূপ হজরত মোহাম্মদ মোস্তফার পূৰ্ব্বে যুগে যুগে জগতের কেন্দ্রে কেন্দ্রে আল্লার যে সব বাণী অবতীর্ণ হইয়াছে তাহাতেও ঈমান রাখিবে, এবং সেই সব বাণীর বাহকগণকে আগল্পী সত্য নবী বলিয়া বিশ্বাস ও স্বীকার করিবে। • , আয়তের শব্দ যোজনার প্রতি একটু মনোযোগ দিলে জানা যাইবে যে, হজরতের প্রতি অবতীর্ণ কেতাবের শিক্ষার আলোকে হজরতের পূর্ববর্তী কেতাবগুলির প্রতি নজর করিতে হইবে। হজরতের পূৰ্ব্বে যে সব কেতাব অবতীর্ণ হইয়াছিল, তাহা জাতি বিশেষের ও দেশ বিশেষের মধ্যে সীমাবদ্ধ ছিল। অধিকন্তু কালক্রমে লোকের উপেক্ষ বা ইচ্ছাকৃত অনাচারের ফলে সেই সকল বাণীর কতক বিকৃত ও কতক বিলুপ্ত হইয়া গিয়াছে—বহু প্রক্ষিপ্ত বিষয় তাহার মধ্যে ঢুকিয়া পড়িয়াছে। এই সব কারণে আমল’ বা ‘আকিদার” জন্য সেই সকল কেতাবের উপর এখন আর নির্ভর করা যাইতে পারে না। পক্ষান্তরে কোরআন এই চৌদ্দ শত বৎসর ধরিয়া এমন অসাধারণ সতর্কতার সহিত সুরক্ষিত হইয়া আছে যে, তাহাতে একটা অক্ষরের বিকার ঘটা সম্ভবপর হয় নাই, হইবেও না। অধিকন্তু সকল দেশের, সকল যুগের সমগ্র মুনিব সমাজের জন্যই তাহ সমাগত হইয়াছে। কাজেই 'আমল’ ও ‘আকিদার’ জন্য বিশ্বমানবকে এখন একমাত্র কোরআন শরীফের উপরই নির্ভর করিতে হইবে। –ة GartRFCRTER المفلحونه لا , মোফুলেছনের অর্থ-সফলকাম। যাহারা লক্ষ্যস্থানে পৌছিতে পারে, তাহারাই সফলকাম। সুতরাং দ্বিতীয় আয়তোহেদায়ত অর্থে যে শুধু পথ প্রদর্শন নহে, বরং সত্য পথে পরিচালিত করিয়া যাত্রীকে—পথিককে কাম্য স্থানে পৌছাইয়া দেওয়া হইবে, তাহা বেশ বুঝা যাইতেছে। I পাঠকগণ, স্মরণ রাখিবেন যে, চুর বকরার প্রথম ভাগে মো'মেন, কাফের ও মোনাফেকদিগের লক্ষণ যথাক্রমে বর্ণনা করা হইয়াছে। তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম আয়তে মোমেনদিগের বর্ণনা শেষ করার পর ষষ্ঠ ও সপ্তম আয়তে কাফেরদিগের এবং অষ্টম হইতে বিংশতি আয়ত পৰ্য্যন্ত মোনাফেকদিগের লক্ষণ বর্ণনা করা হইয়াছে। -—কাফর ৪ کفر لالا, অভিধানে উহার অর্থ—কোন বস্তুকে অপর বস্তুর দ্বারা ঢাকিয় ফেলা। কৃষক মাটর দ্বারা বীজকে ঢাকিয়া ফেলে, এই জন্য আরবী ভাষায় কৃষককেও কাফের বলা হয়। শাস্ত্রীয় পরিভাষায় উহার অর্থ—অজ্ঞতার জন্য অস্বীকার করা, জ্ঞাতসারে প্রত্যাখ্যান করা, এবং মুখে স্বীকার করা সত্বেও অন্তরে অমান্ত করা। (মাজালেম) । সত্যকে মিথ্যার দ্বারা আচ্ছাদিত {v. 8 .” o করিা দৈলিতে চায়, এই সামঞ্জস্তের হিসাবে তাহাকে কাফের বলা হয়। . . . . (