পাতা:কোরাণ শরিফ - দ্বিতীয় ভাগ.pdf/৩০

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8〉。 কোরাণ শরিফ। সৰ্ব্বদা থাকিবে। ২৪ । এই দুই দলের ভাব অন্ধ ও বধির দ্রষ্টা ও শ্রোতার সদৃশ, উভয়ে কি তুল্য ? অনম্ভর তোমরা কি উপদেশ গ্রহণ করিতেছ না ? * । ২৫ । ( র, ২ ) - এবং সত্যই আমি নুহকে তাহার সম্পদায়ের প্রতি প্রেরণ করিয়াছিলাম, (সে বলিয়াছিল)“নিশ্চয় আমি তোমাদের জন্য স্পষ্ট ভয়প্রদর্শক। ২৬ + যেন তোমরা ঈশ্বর ব্যতীত ( অন্যের ) অর্চনা না কর, নিশ্চয় আমি তোমাদের সম্বন্ধে দুঃখকর দিবসের শাস্তিকে ভয় করি ” । ২৭। অনন্তর তাহার দলের যে সকল প্রধান পুরুষ ধৰ্ম্মদ্রোহী তাহারা বলিল যে “আমরা আমাদের ন্যায় মনুষ্য বৈ তোমাকে দেখিতেছিনা, এবং যাহারা আমাদের মধ্যে বাহদশী নিকৃষ্ট তাহার ব্যতীত (কেহ) তোমার অনুসরণ করিতেছে দেখিতেছিনা, এবং আমরা দেখিতেছিন যে আমাদের উপরে তোমাদের কোন শ্রেষ্ঠত আছে,বরং তোমাদিগকে মিথ্যাবাদী মনে করিতেছি” ২৮। সে বলিয়াছিল , হে আমার সম্পূ দায়, তোমরা কি দেখিয়াছ ? যদি আমি আপন প্রতিপালকের নিদর্শনের উপর থাকি

  • দৰ্শন ও শ্রবণ বিষয়ে বিশ্বাসীদিগের অবস্থা কাফেরদিগের বিপরীত । বহরোল হকয়েকে উল্লিখিত হইয়াছে যে সেই ব্যক্তিই অন্ধ যে সত্যকে অসত্য ও অসত্যকে সত্য দর্শন করে, এবং বধির সেই ব্যক্তি যে অসত্যকে সত্য ও সত্যকে অসত্য শ্রবণ করিয়া থাকে। তিনিই চক্ষুষ্মান যিনি সত্যকে সত্য দর্শন করিয়া তাহার অমুসরণ করেন এবং অসত্যকে অসভ্য দেখিয়া তাহা হইতে বিরত থাকেন । অপিচ তিনিই শ্রোত যিনি সত্যকে সত্য শ্রবণ করিয়৷ তদনুরূপ কাৰ্য্য করেন এবং অসত্যকে অসত্য শ্রবণ করিয়া তাহা হইতে বিরত হন । যিনি ঈশ্বর যোগে দশন করেন তিনি ঈশ্বর ব্যতীত অন্য কিছু অবলোকন করেন না, এবং যিনি ঈশ্বর যোগে শ্রবণ করেন তিনি ঈশ্বরের বাণী ব্যতীত শ্রবণ করেন न' । ( उ, ८श्], ) -