পাতা:কৌত্তক বিলাস.djvu/৪৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


86 কৌত্তক বিলাস । , শরকারে দাখিল করিতে। সৰ্ব্বক্ষণ অন্বেষণ করে রাজা চিতে ॥ ছলঅনৃেষণ করে তিলে পাড়ে তাল । দেয়ান নায়েব তারা বাড়ায় জঞ্জাল । কিন্তু যদি সেইজন কথা কহে ভাল। আরে তারে রাজ্য দান করেন ভূপাল। তহার প্রমাণ গুন বাস সেই গ্রাম ৯ জাতিতে গোয়াল তার হরিঘোষ নাম ৷ হইবে হাজার গাভি বলদ বিস্তর কোন জন কহিয়াছে রাজার গোচর ৷ শুনি রাজা এক দিন কলিন তারে । ভাল দধি কাল বিছুদিবিরে আমারে। শুনিয়া গোপের সুত হয়ে হরষিত। দুগ্ধ অন্বেষণে যান পাঠায়ত্ত্বরিত। যে গাভির পঞ্চসের অগে দুন্ধছিল । খেড়ো হয়ে ক্রমে তার এক পোয় হৈল৷ এহেন দুগ্ধের দুগ্ধ করি অন্বেষণ। সাজামিশাইয়া দধি পাতিল সেজন। পরে সেই দধি লয়ে দেয় রাজ্যেশ্বরে ভোজন সময় দধি আহরণ করে । কোন দোষ দুধির ভ পতি নাছিপায় । কহিতে অকথ্য কথা কখন বৃথায় রাজা বলে ওরে বেট গোয়ালার সুত । তোর দধি খেয়ে আমি হয়েছি বিশ্বত ॥ কিজানি কি মিশাইয়ে দধি দিলি মোরে। চুকায় বদন সদা কি কহিব তোরে। ওলকচু কিবা দধি বিষের ভাবণী । মারিতে আমারে বেট দধি দিলি আনি ৷ কিজানি কিদিলি ইথে কেমন হইল। খাইয়া তোমার দধি বুঝিপ্রাণ গেল । আরে দুষ্ট দুরাচার এমন করম ৷ ব্ৰহ্মবধ হেক্ত তোর নাহিক