পাতা:ক্রমশ ফসিলের মত একটা শব্দ.pdf/২৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মানুষকে মানুষের অবশিষ্ট ব’লে প্রবীণ মহীরুহ উপড়ে প’ড়লেও, বাজ প’ড়ে জ'লে গেলেও তা মহীরুহ ব’লে চিনতে এতটুকু ভুল হয়না পৃথিবীর প্রাচীন মন্দিরের চূড়ো ভেঙে পড়লেও, চিড় ধ'রে গেলেও তা মন্দিরের পুণ্য পবিত্রতাকেই বুকে ধ’রে রাখে মায়ের মতো প্রখ্যাত রাজপ্রাসাদ ধ্বংস হ’য়ে গেলেও, প্রজাতন্ত্রের পতাকা উড়লেও তা রাজপ্রাসাদেরই ধ্বংসাবশেষের অনেক ইতিহাস তখনও ব’লে যায় কিন্তু মানুষ তার দুর্ধর্ষ শর্তকে নির্মমভাবে ভঙ্গ করলে, হত্যা করলে শত চেষ্টা ক’রেও ধুরন্ধর প্রত্নতাত্ত্বিকেরা যুগের কফিন থেকে মানুষের খসখসে মরচে ধরা মনকে, কয়লার মতো জমাট মস্তিষ্ককে মানুষের ধারালো পাথরচাপা হৃদয়কে, আলকাতরার মতো রক্তকে মানুষের অবশিষ্ট ব’লে উদ্ধার করতে পারে না, সনাক্ত করতে পারে না । মামুষেরা তখন ক্রমশ মানুষ থেকে, মানুষের অপার্থিব মহিমা থেকে মানুষেরা তখন ক্রমশ বৃক্ষ থেকে, বৃক্ষের নিশ্চপ সবুজ দর্শন থেকে সাংঘাতিকভাবে নিজস্ব জটিলতলায় বন্যা পীড়িতের মতো বিচ্ছিন্ন হ’য়ে পড়ে একদিন পাশাপাশি যাত্রা শুরু ক’রে, সমুদ্রের বিশালতাকে একমাত্র সাক্ষী রেখে কোটি চিন্ময় অস্কুরের দ্বৈত শপথের কথা, প্রতিশ্রুতির কথা মানুষ কেমন নিদ্বিধায় ভুলে যেতে পারে, অস্বীকার করতে পারে কেমন নিঃসঙ্কোচে প্রাগৈতিহাসিক প্রাণীর অবলুপ্তির বৈজ্ঞানিক সিদ্ধান্তকে মিথ্যা প্রমাণ ক’রে যায় মাচুয, নিজেকেই মিথ্যা প্রমাণ করে মাতুষ অথচ বুদ্ধের মতো মহীরুহ প্রলয়ের মুহূর্তেও মহীরুহ থেকে যায় । বোধিবৃক্ষ থেকে যায় । ২৭