পাতা:ক্রমশ ফসিলের মত একটা শব্দ.pdf/৪৩

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বিশ্বনাথ ভট্টাচার্য / ছুরিটাকে শান দিয়ে নিচ্ছি সাম্যবাদের শানেতে অামার ছুরিটাকে শান দিয়ে নিচ্ছি লক্কা পায়রার পালকের মতে ক’রে, সাহসকে বলিহারি যাই, বুকের পাটা ওঠা-নামাতে । তবু সববাইকে ডেকে ওরা ব’লে বেড়ায় - অামি নাকি সাধু, আমি নাকি সাধু । ওটা ওদের স্বভাব নয় – কুৎসা রটানো ওরা ভালবাসে হৃদয় দিয়ে, ভালোবাসি আমি করুণ ক’রে ওদের মধ্যে কেউ যখন ঘৃণা ভরে তাকাতো তখন আমার রন্ধে রন্ত্রে জ’লে উঠতো আদিমতা । সরীসৃপের দংশনের মতো ক’রেই হয়তো অামার ছুরিটা বিদ্ধ হ’তে পারতো ওই হাপরের মতো ওঠা-নাম বুকটাতে । তারপর হয়তো তোমরা সববাই চমকে উঠতে । সারাদিনের কর্মক্লাস্ত সূর্যটা যখন ঘরে ফিরবে পশ্চিম অাকাশে তখন যে গনগনে অঁাচ উঠবে তাতে আমার ছুরিটাকে টেম্পরে দিয়ে নেব । 8 O