পাতা:খাদ্যতত্ত্ব.djvu/১১৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ষোড়শ অধ্যায় ੧ੱਛਜੇੜ੍ਹ জল জল সমস্ত জন্তু ও উদ্ভিদের প্রাণ। শুষ্ক খাদে্যুব চতুগুণ জল ব্যতীত তত: পরিপাক হয় না । গ্রীষ্মকালে তারও অধিক জলের প্রয়োজন হয় । পানীয় জল বিশুদ্ধ হওয়া আবশুক । দুষিত জলে নানা রকম পীড়ার বীজ নিহিত থাকে । চহারা পানীয় জলের সহিত জীবদেহে প্রবেশ করে । জলের দোষেই সাধারণতঃ কলেরা, আমাশায় প্রভৃতি রোগ ব্যাপ্ত হইয়া পড়ে । বিশুদ্ধ জল স্বাদ ও গন্ধ বিহীন । কাচ পাত্রে রাখিয়া দেখিলে ইহার কোন বর্ণ নাই বলিয়া প্রতীয়মান হয় । বিশুদ্ধ জল পাওয়া সুকঠিন । যদিও বৃষ্টির জল উত্তম কিন্তু ইহাও কিঞ্চিৎ পরিমাণে বায়ু মণ্ডলস্থ দুষিত পদার্থ ধারণ কবে । তথাপি বৃষ্টির জল সৰ্ব্বোত্তম । তৎপরে উৎস জল, পাৰ্ব্বত্য নদী বা হ্রদের জল এবং ২০ হস্তের অধিক গভীর কৃয়ার জল উত্তম । সাধারণ নদীর জল, অগভীর কুয়ার জল এবং অরক্ষিত পুষ্করিণীর জল নিকৃষ্ট । যে পুষ্করিণীতে কেহ স্নান, অবগাহন কিম্বা কাপড় ধৌত করে না, এবং যাচাতে কোন ঘাস বা আবর্জন নাই, সেই জলও উত্তম ; কিন্তু এই জলও সন্দেহজনক, কারণ কোন ব্যক্তি অগোচরে, কলেরা, আমাশয়, প্রভৃতি ব্যাধীর বীজ সংলগ্ন হস্তপদাদি বা বস্ত্র ধৌত করিয়া জল বিষাক্ত করিয়া দিতে পারে । সুতরাং জল সাধারণতঃ উত্তাপ দ্বারা ফুটাইয়া লইয়া ব্যবহার করাই উচিত। ফুটন্ত জল বালি ও কয়লা চুর্ণ দ্বারা ফিলটার করিয়া লইলে সম্পূর্ণরূপে বিশুদ্ধ হইতে পারে । ওলাউঠা, টাইফয়েড় জর প্রভৃতি সংক্রামক রোগের বীজ