পাতা:খাদ্যতত্ত্ব.djvu/১২৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


অষ্টাদশ অধ্যায় আশব্লুৰ্ব্বেদ মতে খাদ্য ব্যবস্থা আয়ুৰ্ব্বেদ শাস্ত্রে খাদ্যসম্বন্ধে বহু মন্তব্য লিপিবদ্ধ আছে । যদিও এই মন্তব্য সৰ্ব্ব বিষয়ে বৰ্ত্তমান যুগের অভিজ্ঞ ব্যক্তিগণের মস্তব্যের অনুরূপ নয়, তথাপি ইহাদ্বারা পাঠকের বিশেষ হিতসাধন হইবে আশা করা যায় । আয়ুৰ্ব্বেদোক্ত প্রয়োজনীয় খাদ্য ব্যবস্থা নিম্নে উদ্ধত হইল – আহারের প্রথমে মধুরসযুক্ত দ্রব্য, পরে অম্ল ও লবণরসবিশিষ্ট দ্রব্য, তদনন্তর কটু, তিক্ত, কষায় রসযুক্ত দ্রব্য ভোজন করিবে । ভোজনের আদ্যে ঘৃতাক্ত ও কঠিন দ্রব্য ভক্ষণ, তৎপরে কোমল দ্রব্য এবং সৰ্ব্বশেষে তরল দ্রব্য ( দধি, দুগ্ধাদি ) গ্রহণ করিবে । অধিক তরল দ্রব্য মিশ্রিত শুষ্ক বা স্রোতোরোধক পদার্থ হইলেও উত্তমরূপে পরিপাক হয় ; কিন্তু তরল পদার্থ মিশ্রিত ভিন্ন কেবল শুষ্ক দ্রব্য ভোজন করিলে তাহ সুচারুরূপে পরিপাক হয় না । ভোজনের আদিতে জলপান করিলে শরীরের কৃশতা এবং অগ্নিমান্দ্য উপস্থিত হয় । ভোজনের মধ্যভাগে জলপান করিলে অগ্নি প্রদীপ্ত হয় । এবং ভোজনাস্তে জলপান করিলে শরীরের স্থলত এবং কফ বুদ্ধ হইয়া থাকে । অতএব ভোজনের মধ্যেই জলপান প্রশস্ত । অত্যন্ত জলপান দ্বারা ভুক্ত দ্রব্য পরিপাক হয় না এবং একেবারে জলপান না করিলে ভক্ষিত দ্রব্য পরিপাক হওয়ার প্রতিবন্ধকতা জন্মে ; অতএব আহারের সময়ে পুনঃপুনঃ অল্প পরিমাণ জলপান করা কৰ্ত্তব্য । পিপাসিত ব্যক্তির ভোজন এবং ক্ষুধিত ব্যক্তির জলপান করা অবিধি । গুৰুত্ৰৰ্য ( চিড় প্রভূতি ), বিরুদ্ধ দ্রব্য (ক্ষীর, মৎস্তাদি), ‘বষ্টস্তিদ্রব্য ( ছোলাদি ), জঠরাগ্নি মনীভূত করে । ভোজনের আদ্যে trড়িম্ব ফল,