পাতা:খাদ্যতত্ত্ব.djvu/২৭

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ъв r চাউল চাউল গুপ্তভ করে । সিদ্ধ করিবার সময়ে যখন পাত্রের উপরে ভাপনার স্বীপ উঠে, তখন বুঝিয়ে হইৰে যে, সিদ্ধ ঠিক হইয়াছে । এইরূপ সিদ্ধ চাউলের বর্ণ উজ্জল হয়। বাখরগঞ্জের লোক নুতন ধান গরম জলে কিয়ৎক্ষণ ভিজাইরা চাউল প্রস্তুত করে। বঙ্গদেশে বিধবাদিগের খাদ্যের জন্ত এৰং ঠাকুর পুজার জন্যই প্রধানতঃ আতপ চাউলের ব্যবহার । আতপ চাউল কীটের আক্রমণ হইতে রক্ষা করা কঠিন । চাউল ছাটার মাত্র অনুসারেও মূল্যের তারতম্য হয় । অধিক ছাটা চাউলের মূল্য অধিক ; কিন্তু অধিক ছাটায় চাউলের অধিকাংশ তৈলাক্ত পদার্থ ও লবণ এবং কতক নাইট্রোজেনযুক্ত পদার্থ কুঁড়ার সহিত চলিয়া ষায় । ইহাতে চাউলের মূল্য হ্রাস হওয়া যুক্তিযুক্ত, কিন্তু অধিক ছাটায় চাউল এবং তাহার ভাত অতি উজ্জ্বল হয়, এই জন্তই এই চাউল অধিক মূল্যে বিক্রয় হয়। ছাট চাউল সতরঞ্চি কিম্বা থলিয়ার উপর রাখিয়া ঘসিয়া পালিস করিয়া লইলে ইহার ভাত ফাটে ন!, ইহাকে মাজ চাউল বলে । রাসায়নিক পরীক্ষা দ্বারা জানা গিয়াছে যে সাধারণতঃ মোট ধানের এবং অধিক সারযুক্ত উৰ্ব্বর ভূমির ধানের চাউল অধিক সারবান, সুতরাং উচ্চভূমির ধান অপেক্ষা নিম্নভূমির ধান খাদ্যগুণে শ্রেষ্ঠ । পুষ্টকারিতায় চাউল অন্তান্ত প্রধান খাদ্য অপেক্ষা হীন, ইহাতে প্রোটিন্ড ও ভষ্মের ভাগ অতি অল্প । এইজন্য ভাতের সহিত প্রচুর মৎস্ত মাংস গ্রহণ অবশু কৰ্ত্তব্য । কেবল ভাত আহার না করিয়া এক ৰেলা রুটীর স্ব্যৰস্থা করিলে শরীর বলিষ্ঠ হইবে । চাউল দুই তিন ঘণ্টা ভিজাইয়া যাতায় পিষিয়া বা টেকিতে কুটিয়া আটা প্রস্তুত করা যায় । চাউলের অাটায় উত্তম চাপাটি ও পিষ্টকাদি প্রস্তত হয় । ধান্ত হইতে সুখাদ্য চিড়া, মুড়ি ও খৈ প্রস্তুত হয় । কিন্তু ইহাজের সহিত তুষ থাকিলে এই সব খাদ্য অপকারী হর । কলিকাতার চাউল সাধারণতঃ নিম্নলিখিত নামে অভিহিত হয়, যথা—