পাতা:গল্পসল্প - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৬

উইকিসংকলন থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন
এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গল্পসল্প কুসমি দাদামশায়ের গলা জড়িয়ে বললে, দাদামশায়, এটা কিন্তু শোনাচ্ছে ভালো। কিন্তু, ও কথা থাক। নীলুবাবুর বাড়িতে কাল কী রকম হুলুস্থল বেধেছিল সে খবরটা বিধুমামার কাছে শোনে-ন । কী গো মামা, কী হয়েছিল শুনি । অদ্ভূত— বিধুমামা বললেন, পাড়ায় রব উঠল নীলুবাবুর কলমটা পাওয়া যাচ্ছে না ; খোজ পড়ে গেল মশারির চালে পর্যন্ত। ডেকে পাঠালে পাড়ার মাধুবাবুকে । বললে, ওহে মাধু, আমার কলমটা ? মাধুবাবু বললেন, জানলে খবর দিতুম। ধোবাকে ডাক পড়ল, ডাক পড়ল হারু নাপিতকে । বাড়িসুদ্ধ সবাই যখন হাল ছেড়ে দিয়েছে তখন তার ভাগনে এসে বললে, কলম যে তোমার কানেই আছে গোজা । যখন কোনো সন্দেহ রইল না তখন ভাগনের গালে এক চড় মেরে বললে, বোকা কোথাকার, যে কলমটা পাওয়া যাচ্ছে না সেটাই খুজছি। রান্নাঘর থেকে স্ত্রী এল বেরিয়ে ; বললে, বাড়ি মাথায় করেছ যে । নীলু বললে, যে কলমটা চাই ঠিক সেই কলমটা খুজে পাচ্ছি না। বউদি বললে, যেটা পেয়েছ সেই দিয়েই কাজ চালিয়ে নেও, যেটা পাও নি সেটা কোথাও পাবে না । নীলু বললে, অন্তত সেটা পাওয়া যেতে পারে কুণ্ডুদের দোকানে । বউদি বললে, না গো, দোকানে সে মাল মেলে না । নীলু বললে, তা হলে সেটা চুরি গিয়েছে। তোমার সব জিনিসই তো চুরি গিয়েছে, যখন চোখে পাও না দেখতে S$